Widgetized Section

Go to Admin » Appearance » Widgets » and move Gabfire Widget: Social into that MastheadOverlay zone

বর্ণাঢ্য স্বাধীনতা র‌্যালি বিএনপি’র

গণমিছিলের আবহে লাখো নেতাকর্মীর অংশগ্রহণের মাধ্যমে বর্ণাঢ্য স্বাধীনতা র‌্যালি করেছে বিএনপি। বিশাল আকারের জাতীয় ও দলীয় পতাকা, মোটরবাইক বহর, ব্যানার, ঘোড়ার গাড়ি এবং ব্যান্ড বাদ্য বাজিয়ে মহান স্বাধীনতা ও বিজয় দিবস উপলক্ষে এ র‌্যালি করেছে দলটি। নয়াপল্টন বিএনপি কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে বিকাল সাড়ে চারটায় বেলুন উড়িয়ে র‌্যালির উদ্বোধন করেন দলের ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। উদ্বোধন করতে গিয়ে তিনি বলেন, দেশে এখন গণতন্ত্র অবরুদ্ধ। তাই গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠার দাবিতে নির্দলীয় সরকার পুনর্বহালের জন্য বর্তমান সরকারকে ৯০ দিনের সময় দেয়া হয়েছে। আগামী ১০ই জুনের মধ্যে সরকার সংবিধান সংশোধনের মাধ্যমে তত্ত্বাবধায়ক সরকার পদ্ধতি পুনর্বহাল না করলে সর্বাত্মক আন্দোলনে নামবে বিরোধী দল। বিরোধীদলীয় নেতা খালেদা জিয়ার নেতৃত্বে দুর্বার আন্দোললের মাধ্যমে সরকারকে দাবি মানতে বাধ্য করা হবে। বিএনপি মহাসচিব বলেন, আজকের শোভাযাত্রায় জনসমুদ্র প্রমাণ করেছে বিএনপি মুক্তিযুদ্ধের দল, স্বাধীনতার ঘোষকের দল। তাই স্বাধীনতা দিবসে আমাদের শপথ হোক- ‘সব ভেদাভেদ ভুলে ঐক্যবদ্ধ হয়ে আমরা দেশের গণতন্ত্র ও স্বাধীনতা রক্ষা করবো।’ স্বাধীনতা ও গণতন্ত্র রক্ষায় ঐক্যবদ্ধ আন্দোলনে ঝাঁপিয়ে পড়তে দেশবাসীর প্রতি আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, আজকের এ স্বাধীনতা দিবসের র‌্যালি থেকে আমরা এই শপথ নিতে চাই- সঠিকভাবে গণতন্ত্র চর্চার পথ উন্মুক্ত হোক। সব রাজবন্দির মুক্তি ও নির্দলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচনের দাবি আদায় না হওয়া পর্যন্ত আন্দোলন-সংগ্রামে মাঠে থাকবো। তিনি সরকারের সমালোচনা করে বলেন, প্রতিবেশী দেশ কাঁটাতারের বেড়া দিয়ে আমাদের সীমান্ত শৃঙ্খলিত করে রেখেছে। সীমান্তে প্রতিদিন নাগরিকদের হত্যা করা হচ্ছে। তারপরও সরকার ওই দেশটিকে করিডোরসহ বন্দর সুবিধা দিচ্ছে। বক্তব্যের শুরুতে দলের প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমানসহ মুক্তিযুদ্ধে আত্মত্যাগকারী শহীদের স্মৃতির প্রতি শ্রদ্ধা জানান তিনি। এদিকে স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে আয়োজিত বিএনপি’র এ র‌্যালিতে যেন মানুষের ঢল নামে। দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়কে কেন্দ্র করে ফকিরাপুল মোড় থেকে কাকরাইল মোড় পর্যন্ত রাস্তায় ছিল না তিল ধারনের ঠাঁই। শোভাযাত্রা শুরুর আগে বিকাল ৩টায়ই কাকরাইল থেকে ফকিরাপুল পর্যন্ত সড়কে বিএনপি নেতা-কর্মীদের ভিড়ে গাড়ি চলাচল প্রায় বন্ধ হয়ে যায়। অর্ধশতাধিক মোটর বাইকের একটি সুসজ্জিত বহর ছিল র‌্যালির সম্মুখভাগে। বাদক দলের সঙ্গে ছিল ঘোড়ার গাড়িও। নেতা-কর্মীদের হাতে ছিল সরকারের সমালোচনা করে লেখা নানা রঙের ব্যানার-ফেস্টুন এবং জাতীয় ও দলীয় পতাকা। অনেকের হাতে ছিল দলের প্রতিষ্ঠাতা শহীদ প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমান, খালেদা জিয়া ও তারেক রহমানের প্রতিকৃতি। ট্রাকে করে সংগীত পরিবেশন করেন জাসাসের শিল্পীরা। কর্মী-সমর্থকদের উদ্দীপ্ত করতে লাউড স্পিকারে বাজানো হয় সমসাময়িক রাজনৈতিক ঘটনাপ্রবাহ নিয়ে তৈরি গণসংগীত। বর্ণিল এ আয়োজনের ফলে অনেকটা গণমিছিলেরই আবহ নেয়। শোভাযাত্রার অগ্রভাগে কেন্দ্রীয় নেতাদের পর ছিল মহিলা দল ও ছাত্রদল। এরপর পর্যায়ক্রমে ছিল বিভিন্ন সহযোগী সংগঠন এবং বিএনপির ঢাকার বিভিন্ন ওয়ার্ড শাখার নেতা-কর্মীরা। বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রাটি কাকরাইল, শান্তিনগর, মালিবাগ, মৌচাক হয়ে মগবাজার চৌরাস্তায় গিয়ে শেষ হয়। বিএনপির কেন্দ্রীয় নেতাদের নেতৃত্বে বিকাল সাড়ে ৫টায় শোভাযাত্রার সম্মুখভাগ যখন মগবাজার মোড়ে পৌঁছায় তখন শেষ ভাগ ছিল মালিবাগ মোড়ে। মগবাজারে মোড়ে শান্তিপূর্ণ র‌্যালির আনুষ্ঠানিক সমাপ্তি ঘোষণা করেন নগর বিএনপি’র আহ্বায়ক সাদেক হোসেন খোকা। এদিকে বিএনপি’র স্বাধীনতা র‌্যালিকে কেন্দ্র করে পুরো রাস্তায় সতর্ক অবস্থানে ছিল পুলিশ। মগবাজার মোড়ে  ছিল জলকামান, পুলিশ ভ্যানসহ বিপুল সংখ্যক পুলিশ।
দেশব্যাপী বিএনপি’র বিক্ষোভ মিছিল আজ
বিরোধীদলীয় নেতাকর্মীদের ওপর সরকারের নিপীড়ন-নির্যাতন ও অগণতান্ত্রিক আচরণের  প্রতিবাদে সারাদেশে বিএনপি’র বিক্ষোভ সমাবেশ ও মিছিল আজ। ঢাকায় বিক্ষোভ সমাবেশ ও মিছিলটি আগামী ৩১শে মার্চ বিকালে নয়াপল্টনে অনুষ্ঠিত হবে। গতকাল এক বিবৃতিতে বিএনপি এবং এর অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের সকল পর্যায়ের নেতা-কর্মীসহ জনসাধারণকে বিক্ষোভ সমাবেশ ও মিছিলে অংশগ্রহণের জন্য দলের পক্ষ থেকে অনুরোধ জানানো হয়েছে। উল্লেখ্য, একই অভিযোগে ২৯শে মার্চ সারাদেশে সকাল-সন্ধ্যা হরতালের ডাক দিয়েছিল বিএনপি। ১২ই মার্চ ঢাকা মহাসমাবেশে বিরোধীদলীয় নেতা খালেদা জিয়া এ ডাক দেন। তবে এ দিন অষ্টমীর পুণ্যস্নান পর্ব থাকায় হিন্দু ধর্মাবলম্বী নেতারা খালেদা জিয়ার সঙ্গে সাক্ষাৎ করে হরতাল প্রত্যাহারের অনুরোধ জানান। পরে তিনি জোটের শরিকদের মতামত নিয়ে হরতালের পরিবর্তে সারাদেশে বিক্ষোভ সমাবেশ ও মিছিল কর্মসূচি ঘোষণা করেন।

Share this:
Share this page via Facebook Share this page via Twitter

LIKE US on FACEBOOK নিউজ সোর্স b24/মজ / ডেস্ট