Widgetized Section

Go to Admin » Appearance » Widgets » and move Gabfire Widget: Social into that MastheadOverlay zone

ধোনি-শচিনদের দ্বৈরথে শুরু হচ্ছে আইপিএল

চেন্নাই, ৪ এপ্রিল: হ্যাটট্রিকের সামনে চেন্নাই। পরপর দু’বার, এবার হবে? আইপিএলে নজরকাড়া সাফল্য। প্রথমবার রানার্স আপ, দ্বিতীয়বার সেমিফাইনালিস্ট, পরের দু’বার খেতাব। ধোনির চওড়া কপাল নিয়ে রসিকতা রয়েছে। ধোনি ছুঁলেই সোনা।

আরো একজন ক্রিকেট দুনিয়ার এভারেস্টে। জীবনে সব পেয়েছেন। বিশ্বকাপ অধরা ছিল, তাও হয়ে গেছে। আক্ষেপ বলতে একটাই, আই পি এল পাননি। মনে করা হচ্ছে, তার নেতৃত্বে নাকি এবারও চ্যাম্পিয়ন যোগ নেই, সেই কারণেই রাতারাতি হরভজনের হাতে নেতৃত্ব ভার সঁপেছেন। আজ চিপক স্টেডিয়ামের পিচ দেখার সময় মনে হবে, ভাজ্জি নন, দলের আসল নেতা শচিন টেন্ডুলকারই। হ্যাঁ, এখনো।

চেন্নাই সুপার কিংস বনাম মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স। আজ পঞ্চম আই পি এলের উদ্বোধনী ম্যাচের যুযুধান দুই প্রতিপক্ষ। কিন্তু দুটি দলে এমন কিছু চরিত্র রয়েছেন, যাদের কাছে এবার ক্রোড়পতি লিগ চ্যালেঞ্জের। প্রথম নাম রবীন্দ্র জাদেজা। তাকে চেন্নাই নিয়েছে দশ কোটি টাকার বিনিময়ে। তাকে দেখাতে হবে তিনি আদতে কত অর্থের প্লেয়ার! পরের নাম হরভজন সিং।

ভাজ্জি এখন আর ধারে নয়, নামে কাটছেন। এই আইপিএল তাকে ক্রিকেটার না অধিনায়ক কী হিসেবে প্রতিষ্ঠা দেয়, তাই দেখার। এছাড়াও দু’দলে নানা বিদেশীরা রয়েছেন। রিকি পন্টিং এদিন বলেছেন, আমার এখনো এমন সময় আসেনি যে আইপিএল খেলে বোঝাতে হবে কত দরের ক্রিকেটার! পন্টিং প্রথম বছর খেলেই সরে গেছেন। ক্লার্কের কাছে এতোদিন ব্রাত্য ছিলো টোয়েন্টি ২০ লিগ, তিনিও অর্থের কাছে আত্মসমর্পন করেছেন। কিন্তু তার দলেরই মিচেল জনসন এখন জাতীয় দলে সুযোগ পান না, তিনি আবার শচীনদের দলের একনম্বর পেসার, তাকে দেখাতে হবে তিনি এখনো সমান কার্যকরী।

আইপিএল মানেই ফটাফট ক্রিকেট। ২০ ওভারের ইনিংসে যে চালাতে পারছে, সে থাকো, নইলে কাটো। মাঠের পাশে দুই শিল্পপতি বসে থাকবেন। চেন্নাইয়ের শ্রীনিবাসন, যিনি বোর্ড সভাপতিও, আর মুম্বাইয়ের মুকেশ আম্বানি। কিন্তু মাঠে যারা লড়বেন তাদের কাছে নতুন কিছু নয়। শুরু থেকেই রে রে করে বিপক্ষ বোলারদের নিধন করো। ধোনি-রায়নার বন্ধুত্ব নিয়ে বেশ কথা হচ্ছে। ধোনি যতদিন, রায়না ততদিন। এমন তকমা চেন্নাই মহলেও কান পাতলে শোনা যায়, সেই মাহি এবার নতুন চুলের ছাঁট দিয়ে জানিয়েছেন, আইপিএল প্রায় ৬০ দিনের (আদতে ৪৭ দিনের) টুর্নামেন্ট, শুরু থেকেই ভালো খেললেই শেষে ফল মিলবে, এমন বলা যাবে না। বরং ধারাবাহিকতা রাখাটাই মুখ্য। যিনি আবার নিজের শহর রাঁচিতে ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে ওয়ান ডে ম্যাচ পড়ায় যারপরনাই খুশি, উচ্ছ্বসিতও বটে।

ধোনি বলছেন, ভাজ্জি বলবেন না? তিনিও আশায়, শচিনের পাশে থেকে শুরু থেকেই নেতা হিসেবে নজর কাড়বেন। কে জিতবে, সময় বলবে। কিন্তু ম্যারাথন টুর্নামেন্টে জল যে বহু গড়াবে, এটা অস্বীকার করা যাবে না। দেখাই যাক না, মেরিনা বিচের শহরে ভাজ্জি না ধোনি কে শেষ হাসি হাসেন!
সূত্র: ওয়েবসাইট।

Share this:
Share this page via Facebook Share this page via Twitter

LIKE US on FACEBOOK নিউজ সোর্স b24/মজ / ডেস্ট