Widgetized Section

Go to Admin » Appearance » Widgets » and move Gabfire Widget: Social into that MastheadOverlay zone

সুরঞ্জিতকে প্রধানমন্ত্রী: ‘পদত্যাগ করুন’

ঢাকা, ১৬ এপ্রিল: টাকা নিয়ে এপিএস’র গভীর রাতে রেলমন্ত্রী সুরঞ্জিত সেনগুপ্তের বাসায় যাওয়ার ঘটনায় ক্ষুব্ধ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা রেলমন্ত্রীকে পদত্যাগ করতে বলেছেন। তিনি রোববার রাতে গণভবনে সুরঞ্জিত সেনগুপ্তকে ডেকে পদত্যাগ করতে বলেন। এজন্য তিনি সুরঞ্জিত সেনগুপ্তকে ২৪ ঘণ্টা সময়ও দিয়েছেন।

প্রধানমন্ত্রী এসময় রেলমন্ত্রীকে বলেছেন, ঘটনার সঙ্গে আপনার সংশ্লিষ্টতা নেই প্রমাণ করুন অথবা পদত্যাগ করেন। এই ঘটনায় সরকার প্রশ্নের মুখে পড়ুক এটা আমরা চাই না। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের বাইরে যাওয়ার আগে পদত্যাগ করুন।

গণভবনে সুরঞ্জিত সেনগুপ্তকে ডাকার আগে রেলমন্ত্রীকে এসব সিদ্ধান্তের কথা জানানো হবে বলে বঙ্গভবনেই জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ ‍হাসিনা। একাধিক সূত্র এসব তথ্য জানিয়েছেন।

সূত্র জানায়, রোবরার সন্ধ্যায় বঙ্গভবনে রাষ্ট্রপতি মো. জিল্লুর রহমানের সঙ্গে সাক্ষাত করতে যান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি তুরস্ক সফরের বিষয়ে রাষ্ট্রপতিকে অবহিত করেন। এসময় সুরঞ্জিত সেনগুপ্তের বিষয়টিও আলোচনা হয়।

বঙ্গভবনেই রাষ্ট্রপতির সঙ্গে প্রধানমন্ত্রীর এক ঘণ্টাব্যাপী বৈঠকে সংসদ উপনেতা সৈয়দা সাজেদা চৌধুরীও উপস্থিত ছিলেন। সূত্রের খবর, রাষ্ট্রপতি  রেলমন্ত্রীকে স্বেচ্ছায় পদত্যাগে যাওয়ার জন্য বলা অথবা তাকে অপসারণের কথা জানানোর জন্য প্রধানমন্ত্রীকে পরামর্শ দিয়েছেন।

পরে প্রধানমন্ত্রী সেখান থেকেই তার ব্যক্তিগত কর্মকর্তাদের মাধ্যমে সুরঞ্জিত সেনগুপ্তকে গণভবনে ডেকে পাঠানোর নির্দেশ দেন।

সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় থেকে গত রাতে বারবার সুরঞ্জিত সেনগুপ্তের ফোন নম্বরে ফোন করা হয়। কিন্তু তার (সুরঞ্জিত) ফোন বন্ধ থাকায় প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় থেকে কেউ সুরঞ্জিত সেনগুপ্তের সাথে কথা বলতে পারেননি। পরে প্রধানমন্ত্রীর এপিএস সাইফুজ্জামান শেখর ধানমন্ডি থানা ছাত্রলীগের এক নেতাকে রেলমন্ত্রীর বাড়িতে পাঠিয়ে বলেন, দাদা (সুরঞ্জিত) যেন প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে দ্রুত ফোন করেন।

এ সংবাদ দেয়ার পর রেলমন্ত্রী সুরঞ্জিত সেনগুপ্ত প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে ফোন করেন। সেখান থেকে তাকে দ্রুত প্রধানমন্ত্রীর সরকারি বাসভবন গণভবনে যেতে বলা হয়। রাত ৯টার কিছু আগে তিনি গণভবনে প্রবেশ করেন।

প্রধানমন্ত্রীর ডাকে সাড়া দিয়ে দ্রুত গণভবনে গেলেও এ সময় প্রধানমন্ত্রী গণভবনে ছিলেন না। তিনি প্রধানমন্ত্রীর এপিএস সাইফুজ্জামান শেখরের অফিস কক্ষে বসে থাকেন। সোয়া ১০টার দিকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা রেলমন্ত্রী সুরঞ্জিত সেনগুপ্তের সাথে একান্তে কথা বলেন।

প্রায় ২৫ মিনিট প্রধানমন্ত্রীর সাথে কথা বলে বের হওয়ার সময় রেলমন্ত্রীকে বিমর্ষ দেখাচ্ছিল।

গণভবন থেকে বের হওয়ার আগে সুরঞ্জিত সেনগুপ্ত তার সহকর্মীদের জানিয়ে দেন তিনি গণমাধ্যমের সাথে কোনো কথা বলবেন না। গণভবন থেকে বেরিয়ে তিনি সরাসরি জিগাতলার বাসায় চলে যান।

রাত ১২টার দিকে গণমাধ্যমকে রেলমন্ত্রী বাসা থেকে জানানো হয়, রেলভবনে সুরঞ্জিত সেনগুপ্ত সোমবার সাংবাদিকদের সঙ্গে মতবিনিময় করবেন। সেখানে তিনি প্রধানমন্ত্রীর সাথে অনুষ্ঠিত বৈঠকের বিস্তারিত জানাবেন।

গত সোমবার রাতে ৯ এপ্রিল রাতে সুরঞ্জিতের এপিএস ওমর ফারুক তালুকদারের গাড়িতে ৭০ লাখ টাকাসহ ধরা পড়ার ঘটনা প্রকাশ হওয়ার পর থেকে রেলমন্ত্রীকে নিয়ে দেশজুড়ে ব্যাপক আলোচনা-সমালোচনার ঝড় বইছে। তার পদত্যাগের দাবি উঠেছে বিরোধীদল ও সুশীল সমাজের পক্ষ থেকে।

সূত্র জানায়, প্রধানমন্ত্রী সুরঞ্জিত সেনের এই ঘটনা জানার পর খুবই মর্মাহত হয়েছেন। সুরঞ্জিত সেনগুপ্তের কারণে সরকারের ইমেজ নষ্ট হওয়ায় তিনি ভীষণভাবে ক্ষিপ্ত। এ কারণে প্রধানমন্ত্রী বিষয়টি নিয়ে প্রকাশ্যে কোনো কথাও বলছেন না।

Share this:
Share this page via Facebook Share this page via Twitter

LIKE US on FACEBOOK নিউজ সোর্স b24/মজ / ডেস্ট