Widgetized Section

Go to Admin » Appearance » Widgets » and move Gabfire Widget: Social into that MastheadOverlay zone

সাহস থাকলে সম্পদের হিসাব দিন:এমকে আনোয়ার

ঢাকা, ১০ এপ্রিল: প্রধানমন্ত্রী ও তার পরিবারের সম্পদের হিসাব দাবি করে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য এমকে আনোয়ার বলেছেন, “সরকার দুর্নীতিতে ডুবে গেছে। বিশ্বব্যাংক পর্যন্ত এই সরকারের দুর্নীতির কথা বলছে। প্রধানমন্ত্রীকে বলব, আপনার সম্পদের হিসাব কোথায়। নির্বাচনের আগে প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন, ক্ষমতায় গেলে সম্পদের হিসাব দেবেন। আমরা দাবি করছি, প্রধানমন্ত্রী ও মন্ত্রীদের সম্পদের হিসাব জনসমক্ষে প্রকাশ করুন।”

 

মঙ্গলবার সকালে জাতীয় সংসদের দক্ষিণ প্লাজায় বিরোধী দলীয় সংসদ সদস্যদের এক মানববন্ধন কর্মসূচিতে তিনি একথা বলেন।

 

দলের সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমানের সব মামলা প্রত্যাহারের দাবিতে বিরোধী দলীয় সংসদ সদস্যরা এই মানববন্ধন করে। এতে বিএনপির ২৮ জন এমপি উপস্থিত ছিলেন।

 

সাবেক মন্ত্রী এম কে আনোয়ার বলেন, “প্রধানমন্ত্রীকে বলব, আপনার সাহস থাকলে সম্পদের হিসাব দিন। তা না হলে জনগণ মনে করবে আপনার ও আপনার আত্মীয়-স্বজনরা যে সম্পদ গড়েছেন, তা দুর্নীতির মাধ্যমে হয়েছে।”

 

সরকার ও মহাজোটের শরিকদের দেয়া নতুন ছয় ব্যাংকের মালিকদের নাম উল্লেখ করে তিনি বলেন, “যাদের নতুন ব্যাংক দেয়া হয়েছে, তাদের সম্পদের হিসাব কোথায়। কিভাবে তিন বছরে তারা এতো অর্থের মালিক হলেন। দেশের মানুষ তা জানতে চায়।”

 

তারেক রহমানসহ খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে দায়েরকৃত ‘মিথ্যা মামলা’ প্রত্যাহারের দাবি জানিয়ে এম কে আনোয়ার বলেন, “আওয়ামী লীগ তাদের দলের সাত হাজার ৩১ টি মামলা প্রত্যাহার করেছে। অন্যদিকে তারা বিরোধী দলের নেতা-কর্মীদের বিরুদ্ধে একের পর এক মিথ্যা মামলা দিচ্ছে।”

 

আগামীতে বিএনপি ক্ষমতায় গেলে আওয়ামী লীগের প্রত্যাহারকৃত মামলাগুলো আবার পুনরুজ্জীবিত করে নতুন করে বিচার করা হবে বলেও জানান এম কে আনোয়ার।

 

পদ্মা সেতু নিয়ে অর্থমন্ত্রী ও যোগাযোগমন্ত্রীর দুই রকমের বক্তব্যের সমালোচনা করে তিনি বলেন, “পদ্মা সেতুতে দুর্নীতি হয়েছে বলে বিশ্বব্যাংক অর্থায়ন বন্ধ করে দিয়েছে। কানাডীয় একটি কোম্পানির ওপর ইতিমধ্যে বিশ্বব্যাংক সাময়িকভাবে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে। এখন সরকার মালয়েশিয়ার সঙ্গে চুক্তি সই করার কথা বলে জনগণকে বিভ্রান্ত করছে। অর্থমন্ত্রী বলছেন, কোনো চুক্তি হবে না। আবার যোগাযোগমন্ত্রী বলছেন, চুক্তি হবে।”

 

তারেক রহমানের বিরুদ্ধে দায়েরকৃত মামলাগুলো মিথ্যা দাবি করে এম কে আনোয়ার বলেন, “সরকার তারেক রহমানকে রাজনীতি থেকে দূরে রাখার জন্য এসব মিথ্যা মামলা দিয়েছে। ১/১১ তে যেসব মামলা তার বিরুদ্ধে করা হয়েছিল, তার একটিও প্রমাণ করতে পারেনি সরকার।”

 

মানববন্ধন কর্মসূচিতে অন্যান্যের মধ্যে লিবারেল ডেমোক্রেটিক পার্টির চেয়ারম্যান কর্নেল অব. অলি আহমেদ, বিরোধী দলীয় চিফ হুইপ জয়নুল আবদিন ফারুক, বরকত উল্লাহ বুলু, মাহবুবউদ্দিন খোকন, আবুল খায়ের ভূঁইয়া, শহীদ উদ্দিন চৌধুরী এ্যানি, সৈয়দ আসিফা আশরাফি পাপিয়া, শাম্মী আখতার, আমজাদ হোসেন প্রমুখ বক্তব্য দেন।

 

এতে অন্যান্যের মধ্যে বিএনপির মজিবুর রহমান সারওয়ার, জাফরুল ইসলাম চৌধুরী, আবদুল মমিন তালুকদার খোকা, মুহাম্মদ মোশাররফ হোসেন, এ কে এম হাফিজুর রহমান, নুরুল ইসলাম মঞ্জু, নাজিম উদ্দিন আহমেদ, রেহানা আখতার রানু, নীলুফার চৌধুরী মনি, রাশেদা বেগম হীরা, শেখ সুজাত মিয়া প্রমুখ সংসদ সদস্য উপস্থিত ছিলেন।

Share this:
Share this page via Facebook Share this page via Twitter

LIKE US on FACEBOOK নিউজ সোর্স b24/মজ / ডেস্ট