Widgetized Section

Go to Admin » Appearance » Widgets » and move Gabfire Widget: Social into that MastheadOverlay zone

এশিয়া কাপে জমজমাট পাক-ভারত লড়াই কাল


ঢাকা, ১৭ মার্চ: রাত পেরোলেই কাল মাঠে গড়াবে এশিয়ার দুই ক্রিকেট পরাশক্তি পাক-ভারতের ম্যাচ। ১১তম এই এশিয়া কাপে পাকিস্তান দুই ম্যাচে জিতে আগেই ফাইনাল নিশ্চিত করে রেখেছে। আর ভারত-বাংলাদেশের ম্যাচের আগে হিসাব ছিল ভারত জিতলে ফাইনালে যাবে এবং ভারতের দুই ম্যাচে জয় নিয়ে ফাইনাল নিশ্চিত। শ্রীলঙ্কাতো দুই ম্যাচে হেরে বসে আছে।

কিন্তু সব হিসাব পাল্টে দিয়েছে বাংলাদেশ ভারতের বিপক্ষে ৫ উইকেটে জয় তুলে। এশিয়া কাপের ফাইনালের আগেই পাক-ভারত লড়াইটা হিসাব অনুয়ায়ী সম্মানের ছিল। এখন আর তা নয়। কালকের ম্যাচে পাকিস্তানের জন্য সম্মানের, তবে ভারতের জন্য জয় পেতেই হবে- এমন একটা ম্যাচ। কারণ কাল পাকিস্তান জিতে গেলে ভারতের সম্ভাবনা প্রায় শেষ পর্যায়ে চলে যাবে। আর যদি ভারত জিতেও যায় তাহলেও বাংলাদেশ-শ্রীলঙ্কার ম্যাচের দিকে তাকিয়ে থাকতে হবে।

ধরেই নেয়া যে ভারত কাল জিতে গেছে, তাহলে হিসাব দাঁড়াবে বাংলাদেশ এক ম্যাচ কম খেলে পয়েন্ট ১টি জয় আর ১টি হার অপর দিকে ৩ ম্যাচ খেলে ভারতের দুই ম্যাচে জয় আর এক ম্যাচে হার। সেক্ষেত্রে বাংলাদেশকে শেষ ম্যাচে জয় পেতেই হবে।

তারপরও যত সমীকরণই সামনে আসুক পাক-ভারতের লড়াইয়ের আমেজটাই আলাদা। আর সেটা যদি হয় শ্রেষ্ঠত্বের লড়াই এশিয়া কাপে, তাহলে তো কথাই নেই! তবে দুই দলের পরিসংখ্যানটি কিন্তু পাকদের পক্ষেই কথা বলছে। ১২১ বারের ময়দানী লড়াইয়ে পাকিস্তান জয়ী হয়েছে ৬৯ বার আর ভারত ৪৭ বার এবং ৪টি ম্যাচে কোনো ফলাফল হয়নি।

অন্যদিকে এশিয়া কাপের এ যাবত কালে পাক-ভারতের ১৩টি ম্যাচেও ভারত পিছিয়ে আছে। ৪ বার জয় পেয়েছে ভারত, ১টি ম্যাচে ফলাফল হয়নি। বাকিগুলোতে পাকিস্তান জিতেছে। নিকটবর্তী ২০১১ সালের বিশ্বকাপের সেমিতে ভারতের কাছে পাকিস্তান হেরেছে। আর এশিয়া কাপের ১০টি আসরে ৫টি ভারত, ৪টি শ্রীলঙ্কা আর ১টি পাকিস্তান ঘরে তুলেছে (ঢাকায় ২০০০)।

এই এশিয়া কাপ খেলে মাত্র চারটি দল। বাংলাদেশ, পাকিস্তান, ভারত ও শ্রীলংকাই নিয়মিত চারটি দল। তাও আবার সবগুলোই দক্ষিণ এশিয়ার। এ পর্যন্ত অনুষ্ঠিত হওয়া দশটি আসরে এই চার দল ছাড়া বাড়তি দুটি দল খেলেছে এশিয়া কাপ। হংকং ও সংযুক্ত আরব আমিরাত যথাক্রমে ২ বার ও ৪ বার করে এশিয়া কাপে অংশ নিয়েছিল। ১৯৮৪ সালের প্রথম এশিয়া কাপে অবশ্য বাংলাদেশ ছিল না। খেলেছিল আরব আমিরাত। প্রথম আসরের পর টানা ৯টি আসরই খেলেছে বাংলাদেশ। এবার নিয়ে তৃতীয়বার এশিয়া কাপ বাংলাদেশ আয়োজন করছে। আর এই আসরে পাক-ভারত ম্যাচে টেনশন কাটিয়ে যে দল মাথা ঠান্ডা রেখে খেলতে পারে সে দলই জয় নিয়ে মাঠ ছেড়েছে।

পাকিস্তান-ভারত ম্যাচের উত্তেজনা, আবহ কোনো কিছুই বর্ণনা করে বোঝানোর উপায় নেই। ক্রিকেট বিশ্বের এই দুই দলের ম্যাচ সবসময়ই ভিন্ন উচ্চতায় বিবেচিত হয়ে থাকে। কিন্তু নানা কারণে উত্তাল উত্তেজনার এই ক্রিকেট দ্বৈরথ।

সাম্প্রতিক সময়ে এশিয়া কাপ হয়ে গেছে এখন পাক-ভারত ক্রিকেট যুদ্ধ দেখার একমাত্র আশ্রয়। কাল ১৮ মার্চ মিরপুর শের-ই-বাংলা স্টেডিয়ামে মুখোমুখি হবে পাকিস্তান ও ভারত। তাই পাক-ভারত লড়াই এশিয়া কাপের অলংকার বললে হয়তো ভুল বলা হবে না।

বার্তা২৪ ডটনেট/জিসা

Share this:
Share this page via Facebook Share this page via Twitter

LIKE US on FACEBOOK নিউজ সোর্স b24/মজ / ডেস্ট