Widgetized Section

Go to Admin » Appearance » Widgets » and move Gabfire Widget: Social into that MastheadOverlay zone

৯ উইকেট হারিয়ে বিপর্যয়ে পাকিস্তান, আফ্রিদিও আউট

ঢাকা, ২২ মার্চ: টসে হেরে ব্যাট করতে নামা পাকিস্তানকে শুরু থেকেই চেপে ধরেছে টাইগাররা। ১৯৮ রান তুলতেই আট উইকেট হারিয়ে বিপর্যয়ে পাকিস্তান। ইতোমধ্যে ৪৬ ওভার খেলা শেষ হয়েছে। রান তোলার গড় ৪.৪৮।

 

পাকিস্তানের শেষ ভরসা আফ্রিদিও নেই। বিদায় নিয়েছেন তিনি। ২২ বলে ৩২ রান করা আফ্রিদিকে বিদায় করে দেন সাকিব আল হাসান। ৪৬ ওভার শেষে পাকিস্তানের সংগ্রহ ২০৬/৯।

 

ক্রিজে রয়েছেন সরফরাজ আহমেদ ২৫ এবং সাঈদ আজমল ১ রান নিয়ে।

 

এরপর আঘাত হানেন মাশরাফি। ১৯৮ রানে উমর গুল মাশরাফির বলে সাকিব আল হাসানের ক্যাচে পরিণত হলে অষ্টম উইকেটের পতন ঘটে পাকিস্তানের।

 

১৭৮ রানে আফ্রিদিকে সাজঘরে ফেরত পাঠান সাকিব। সাকিবের বলে নাসির হোসনের তালুবন্দী হন আফ্রিদি। ২২ বলে চারটি চার ও একটি ছক্কার সাহায্যে ৩২ রান করেন আফ্রিদি।

 

১৩৩ রানে বাংলাদেশের সহ-অধিনায়ক মাহামুদুল্লাহ রিয়াদ উমর আকমলকে উইকেটকিপার মুশফিকুর রহিমের ক্যাচে পরিণত করলে ষষ্ঠ উইকেটের পতন ঘটে পাকিস্তানের। উমর আকমল ৪৫ বলে একটি ছক্কার সাহায্যে ৩০ রান করেন।

 

পঞ্চম উইকেট জুটিতে হাম্মাদ আজম ও উমর আকমল ৫৯ রানের জুটি গড়ে প্রাথমিক বিপর্যয় সামাল দেয়ার চেষ্টা করেন। ১২৯ রানের মাথায় সাকিবের বলে উড়িয়ে মারতে গেলে হাম্মাদ আজম বল আকাশে তুলেন। তা লুফে নেন বোলার সাকিব আল হাসান। সেই সাথে পঞ্চম উইকেট হারায় পাকিস্তান। হাম্মাদ ৩৭ বলে তিনটি চার ও একটি ছক্কার সাহায্যে ৩০ রান করেন।

 

৭০ রানে মিড অনে নাজমুল হোসেন অসাধারণ ক্যাচ নিলে সাজঘরে ফেরেন ওপেনার মোহাম্মদ হাফিজ। বোলার আবদুর রাজ্জাক। সেই সাথে চতুর্থ উইকেটের পতন ঘটে পাকিস্তানের। হাফিজ ৮৭ বলে চারটি চারের সাহায্যে ৪০ রান করেন।

 

দলীয় ৫৩ রানের মাথায় অধিনায়ক মিসবাহ-উল-হক নাসির হোসেনের সরাসরি থ্রোতে রান আউট হলে তৃতীয় উইকেটের পতন ঘটে পাকিস্তানের। মিসবাহ আউট হন অপয়া ১৩-তে। ২৩ বলে একটি চারের সাহায্যে ওই রান করেন মিসবাহ।

 

১৬ রানে প্রথম উইকেট পতনের পর ক্রিজে আসেন অভিজ্ঞ ইউনুস খান। ইউনুস খানকে বেশিক্ষণ ক্রিজে থাকতে দেননি স্বাগতিক বোলার নাজমুল হোসেন। নাজমুল হোসেন তার করা তৃতীয় ওভারের দ্বিতীয় বলে এলবিডব্লিউ’র ফাঁদে ফেলে ইউনুস খানকে। ইউনুস ৫ বল মোকাবেলায় মাত্র ১ রান করেন। ইউনুস খান যখন আউট হন দলীয় রান তখন ২৯।

 

পাকিস্তান শিবিরে প্রথম আঘাতটি হানেন নড়াইল এক্সপ্রেসখ্যাত মাশরাফি বিন মর্তুজা। মাশরাফি তার করা দ্বিতীয় ওভারের দ্বিতীয় বলে ফিরিয়ে দেন পাকিস্তানের ওপেনার নাসির জামশেদকে। মাশরাফির করা ওই বলটি নাসির জামশেদ অফসাইডে খেলার চেষ্টা করেছিলেন কিন্তু বল ওঠে যায় কাভার অঞ্চলে। সেখানে ছিলেন বাংলাদেশের সহ-অধিনায়ক মাহামুদুল্লাহ রিয়াদ। মাহামুদুল্লাহ সে বলটি লুফে নেয়ায় সাজঘরে ফেরেন নাসির জামশেদ। সেই সাথে উল্লাসে ফেটে পড়ে পুরো মিরপুর স্টেডিয়াম। ৮ বলে দুটি চারের সাহায্যে ৯ রান করেন জামশেদ।

 

বাংলাদেশের বোলারদের মধ্যে মাশরাফি, নাজমুল, রাজ্জাক, শাহাদাত এবং মাহামুদুল্লাহ প্রত্যেকে একটি করে উইকেট শিকার করেন।

 

বার্তা২৪ /এমএকে

Share this:
Share this page via Facebook Share this page via Twitter

LIKE US on FACEBOOK নিউজ সোর্স b24/মজ / ডেস্ট