Widgetized Section

Go to Admin » Appearance » Widgets » and move Gabfire Widget: Social into that MastheadOverlay zone

বিশ্ব ব্যাংক প্রধানকে আবুল হোসেনের চিঠি

ঢাকা, ১৫, এপ্রিল: সাবেক যোগাযোগমন্ত্রী সৈয়দ আবুল হোসেন পদ্মা সেতুতে কোনো দুর্নীতি হয়নি দাবি করে বিশ্ব ব্যাংক প্রধান রবার্ট জেলিককে একটি চিঠি দিয়েছেন। যাতে নিজেকে নির্দোষ দাবি করেছেন তিনি।

বর্তমানে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি মন্ত্রী আবুল হোসেন সম্প্রতি চীনে অনুষ্ঠিত বোয়াও ফোরাম ফর এশিয়ায় (বিএফএ) সম্মেলনের ফাঁকে ৩ এপ্রিল বিশ্ব ব্যাংক প্রধানের সঙ্গে দেখা করেন।

চিঠিতে সাবেক তিনি দাবি করেন, তার আমলে পদ্মা সেতু প্রকল্পে সব কাজ হয়েছে দেশের প্রচলিত আইন ও বিশ্বব্যাংকের নির্দেশনা ও পরামর্শ অনুযায়ী। প্রকল্পের শুরু থেকে দরদাতা চূড়ান্ত করা পর্যন্ত সব কাজ বিশ্ব ব্যাংকের অনুমোদন নিয়ে করা হয়েছে।

শেষ মুহূর্তে বিশ্বব্যাংকের এ ইস্যুতে প্রশ্ন তোলাটা তাই প্রশ্নবিদ্ধ বলে মনে করেন তিনি।

আবুল হোসেনের দাবি, নথিপত্র ঘাঁটলে জেলিকও দেখতে পারবেন, এ ক্ষেত্রে সততা বা স্বচ্ছতার কোনো বিচ্যুতি হয়নি।

তিনি বলেন, “কিছু ব্যর্থ দরদাতার মিথ্যা ও ভিত্তিহীন অভিযোগের ভিত্তিতে বিশ্ব ব্যাংক দুর্নীতির অভিযোগ তোলায় আমি অবাক হয়েছি।”

৬ দশমিক ১৫ কিলোমিটার দীর্ঘ পদ্মা সেতু নির্মাণে এর আগে বিশ্ব ব্যাংকসহ কয়েকটি ঋণদাতা সংস্থার সঙ্গে চুক্তি করে সরকার। কিন্তু দুর্নীতির অভিযোগে গত বছরের সেপ্টেম্বরে বিশ্ব ব্যাংক অর্থায়ন স্থগিত করলে বহু প্রতীক্ষিত পদ্মা সেতু প্রকল্প আটকে যায়। কানাডায় এ ব্যাপারে তদন্ত চলছে।

চুক্তি অনুযায়ী, ২৯০ কোটি ডলারের এ প্রকল্পে বিশ্ব ব্যাংকের ১২০ কোটি ডলার দেয়ার কথা। এছাড়া এডিবি ৬১ কোটি, জাইকা ৪০ কোটি এবং ইসলামী উন্নয়ন ব্যাংক ১৪ কোটি ডলার ঋণ দেওয়ার কথা। বাকি অর্থের যোগান দেয়ার কথা ছিল সরকারের।

এ অবস্থায় গত ফেব্রুয়ারিতে এ প্রকল্পে আগ্রহ প্রকাশ করে মালয়শিয়া। গত মঙ্গলবার পদ্মা সেতু নির্মাণসহ অবকাঠামো উন্নয়নের জন্য মালয়শিয়ার সঙ্গে সমঝোতা স্মারকে সই করেছে বাংলাদেশ।

Share this:
Share this page via Facebook Share this page via Twitter

LIKE US on FACEBOOK নিউজ সোর্স b24/মজ / ডেস্ট