Widgetized Section

Go to Admin » Appearance » Widgets » and move Gabfire Widget: Social into that MastheadOverlay zone

পাবনায় সাপ্তাহব্যাপী সুচিত্রা সেন চলচ্চিত্র সমাপনী উৎসব

তথ্য ও সংস্কৃতি মন্ত্রী আবুল কালাম আজাদ বলেছেন, উপমহাদেশের জীবন্ত কিংবদন্তী অভিনেত্রী সুচিত্রা সেনের বাড়ি পাবনায়। বাঙ্গালী হিসেবে ও তার জন্ম বাংলাদেশে এ জন্য আমরা গর্ববোধ করি। কিন্তু একটি মহল সেই সুচিত্রা সেনের পৈত্রিক বাড়িটি দখল করে রেখেছে তা অচিরেই দখল মুক্ত করা হবে। তিনি বলেন, সাধারণ মানুষ যেন ছেলে-মেয়ে নিয়ে সিনেমা হলে গিয়ে ছবি দেখতে পারে সে দিকে লক্ষ রেখেই বর্তমান সরকার সুস্থ চলচিত্র নির্মানের চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে।

তিনি গতকাল সোমবার রাত সাড়ে ৮টায় পাবনা শহরের বীর মুক্তিযোদ্ধা রফিকুল ইসলাম বকুল পৌর মুক্তমঞ্চে সাপ্তাহব্যাপী সূচীত্রা সেন ৩য় চলচিত্র উৎসবে সমাপনি অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে উপরোক্ত কথাগুলো বলেন।

সূচীত্রা সেন স্মৃতি সংরক্ষন পরিষদের সভাপতি ও পাবনা জেলা পরিষদের প্রশাসক এম সাইদুল হক চুন্নুর সভাপতিত্বে সমাপনি অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন পাবনা-৪ আসনের সাংসদ শামসুর রহমান শরীফ ডিলু ও বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ প্রফেসর নুরুন্নবী, পাবনার জেলা প্রশাসক মোস্তাফিজুর রহমান, পুলিশন সুপার জাহাঙ্গীর হোসেন মাতুব্বর । এছাড়াও বরেন্য অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন চলচ্চিত্রের জননন্দিত নায়িকা সুজাতা ও জননন্দিত চিত্রনায়ক আলমগীর। সম্মানিত অতিথী ছিলেন, চিত্র নায়িকা সিমলা ও নায়ক নিরব।

ধর্মান্ধ, মৌলবাদী গোষ্ঠী জামায়াতের দখল থেকে সুচিত্রা সেনের পৈত্রিক বাড়িটি মুক্ত করে সুচিত্রা সেন স্মৃতি সংগ্রহশালা এবং একটি ফিল্ম ইনিষ্টিটিউট গড়ে তোলার দাবী তোলেন পাবনাবাসী।

এর আগে গত ১০ জানুয়ারী সুচিত্রা সেন চলচ্চিত্র উৎসবের উদ্বোধন করেন চিত্রনায়ক ফারুক। উদ্বোধনী দিনে প্রধান অতিথি পাবনা জেলা প্রশাসক মোস্তাফিজুর রহমান, চলচ্চিত্র অভিনেতা প্রবীর মিত্র, অভিনেত্রী রেজিনা ও ইউনিভার্সাল গ্রুপের জেনারেল ম্যানেজার অচিন্ত কুমার ঘোষ।
সমাপনি অনুষ্ঠানে সূচীত্রা সেন স্মৃতি সংরক্ষন পরিষদের সাধারন সম্পাদক ডাঃ রাম দুলাল ভৌমিক বক্তব্যে বলেন, উপমহাদেশের জীবন্ত কিংবদন্তী অভিনেত্রী সুচিত্রা সেনের বাড়িটি দখলমুক্ত করা এখন পাবনাবাসীর প্রাণের দাবিতে পরিনত হয়েছে। আর এ দাবীকে সামনে রেখেই গত দুই বছরের ধারাবাহিকতায় এবার ৩য় বারের মতো এই উৎসবের আয়োজন করা হয়েছিল এই চলচ্ছিত্র উৎসবের। সাপ্তাহব্যাপী এই উৎসবে সুচিত্রা সেন অভিনিত পাঁচ টিসহ সাতটি ছবি প্রদর্শন করা হয়। এগুলো হচ্ছে, সাড়ে ৭৪, আধি, গৃহদাহ, গেরিলা, সানফ্লাওয়ার, হসপিটাল, ও একটি রাত ছবি। এবারই প্রথম এ উৎসবে মুক্তিযুদ্ধ ভিত্তিক পুরস্কার প্রাপ্ত গেরিলা ও বিশ্ব বিখ্যাত অপর সানফ্লাওয়ার ছবিটি প্রদর্শন করা হয়।

উল্লে¬খ্য উপমহাদেশের জীবন্ত কিংবদন্তী অভিনেত্রী সুচিত্রা সেন তার বাবা মা, এক ভাই ও তিন বোনকে সাথে নিয়ে শৈশব কৈশর কেটেছে পাবনা শহরের গোপালপুর মহল্লার হেমসাগর লেনের বাড়িতে। পাবনা বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের নবম শ্রেনীতে পড়া কালীন সময়ে ১৯৪৬ সালের ১৫ আগষ্ট পূর্ব পাকিস্তানের রাজনৈতিক অস্থিরতার কারনে স্বপরিবারে ওপার বাংলায় পাড়ি দেয়। সে সময় জেলা প্রশাসন উর্দ্বতন সরকারী কর্মকর্তাদের আবাসনের জন্য বাড়িটি রিক্যুইজিশন করেন। পরে ১৯৮৭ সালে তৎকালীন জেলা প্রশাসক সাইদুর রহমানের সহযোগিতায় সুকৌশলে জামায়াতে ইসলামী বাংলাদেশ পাবনা শাখার লোক জন অর্পিত সম্পত্তিতে পরিনত করে লীজ নিয়ে ইমাম গাজ্জালী ইনিষ্টিটিউট প্রতিষ্ঠা করেন।

-খাইরুল ইসলাম বাসিদ, পাবনা-

Share this:
Share this page via Facebook Share this page via Twitter

LIKE US on FACEBOOK নিউজ সোর্স b24/মজ / ডেস্ট


3 Responses to পাবনায় সাপ্তাহব্যাপী সুচিত্রা সেন চলচ্চিত্র সমাপনী উৎসব

  1. sikiş izle

    March 13, 2012 at 12:03 pm

    Greetings thanks for fantastic submit i was seeking for this issue final 2 nights. I’ll look for upcoming valuable posts. Have pleasurable admin.

  2. amcik

    March 14, 2012 at 7:34 am

    Hello admin beneficial submit considerably thanks liked this web site actually a lot

  3. smackdown oyunları

    March 14, 2012 at 3:30 pm

    I used to be searching for this excellent sharing admin considerably thanks and have nice running a blog bye