Widgetized Section

Go to Admin » Appearance » Widgets » and move Gabfire Widget: Social into that MastheadOverlay zone

দলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচন: উত্তর এড়িয়ে গেলেন সিইসি

চট্টগ্রাম, ৫ এপ্রিল: তত্ত্বাবধায়ক সরকারের পরিবর্তে দলীয় সরকারের অধীনে আগামী নির্বাচন হলে তা সুষ্ঠুভাবে অনুষ্ঠানে বর্তমান নির্বাচন কমিশন যথেষ্ট সক্ষম কিনা, সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের উত্তর এড়িয়ে গেলেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কাজী রকিবউদ্দিন আহমদ।

বৃহস্পতিবার সকালে চট্টগ্রাম সার্কিট হাউজের সম্মেলন কক্ষে ভোটার তালিকা হালনাগাদ সংক্রান্ত বিভাগীয় সমন্বয় কমিটির সভায় এই প্রশ্নের উত্তর এড়িয়ে চলে যাবার সময় সাংবাদিকেরা পুনরায় এ ইস্যুতে সিইসি’র দৃষ্টি আকর্ষণ করলে তিনি বলেন ‘‘এ বিষয়ে আপনাদের সাথে পরে আরো আলাপ হবে।’’

যুদ্ধাপরাধের অভিযোগে যাদের বিচার চলছে তারা নির্বাচনে প্রার্থী ও ভোটার হতে পারবেন কিনা এমন প্রশ্নের জবাবে সিইসি বলেন ‘‘দণ্ডপ্রাপ্ত কোনো ব্যক্তি নির্বাচনে প্রার্থী হবার বিধান প্রচলিত আইনেই নেই। আর ১৮ বছর বয়সের যে কোনো বাংলাদেশী নাগরিকই ভোটার হবার যোগ্য। তবে এ বিষয়ে (যুদ্ধাপরাধে অভিযুক্তদের ভোটার হবার ) আমাকে আরো দেখতে হবে।’’

আসন্ন ডিসিসি নির্বাচনে সেনা মোতায়েন না করার সিদ্ধান্ত সরকারের নাকি নির্বাচন কমিশনের এমন প্রশ্নের উত্তরে তিনি বলেন ‘‘বর্তমান যে পরিস্থিতি তাতে সেনা মোতায়েনের প্রয়োজন দেখছি না। চট্টগ্রাম, কুমিল্লা, নরসিংদী ও নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের নির্বাচনতো সেনা মোতায়েন ছাড়া সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন হয়েছে। বড় আকারের নির্বাচনে কিছু সমস্যা থাকে। নির্বাচন নিয়ে আমরাতো এখনও উন্নত দেশের স্তরে পৌঁছাতে পারিনি। ডিসিসি নির্বাচন নিয়ে এখন পর্যন্ত পরিস্থিতি পজিটিভ মনে হচ্ছে। তবুও সুষ্ঠু নির্বাচনের প্রয়োজনে যখন যা কিছু দরকার করা হবে।’’

ভারতসহ আরো কিছু দেশের মতো একদিনের পরিবর্তে ভিন্ন ভিন্ন তারিখে পর্যায়ক্রমে সারাদেশে জাতীয় নির্বাচন অনুষ্ঠান প্রসংগে কাজী রকিবউদ্দিন আহমদ বলেন ‘‘এ ব্যাপারে স্টেকহোল্ডাররা একমত হতে পারেননি। আমাদের বিশ্বাসে এখনো ঘাটতি রয়ে গেছে। তবে এটা সম্ভব হলে আইন-শৃংখলা পরিস্থিতি বজায় রাখাসহ অনেক বিষয়ে ভালো হতো।’’

সিইসি বলেন, ‘‘ভোটার তালিকা হালনাগাদ ও সুষ্ঠু নির্বাচন অনুষ্ঠান বিশাল এক কর্মযজ্ঞ। এ কাজে সব মহলের সহযোগিতা প্রয়োজন। নির্বাচন সুষ্ঠু, স্বচ্ছ ও গ্রহণযোগ্য করতে নির্বাচন কমিশন নানা পদক্ষেপ নিচ্ছে। এক্ষেত্রে সবচেয়ে বড় ভূমিকা রয়েছে সাধারণ মানুষের। মানুষ উঠে দাঁড়ালে দুস্কৃতকারীরা সুবিধা করতে পারে না। পারে তখন, যখন মানুষ নীরব থাকে।’’

তিনি বলেন, ‘‘ভোটার তালিকা হালনাগাদ কার্যক্রম নিয়ে নির্বাচন কমিশন অনেক দূর অগ্রসর হয়েছে। ডিসেম্বরের মধ্যে হালনাগাদ কার্যক্রম শেষ করার পরিকল্পনা রয়েছে। এটা শেষ হলে ২০১৩ সালের জানুয়ারির মধ্যে ভোটার তালিকা মুদ্রণের কাজ সম্পন্ন করা হবে।’’

সিইসি বলেন, ‘‘রোহিঙ্গাসহ বিদেশীদের ভোটার তালিকায় অন্তর্ভুক্তি, মিথ্যা তথ্য দিয়ে একাধিকবার ভোটার হওয়া, সঠিক ও শুদ্ধ ভোটার তালিকা ও জাতীয় পরিচয়পত্র প্রদান ইত্যাদি বিষয়ে যথাযথ সতর্কতামূলক ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে। প্রবাসী বাংলাদেশীরাও ভোটার হতে পারবেন। তবে তারা যখন দেশে অবস্থান করবেন তখনই এ সুযোগ পাবেন।’’

তিনি বলেন, ‘‘এবার ডিজিটাল ক্যামেরাসহ উন্নতমানের ইক্যুইপমেন্ট সংগ্রহ করা হয়েছে। একাধিক পর্যায়ে সংগৃহীত তথ্য যাচাই-বাছাই করা হচ্ছে। সারাদেশের প্রতিটি ইউনিয়নে একটি করে রিসোর্স সেন্টার করার ব্যবস্থা হয়েছে। তবে উন্নত প্রযুক্তি ও মেশিনারিজ পরিচালনায় যথেষ্ট দক্ষ জনবল পাওয়া যাচ্ছে না।’’

তিনি বলেন, ‘‘এবার ভোটার তালিকা হালনাগাদের সাথে পুরনো অবিলিকৃত জাতীয় পরিচয়পত্র বিতরণেরও পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে।’’

সিইসি বলেন, ‘‘প্রতিটি উপজেলায় সার্ভার স্টেশন স্থাপনের কাজ শেষ হলে ভুল পরিচয়পত্র সংশোধন ও নবায়নের কাজে জটিলতা কেটে যাবে।’’ তাছাড়া ঢাকায় কেন্দ্রীয় তথ্যভাণ্ডার এমনভাবে সংরক্ষণের ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে যাতে করে অনাহূত কেউ এতে প্রবেশ করতে না পারে, আর কোনো দুর্যোগ-দুর্বিপাকে এটা নষ্ট হলে বিকল্প ব্যবস্থা হিসাবে ঢাকার বাইরে দ্বিতীয় তথ্যভাণ্ডার সংরক্ষণাগার গড়ে তোলার পরিকল্পনা রয়েছে বলে তিনি জানান।

এদিকে চট্টগ্রাম আঞ্চলিক নির্বাচন কমিশন কার্যালয় সূত্র জানায়, সর্বশেষ তথ্য অনুযায়ী ভোটার তালিকা হালনাগাদের ৪টি পর্যায়ের প্রথম পর্যায়ে চট্টগ্রাম অঞ্চলের চট্টগ্রাম জেলার লোহাগাড়া, কক্সবাজার জেলার পেকুয়া, বান্দরবান জেলার রোয়াংছড়ি, রাঙামাটি জেলার রাজস্থলী, খাগড়াছড়ি জেলার লক্ষ্মীছড়ি উপজেলায় এ পর্যন্ত ২৫ হাজার ১৪৩ জনের তথ্য সংগ্রহ ও ৯০৪৭ জনের ছবি তোলা হয়েছে। অন্যদিকে কুমিল্লা অঞ্চলের ব্রাহ্মণবাড়িয়া, আখাউড়া, কুমিল্লার চান্দিনা, নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জ, ফেনীর ফুলগাজী, চাঁদপুরের মতলব ( উত্তর) ও লক্ষ্মীপুরের সদর উপজেলায় এ পর্যন্ত ৭০৫৭১ জনের তথ্য সংগ্রহ ও ২৮১০৯ জনের ছবি উত্তোলন করা হয়েছে।

চট্টগ্রাম বিভাগীয় কমিশনার মো. সিরাজুল হক খানের সভাপতিত্বে সভায় বক্তব্য রাখেন চট্টগ্রামের জেলা প্রশাসক ফয়েজ আহমদ, পুলিশের চট্টগ্রাম রেঞ্জ ডিআইজি নওশের আলী, জেলা পুলিশ সুপার জেড এ মোরশেদ ও চট্টগ্রাম আঞ্চলিক নির্বাচন কর্মকর্তা ফরহাদ আহমদ খান।

Share this:
Share this page via Facebook Share this page via Twitter

LIKE US on FACEBOOK নিউজ সোর্স b24/মজ / ডেস্ট