Widgetized Section

Go to Admin » Appearance » Widgets » and move Gabfire Widget: Social into that MastheadOverlay zone

তোপের মুখে পালালেন অস্ট্রেলীয় প্রধানমন্ত্রী (ভিডিও)

‘অস্ট্রেলিয়া ডে’ উদযাপন উপলক্ষে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে যোগ দিয়েছিলেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী জুলিয়া গিলার্ড। প্রধানমন্ত্রীর আগমনের খবর পেয়ে অনুষ্ঠানস্থলের চারপাশে জড়ো হতে থাকেন আদিবাসীরা। একপর্যায়ে তাঁরা প্রধানমন্ত্রী ও তাঁর সঙ্গে থাকা বিরোধীদলীয় নেতা টনি অ্যাবোটের ওপর ক্ষুব্ধ হয়ে স্লোগান দিতে থাকে। পরক্ষণেই ‘শেইম’ ‘রেসিস্ট’ বলে তাঁদের দিতে তেড়ে আসতে থাকেন আদিবাসী নেতারা। অবস্থা বেগতিক দেখে ঘটনাস্থল থেকে একপ্রকার পালিয়েই রক্ষা পান গিলার্ড ও অ্যাবোট। নিরাপত্তারক্ষীরা মানবঢাল বানিয়ে গাড়িতে তুলে দেন তাঁদের। আজ বৃহস্পতিবার রাজধানী ক্যানবেরায় আদিবসাীদের তোপের মুখে পড়েন প্রধানমন্ত্রী ও বিরোধী দলের এই দুই নেতা।
ডেইলি মেইলের খবরে বলা হয়, ক্যানবেরায় ‘অস্ট্রেলিয়া ডে’ উদযাপন উপলক্ষে আয়োজিত একটি পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে যোগ দেন জুলিয়া গিলার্ড। স্থানীয় একটি রেস্তোরাঁয় অনুষ্ঠানটির আয়োজন করা হয়। গিলার্ড সেখানে পৌঁছার পর রেস্তোরাঁর চারপাশে আদিবাসীরা জড়ো হয়ে স্লোগান দিতে থাকেন। অনুষ্ঠান শেষে গিলার্ডের দিকে প্রতিবাদকারীরা তেড়ে যান। আদিবাসী প্রতিবাদকারীদের সঙ্গে পুলিশ ও জুলিয়া গিলার্ডের সঙ্গে থাকা অন্য ব্যক্তিদের হাতাহাতির একপর্যায়ে গিলার্ড একটি জুতা হারিয়ে ফেলেন। তখন দাঙ্গা পুলিশের সদস্যরা গিলার্ডের চারপাশে অবস্থান নিয়ে তাৎক্ষণিক একটি মানবঢাল তৈরি করেন। তাঁদের মাঝখানে থাকা গিলার্ডকে আগলে রেখে তাঁর দেহরক্ষী অনেকটা টেনে-হিঁচড়ে নিয়ে যান একটি সাদা গাড়ির দিকে। এ সময় গিলার্ড তাঁর দেহরক্ষীকে শক্ত করে জাপটে ধরে থাকেন। গিলার্ডের চোখে-মুখে ছিল ভয়ের ছাপ।
বিক্ষোভাকারীদের প্রতিবাদের মুখে ঘটনাস্থলে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়। প্রায় ২০ মিনিট পর পুলিশ পুরো ঘটনাস্থল ঘিরে ফেলে। পরে গিলার্ড তাঁর সরকারি বাসভবনে ‘অস্ট্রেলীয় ডে’ উপলক্ষে আরেকটি অনুষ্ঠানের আয়োজন করেন।
ডেইলি মেইল জানায়, দুই শতাধিক আদিবাসী বিক্ষোভকারী মূলত অ্যাবোটের বিরুদ্ধেই স্লোগান দিচ্ছিলেন। বার্তা সংস্থা রয়টার্সের ভিডিও চিত্রে দেখা যায়, কয়েকজন প্রতিবাদকারী রেস্তোরাঁর বাইরে থেকে অ্যাবোট ও গিলার্ডের উদ্দেশে ‘শেইম’ ও ‘রেসিস্ট’ (বর্ণবাদী) বলে স্লোগান দিচ্ছিলেন।
১৭৮৮ সালের ২৬ জানুয়ারি যুক্তরাজ্যের নৌবহর অস্ট্রেলিয়ার সিডনিতে পৌঁছার পর দেশটিতে ঔপনিবেশিক শাসনের সূত্রপাত হয়। এর পর থেকে প্রতি বছর ২৬ জানুয়ারি অস্ট্রেলিয়ায় ‘অস্ট্রেলীয় ডে’ হিসেবে উদযাপিত হয়ে আসছে। কিন্তু অস্ট্রেলিয়ার আদিবাসীরা দিনটিকে আগ্রাসন দিবস হিসেবে গণ্য করে।
১৯৭২ সালে কয়েকজন অস্ট্রেলীয় আদিবাসী নেতা দেশটির পুরোনো পার্লামেন্ট প্রাঙ্গণে আদিবাসীদের ভূমি ও রাজনৈতিক অধিকার আদায়ের লক্ষ্যে ‘অ্যাবোরিজিনাল টেন্ট অ্যামবেসি’ স্থাপন করেন। আজ সকালে এই ‘অ্যাবোরিজিনাল টেন্ট অ্যামবেসি’ সরিয়ে ফেলার আহ্বান জানান বিরোধীদলীয় নেতা অ্যাবোট। আর এতে ক্ষুব্ধ হয়ে ওঠেন আদিবাসী ও অনেক অস্ট্রেলীয় নাগরিক। সেই থেকেই এই বিক্ষোভের সূত্রপাত।

 

সোর্স প্রথম আলো

 

 

Share this:
Share this page via Facebook Share this page via Twitter

LIKE US on FACEBOOK নিউজ সোর্স b24/মজ / ডেস্ট