Widgetized Section

Go to Admin » Appearance » Widgets » and move Gabfire Widget: Social into that MastheadOverlay zone

চীনের সঙ্গে যুদ্ধের জন্যই আসামে ভারতের পরমাণু ঘাটি: পরেশ

গৌহাটি, ২৬ মার্চ: চীনের সঙ্গে সম্ভাব্য যুদ্ধের প্রস্তুতি হিসেবে উত্তর-পূর্বের আসাম রাজ্যে ভারত গোপনে পরমাণু ক্ষেপণাস্ত্র ঘাঁটি তৈরি করেছে বলে সম্প্রতি এক বিবৃতিতে দাবি করেছে আসামের গেরিলা সংগঠন উলফা।

 

বিবৃতিতে উলফা জানায়, ভারত ইতিমধ্যেই ইন্দো-রাশিয়ান প্রযুক্তির ব্রহ্ম ক্রুজ ক্ষেপণাস্ত্র ঘাঁটি তৈরির জন্য নাগাল্যান্ডে এবং অক্ষ পরমাণু ক্ষেপণাস্ত্র ঘাঁটি তৈরির জন্য আসামে স্থান নির্ধারণ ও জরিপের কাজ সম্পন্ন করেছে।

 

টাইমস অফ আসামে উলফার সামরিক কমান্ডার পরেশ বড়ুয়ার পাঠানো এক বিবৃতিতে বলা হয়, ‘‘প্রায় এক শতক ধরে চীনের সঙ্গে রাজ্যটির কোনো বিরোধ না থাকলেও চীন ভারত দ্বন্দ্বের মাঝখানে পড়ে স্যান্ডউইচড হতে যাচ্ছে আসাম।’’

 

তিনি স্মরণ করিয়ে দেন, ১৯৬২ সালের ভারত-চীন যুদ্ধে ভারতের সৈন্যরা পালিয়ে গেলেও চীন আসামের ‍ওপর কোনো আঘাত হানেনি। এখন আবার যদি দুই দেশের মধ্যে যুদ্ধ বাধে তবে নিরাপত্তা রক্ষার ক্ষেত্রে তা আসামের জন্য খুবই দুর্ভাগ্যজনক হবে বলে জানান উলফা কমান্ডার। তিনি যুক্তি দিয়ে বলেন, ‘‘কেননা স্বাভাবিকভাবেই যুদ্ধে চীনের প্রধান লক্ষ্যবস্তু হবে আসামের পরমাণু ঘাটি যা দেশটিকে পুরোপুরি ধ্বংস করে দিতে পারে।’’

 

তিনি বলেন, ‘‘অরুণাচল প্রদেশ নিয়ে চীন ও ভারতের মধ্যে যুদ্ধ বাধার আশঙ্কা রয়েছে। কিন্তু ভারত সরকার ক্ষেপণাস্ত্র ঘাঁটি তৈরি করছে আসাম ভূখণ্ডে। যার ফলে হাজার হাজার নিরীহ মানুষকে মূল্য দিতে হবে।’’

 

উল্লেখ্য এর আগে আসামের জোড়পুকুর এলাকায় বিশাল জায়গাজুড়ে ভারতের ইস্টার্ন ফ্রন্টিয়ারের জন্য বিমানবাহিনীর ঘাঁটি তৈরিতেও ভারত সরকারকে বাধা দিয়েছিল উলফা।

 

ভারতের বিভিন্ন গোয়েন্দা সংস্থার প্রতিবেদন অনুসারে উলফাসহ উত্তর-পূর্ব ভারতের বিচ্ছিন্নবাদী সংগঠনগুলো চীনের সঙ্গে গভীর সম্পর্ক বজার রাখছে বলে অভিযোগ করা হলেও চীন বরাবরই এ বক্তব্য অস্বীকার করে আসছে।

 

Share this:
Share this page via Facebook Share this page via Twitter

LIKE US on FACEBOOK নিউজ সোর্স b24/মজ / ডেস্ট