Widgetized Section

Go to Admin » Appearance » Widgets » and move Gabfire Widget: Social into that MastheadOverlay zone

পদ্মা নেতু নির্মাণ করবে মালয়েশিয়া: শেখ হাসিনা

ঢাকা, ৬ এপ্রিল: চলতি মেয়াদেই পদ্মা সেতু নির্মাণের কাজ শুরু হতে আর কোনো জটিলতা নেই। বিশ্বব্যাংক নয় বরং মালয়েশিয়ার অর্থায়নেই নির্মিত হবে দক্ষিণ বঙ্গের আশা আকাঙ্খার পদ্মা সেতু। আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সংসদের বৈঠকে জানিয়েছেন আওয়ামী লীগ সভানেত্রী এবং প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। বৈঠক সূত্র বার্তা২৪ ডটনেটকে এ খবর নিশ্চিত করেছে।

শুক্রবার গণভবনে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার‌্যনির্বাহী সংসদের  প্রায় তিন ঘণ্টার বৈঠকে দলের সাংগঠনিক কার্যক্রম, রাজনৈতিক কর্মসূচিসহ বিভিন্ন বিষয় নিয়ে আলোচনা করা হয়।

সূত্র জানায়, আওয়ামী লীগের সাত সাংগঠনিক বিভাগের দায়িত্বপ্রাপ্ত সম্পাদকদের আগামী বৈঠকের মধ্যেই সাংগঠনিক কার্যক্রমের পূর্ণাঙ্গ রিপোর্ট জমা দিতে বলা হয়েছে। এছাড়াও এবারের বৈঠকে গুরুত্ব দেয়া হয়েছে আওয়ামী লীগের সদস্য ফরম পূরণের দিকেও। কেননা, প্রায় ছয় মাস আগে সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম তার নিজ নির্বাচনী এলাকায় প্রাথমিক সদস্য ফরম পূরণের জন্য তৃণমূলের নেতাকর্মীদের প্রতি আহবান জানান। তিনি এটাও বলেন, পরবর্তীতে আওয়ামী লীগের রাজনীতি আসতে হলে নিয়মতান্ত্রিক ভাবে সদস্য ফরম পূরণ করে আসতে হবে। কিন্তু এই কাজে কোনো গতি দেখাতে পারেনি আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদকগণ।

বৈঠকে সরকারের সফলতা তুলে ধরে বিভিন্ন জেলায় প্রচার-প্রচারণা চালানোর জন্যও বলা হয়।

বৈঠকের শুরুতে সমুদ্র জয়ের জন্য দলীয় সভানেত্রী এবং প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সংসদের পক্ষ থেকে ফুলেল শুভেচ্ছা জানানো হয়।

আওয়ামী লীগের কর্মসূচি
১৯৭১ সালের ১০ এপ্রিল মুজিবনগরে অস্থায়ী সরকার গঠন করা হয়। তাজউদ্দীন আহমেদকে প্রধানমন্ত্রী করে গঠিত এই সরকার ১৭ এপ্রিল ভারতীয় সীমান্তবর্তী মুজিবনগরের আমবাগানে শপথ বাক্য পাঠ করে।

দিনটিকে যথাযোথ মর্যাদায় পালনের জন্য আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় নেতারা সৈয়দা সাজেদা চৌধুরীর নেতৃত্বে ১৭ এপ্রিল মুজিবনগর যাচ্ছেন। পরদিন ১৮ এপ্রিল রাজধানীর বঙ্গবন্ধু স্টেডিয়ামে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে যুব গণসংবর্ধনা দেবে যুবলীগ।

সংবর্ধনার পরের দিন ১৯ এপ্রিল রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে মুজিবনগর সরকারের তাৎপর্য নিয়ে এক বিশেষ আলোচনা সভার আয়োজন করবে আওয়ামী লীগ। এই আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

মে মাসের প্রথম দিন শ্রমিকদের আত্মত্যাগের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে রাজধানীর অদূরে টঙ্গীতে এক বিশাল শ্রমিক-জনতার আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়েছে। এই শ্রমিক সভায় উপস্থিত থাকবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

এছাড়া ১৭ মে শেখ হাসিনার স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস উদযাপন উপলক্ষে্য আওয়ামী লীগ সহ সংগঠনের সকল সহযোগী ও ভাতৃপ্রতীম সংগঠনকে বিশেষ প্রস্তুতি নিতে বলা হয়েছে।

তবে আসন্ন ঢাকা সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে দলীয় সমর্থন সংক্রান্ত কোনো আলোচনা এই বৈঠকে হয়নি বলে জানিয়েছেন একাধিক সূত্র।

শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে এই বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য এবং জাতীয় সংসদ উপনেতা সৈয়দা সাজেদা চৌধুরী, সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম, সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য মতিয়া চৌধুরী, শেখ ফজলুল করিম সেলিম, ড. মহিউদ্দীন খান আলমগীর, কাজী জাফরউল্লাহ, আব্দুল লতিফ সিদ্দিকী, সতীশ চন্দ্র সেন, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব-উল-আলম হানিফ, ডা. দীপু মনি, সাংগঠনিক সম্পাদক অ্যাডভোকেট জাহাঙ্গীর কবির নানক, আহমদ হোসেন, বি এম মোজাম্মেল হক, খালিদ মাহমুদ চৌধুরী, আবু সাঈদ আল মাহমুদ স্বপন, মেসবাহ উদ্দীন সিরাজ, দফতর সম্পাদক আব্দুল মান্নান খান, উপ-দফতর সম্পাদক মৃণাল কান্তি দাস, প্রচার সম্পাদক নূহ উল আলম লেনিন, উপ প্রচার সম্পাদক অসীম কুমার উকিল, তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক অ্যাডভোকেট আফজাল হোসেন, কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য এ কে এম এনামুল হক শামীম, মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া, সুজিত রায় নন্দী প্রমুখ|

Share this:
Share this page via Facebook Share this page via Twitter

LIKE US on FACEBOOK নিউজ সোর্স b24/মজ / ডেস্ট