Widgetized Section

Go to Admin » Appearance » Widgets » and move Gabfire Widget: Social into that MastheadOverlay zone

আইএসআই’র কাছ থেকে টাকা নেয়া দল সম্পর্কে সতর্ক থাকতে হবে: প্রধানমন্ত্রী (Video)


সিলেট, ২৪ মার্চ: প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা রাজনৈতিক প্রতিপক্ষের বিরুদ্ধে ব্যবহারে পাকিস্তানের গোয়েন্দা সংস্থা আইএসআই’র কাছ থেকে টাকা গ্রহণকারী রাজনৈতিক দল সম্পর্কে সতর্ক থাকতে দেশবাসীর প্রতি পুনরায় আহ্বান জানিয়েছেন।

তিনি শনিবার বিকেলে এখানে স্থানীয় সরকারি আলিয়া মাদ্রাসা মাঠে আয়োজিত এক ১৪ দল সমাবেশে ভাষণদানকালেও এ আহ্বান জানান।

শেখ হাসিনা বলেন, “যারা নির্বাচনে হারিয়ে দেয়ার জন্য পরাজিত শক্তির কাছ থেকে টাকা নিতে পারে, তারা জনগণের কোন কল্যাণ করতে পারে না।”

শেখ হাসিনা বলেন, “পরাজিত শক্তির কাছ থেকে অর্থ নেয়া জাতির জন্য লজ্জা।” সমাবেশে অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আব্দুল মুহিত, রেলমন্ত্রী সুরঞ্জিত সেনগুপ্ত, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী সাহারা খাতুন, এলজিআরডি এবং সমবায় মন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম, শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ, ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতি রাশেদ খান মেনন এবং জাসদ সভাপতি হাসানুল হক ইনু বক্তব্য রাখেন। সিলেট সিটি মেয়র এবং ১৪ দলের সমন্বয়কারী বদরুদ্দিন আহমেদ কামরান সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন।

সমাবেশে আরো বক্তব্য রাখেন, আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মেজবা উদ্দিন সিরাজ, ন্যাশনাল আওয়ামী পার্টির সাধারণ সম্পাদক এনামুল হক ও ডা. মোস্তফা জালাল মহিউদ্দিন এমপি।

প্রধানমন্ত্রী যুদ্ধাপরাধীদের বিচার সম্পন্ন করতে দৃঢ়প্রত্যয় ব্যক্ত করে বলেন, “দেশের বুদ্ধিজীবীদের এবং ত্রিশ লাখ মানুষ হত্যার জন্য দায়ী ঘাতকদের বিচার কেউ বন্ধ করতে পারবে না।”

তিনি বলেন, “তারা বঙ্গবন্ধুর খুনিদের বিচারও বন্ধ করতে পারেনি এবং তারা এখন যুদ্ধাপরাধীদের বিচারও বন্ধ করতে পারবে না।”

প্রধানমন্ত্রী বলেন, “অন্য কোনো রাজনৈতিক দল নয়, কেবল আওয়ামী লীগই দেশের স্বার্থ রক্ষা করতে পারে। আওয়ামী লীগ যখনই ক্ষমতায় এসেছে, তখনই দেশের জন্য সুনাম বয়ে এনেছে, আর বিএনপি ক্ষমতায় থাকলে দুর্নাম বয়ে আনে।”

তিনি বলেন, “আওয়ামী লীগ প্রতিবেশী রাষ্ট্র ভারত ও মিয়ানমারের সঙ্গে অনেক সমস্যার শান্তিপূর্ণ সমাধান করেছে। আমরা বন্ধুত্বের মনোভাব নিয়ে অন্যান্য সমস্যা সমাধানেরও প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি।”

শেখ হাসিনা বলেন, “টিপাইমুখ বাঁধের বিরূপ প্রভাব নিরুপনের জন্য যৌথ সমীক্ষা দলে আমাদের বিশেষজ্ঞদের সম্পৃক্ত করার জন্য আমরা ভারতের প্রতি আহ্বান জানিয়েছি।”

মিয়ানমারের সাথে সমুদ্র জলসীমা নিয়ে বিরোধ মীমাংসার কথা উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, “২০১৪ সালে জাতিসংঘের মাধ্যমে ভারতের সাথে আমাদের জলসীমার বিরোধও একইভাবে নিষ্পত্তি ঘটবে।”

শেখ হাসিনা বলেন, “পরবর্তী সাধারণ নির্বাচনে জনগণের ভোটে আওয়ামী লীগ পুনরায় ক্ষমতায় আসলে সমুদ্রসীমা এবং মহাদেশীয় মহীসোপানের বাংলাদেশের ন্যায্য হিস্যা আদায়ে প্রয়োজনীয় সকল পদক্ষেপ নেয়া হবে।”

তিনি বলেন, “বিএনপি জাতিকে দুর্নীতি, সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদ ছাড়া আর কিছুই দিতে পারেনি। তাদের উদ্দেশ্যই ছিল সরকারি অর্থ আত্মসাৎ এবং এই অর্থ বিদেশে পাচার করা। এমনকি তাদের অর্থমন্ত্রীও কালো টাকা সাদা বানিয়েছেন। সিঙ্গাপুর, কানাডা ও যুক্তরাষ্ট্রের গোয়েন্দারা তাদের অবৈধভাবে পাঠানো টাকা আটক করেছে। এতেও তাদের লজ্জা নেই, তারা এখনও বড় গলায় কথা বলে।”

প্রধানমন্ত্রী বলেন, “বিএনপি দেশকে সন্ত্রাসীদের অভয়াশ্রমে পরিণত করেছিল, আর আমরা দেশকে সেই দুর্নাম থেকে উদ্ধার করেছি।” তিনি সাবেক অর্থমন্ত্রী শাহ এমএস কিবরিয়া এবং সুরঞ্জিত সেনগুপ্ত ও সিলেটের মেয়র বদরুদ্দিন কামরানের ওপর বোমা হামলার কথা উল্লেখ করেন।

ওই সব হামলা বিএনপির সিনিয়র নেতাদের মদদপুষ্ট সন্ত্রাসীদের দ্বারা হয়েছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, “আওয়ামী লীগ সরকার ক্ষমতায় আসার পর সিলেটের মানুষ শান্তিতে বাস করছে।”

শেখ হাসিনা বলেন, “আওয়ামী লীগ সরকার দারিদ্র নির্মূলের মাধ্যমে বাংলাদেশকে বিশ্বে মর্যাদাবান দেশ হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করতে চায়, যাতে দেশের মানুষ শান্তি ও সমৃদ্ধিতে বসবাস করতে পারে।”

সিলেট বিভাগের উন্নয়ন কর্মকাণ্ডের উল্লেখ করে তিনি বলেন, “সিলেটে একটি বিশেষ অর্থনৈতিক জোন গড়ে তুলতে বিশেষ পদক্ষেপ গ্রহণ করা হয়েছে।”

‘আমরা সিলেট ওসমানী আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর নির্মাণ করেছি’ উল্লেখ করে তিনি বলেন, “আওয়ামী লীগ সরকার ক্ষমতায় আসার পর ঢাকা-সিলেট ও সিলেট-তামাবিল সড়ক মেরামত করা হয়েছে এবং কাজীর বাজার সেতু নির্মাণ করা হয়েছে।”

সিলেটে একটি কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠার কথা উল্লেখ করে তিনি বলেন, “আওয়ামী লীগ সরকার আগামীবার ক্ষমতায় এলে এখানকার প্রকৌশল ও মেডিকেল কলেজকে বিশ্ববিদ্যালয়ে পরিণত করা হবে”। সূত্র: বাসস

বার্তা২৪/এসএফ

Share this:
Share this page via Facebook Share this page via Twitter

LIKE US on FACEBOOK নিউজ সোর্স b24/মজ / ডেস্ট