Widgetized Section

Go to Admin » Appearance » Widgets » and move Gabfire Widget: Social into that MastheadOverlay zone

বিশেষ কমিটিও বিপাকে

 ব্যর্থ হয়ে হাল ছেড়েছে সিসিডিএম। এরপর বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডও (বিসিবি) ব্যর্থ। তবে আশার আলো সমস্যা সমাধানে বিসিবি’র বিশেষ কমিটি গঠন। কিন্তু রোববার বেঁধে দেয়া ২৪ ঘণ্টায় ভিক্টোরিয়ার পকিস্তানি ক্রিকেটার মো. ইউসুফকে নিয়ে সৃষ্ট সংকটের সমাধান করতে পারেনি বিশেষ কমিটিও! গতকাল সন্ধ্যায় বিশেষ কমিটির সদস্য বিসিবি পরিচালক গাজী আশরাফ হোসেন লিপু বলেন, ‘আমি যতটুকু জানি আমাদের কমিটির আহ্বায়ক বিসিবি’র সিনিয়র সহ-সভাপতি মাহবুুবুল আনাম আবাহনী, মোহামেডান ও ভিক্টোরিয়া  ক্লাবের সঙ্গে কথা বলেছেন। তাদের অনেক ক্ষোভ তাই সময় লাগছে এক টেবিলে বসাতে। আমরা বোর্ডে যাচ্ছি, দেখি তাদের সবাইকে একত্রিত করা যায় কিনা।’ তবে কমিটির আরেক সদস্য ডিসিপ্লিনারি কমিটির  চেয়ারম্যান সিরাজউদ্দিন মোহাম্মদ আলমগীর আজই (গতকাল) সমস্যা সমাধানের বিষয়ে শঙ্কা প্রকাশ করেছেন। তিনি বলেন, ‘আজই (গতকাল) হবে কিনা তা বলা খুবই কঠিন।’
এদিকে ভিক্টোরিয়ার গভর্নিং বডির চেয়ারম্যান লুৎফর রহমান বাদল বলেছেন, ‘আমার সঙ্গে এখনও (বিকাল ৫টা) কেউই যোগাযোগ করেনি। আর আমরাতো বলিনি যে আমরা খেলবো না। এটা আবাহনী আর মোহামেডানের সমস্যা। তবে ক্রিকেটের স্বার্থে এক টেবিলে বসতে কোন আপত্তি নেই।’
অন্যদিকে, আবাহনীর ক্রিকেট কমিটির চেয়ারম্যান নাজমুল হাসান পাপন রয়েছেন সিঙ্গাপুরে। যে কারণে তার সঙ্গেও কোন কথা হয়েছে কিনা সন্দেহ রয়েছে। গাজী আশরাফ হোসেন লিপু বলেন, ‘আমাকে মাহবুবুল আনাম জানিয়েছেন পাপন সিঙ্গাপুর যাওয়ার আগেই তার সঙ্গে কথা বলে গেছেন।’ লুৎফর রহমান বাদলের সঙ্গে কথা হয়েছে কিনা তা জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘আমি শুনেছি ভিক্টোরিয়ার সঙ্গে কথা হয়েছে। তবে বাদলের সঙ্গে হয়েছে কিনা জানি না। ভিক্টোরিয়ার প্রেসিডেন্টের সঙ্গে কথা হতে পারে।’ মোহামেডান ক্লাবের প্রেসিডেন্ট লোকমান হোসেন ভুইয়া বলেন, ‘সকাল ১১টায় আমাকে মাহবুবুল আনাম ফোন করে জানিয়েছিলেন, আজ আলোচনা হতে পারে। তবে এখন বাজে সন্ধ্যা ৭টা কিন্তু এখন পর্যন্ত তারা আর আমার সঙ্গে যোগাযোগ করেননি।’ মোহাম্মদ ইউসুফের বিষয়ে তাদের অবস্থান জানাতে গিয়ে তিনি আরও বলেন, ‘আমরা আগে জানতে চাই ইউসুফকে নিয়ে ভিক্টোরিয়ার দেয়া ছাড়পত্রটি  বৈধ কিনা? আমাদের দৃঢ় বিশ্বাস বাদল যে ছাড়পত্রটি দিয়েছে তা   বৈধ না। তাই আমরা তদন্ত করে তাদের সিদ্ধান্ত জানাতে বলেছি। তবে তারা যদি বলে ছাড়পত্রটি বৈধ তাহলে আমরা অন্য ব্যবস্থার কথা চিন্তা করবো। কোন সমাধান করতে হলে আগে এই কাজটি তাদের করতেই হবে। নয়তো কোনভাবেই সমাধান সম্ভব না। আর আমরা অলোচনায় বসবো কিনা তাও সন্দেহ আছে।’
অন্যদিকে, বিসিবি গঠিত বিশেষ কমিটির আহবায়ক মাহবুবুল আনামের সঙ্গেও এই বিষয় নিয়ে কোন রকম যোগাযোগ করা সম্ভব হয়নি। কারণ তার মোবাইল ফোনটিও বন্ধ ছিল। তবে একটি সূত্রে জানা যায়, তিনি ব্যবসার কাজে চট্টগ্রাম আছেন। অপরদিকে কমিটির আরেক সদস্য দেওয়ান শফিউল আরেফিন টুটুলও সন্ধ্যা পর্যন্ত ব্যস্ত ছিলেন ব্যক্তিগত কাজে। তাকে ফোনে পাওয়া গেলেও তিনি দ্রুততার সঙ্গে বলেন, ‘আমি ব্যক্তিগত কাজে ব্যস্ত পরে কথা হবে।’ তাই সমাধান শব্দটিকে এখন অনেক দূরেরই ভাবা চলে। এক ক্লাব কর্মকর্তা নাম প্রকাশ না করার শর্তে বলেই দিলেন, ‘আসলে বিড়ালের গলায় ঘণ্টি বাঁধবে কে? এইটি এখন বড় বিষয়।’
ইউসুফকে নিয়ে বিতর্কের বিষয়ে যাদের সমাধান করার কথা সেই সিসিডিএমের কথা আসতেই ভিক্টোরিয়ার লুৎফর রহমান বাদল বলেন, ‘সিসিডিএমকে আমরা ব্যর্থ মানতে পারি না। তারা তাদের কাজ ঠিকই করেছে। সিসিডিএম তাদের  সিদ্ধান্ত নিয়েছে। কিন্তু ওই দুটি ক্লাবইতো মানেনি।’ তাহলে কি বলতে চান ক্ষমতার প্রভাব খাটিয়েছে ক্লাব দুটি? ‘আমার তাইতো মনে হয়। তা না হলে এই বিষয় বোর্ড পর্যন্ত গড়াবে কেন আর বিশেষ কমিটি হবে কেন?’ তবে সিসিডিএমের ব্যর্থতার কথা সরাসরি না বললেও গাজী আশরাফ লিপু বলেন, ‘আসলে সিসিডিএমের আরও দায়িত্বশীল ভূমিকা নেয়া উচিত ছিল। তারা এই ঘটনা আরও আগেই সমাধান করতে পারতো। কেন তারা আগে সুযোগ থাকতেও তা করেনি। মো. উইসুুফকে নিয়ে তো মোহামেডান অভিযোগ মাঠে খেলা গড়ানোর আগেই দিয়েছিল।’
এদিকে একটি বিশ্বস্ত সূত্র জানায়, আগামীকালই মাঠে গড়াতে পারে প্রিমিয়ার ডিভিশন ক্রিকেট লীগ। মূলত ভিক্টোরিয়াকে দুর্বল করার জন্যই মোহামেডান ও আবাহনী ইউসুফ ইস্যুকে সামনে এনে লীগ স্থগিত করে রাখে। লুৎফর রহমান বাদলের বিরুদ্ধে মোহামেডানের কিছু কর্মকর্তার ব্যক্তিগত আক্রোশই এর নেপথ্য কারণ বলে মনে করছেন অনেকে। সাকিব ও তামিম আইপিএল খেলতে যাওয়ায় ভিক্টোরিয়া দুর্বল হয়ে পড়েছে। তাদেরকে না খেলানোর জন্যই এই কালক্ষেপণ।

Share this:
Share this page via Facebook Share this page via Twitter

LIKE US on FACEBOOK নিউজ সোর্স b24/মজ / ডেস্ট