Widgetized Section

Go to Admin » Appearance » Widgets » and move Gabfire Widget: Social into that MastheadOverlay zone

১২ই মার্চের চেয়ে কঠিন কর্মসূচির হুমকি বিএনপির

আগামী ১০ই জুনের মধ্যে সংসদে তত্ত্বাবধায়ক সরকার পদ্ধতি পুনঃপ্রবর্তন বিল পাস করার দাবি জানিয়েছেন বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। অন্যথায় ১২ই মার্চের মহাসমাবেশের চেয়ে কঠিন কর্মসূচির হুঁশিয়ারি দেন তিনি। দলের প্রয়াত মহাসচিব খোন্দকার দেলোয়ার হোসেনের প্রথম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে গতকাল রাজধানীর ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশনে বিএনপি আয়োজিত স্মরণসভায় তিনি এই হুঁশিয়ারি দেন। মির্জা আলমগীর বলেন, বিরোধী নেতা বেগম খালেদা জিয়া সরকারকে ৯০ দিনের সময় দিয়েছেন। জাতীয় ঐক্যের ডাক দিয়েছেন। কারণ, দেশের বৃহত্তর স্বার্থে আর কোন অনৈক্য নয়, বিভেদ নয়। তিনি বলেন, ‘এ সময়ের মধ্যে দাবি পূরণ না হলে ১২ই মার্চ কি দেখেছেন। ১০ই জুনের পর আবার দেখবেন জনগণের শক্তি কেমন।’ বিএনপি কখনও পেছনের দরজা দিয়ে ক্ষমতায় যায়নি দাবি করে বিএনপি মহাসচিব বলেন, কোনদিন কারও টাকায় বিএনপি রাজনীতি করে না। এ ধরনের মিথ্যাচার করে জনগণকে বিভ্রান্ত করবেন না। কারণ, প্রধানমন্ত্রীর কাছ থেকে মানুষ গঠনমূলক বক্তব্য আশা করে। ভাল কথা শোনার জন্য তার দিকে চেয়ে থাকে। কিন্তু তিনি এমন ঘৃণাভরা ভাষায় কথা বলেন, যা শুনে দেশের মানুষ হতাশ ও নতুন প্রজন্ম অবাক হয়। স্বৈরাচার বিরোধী আন্দোলনের প্রসঙ্গ টেনে মির্জা আলমগীর বলেন, সেদিন গণতন্ত্রের মানসকন্যারা গোটা জাতির সঙ্গে বিশ্বাসঘাতকতা করেছেন। কিন্তু আপসহীন নেত্রী খালেদা জিয়া ৯ বছর রাজপথে সংগ্রামে লড়ে গেছেন। ওয়ান ইলেভেন-পরবর্তী পরিস্থিতিতে খোন্দকার দেলোয়ার হোসেন নতুন ইতিহাস সৃষ্টি করেছেন মন্তব্য করে বিএনপি মহাসচিব বলেন, দেশের সবচেয়ে কঠিন সময় দায়িত্ব পালন করায় তার নাম ইতিহাসের পাতায় স্বর্ণাক্ষরে লেখা থাকবে। স্বাধীনতা গনতন্ত্র ও মানুষের অধিকার আদায়ের জন্য খোন্দকার দেলোয়ার যে লড়াই করেছেন, সে লড়াইয়ের শেষ হয়নি। দ্বিতীয় অধ্যায় শুরু হয়েছে। এ অধ্যায়ে গণতন্ত্রের বিরুদ্ধে আজ আরও ভয়ঙ্কর ষড়যন্ত্র শুরু হয়েছে। আমাদের অধিকার স্বাধীনতা আজ কেড়ে নেয়া হচ্ছে। তাই দেশের জন্য যাদের হৃদয় কাঁদে তাদের শক্ত হয়ে দাঁড়াতে হবে। বিএনপি স্থায়ী কমিটির সদস্য এম কে আনোয়ার বলেন, বহু নির্যাতন নিপীড়নকে উপেক্ষা করে খোন্দকার দেলোয়ার বহুদলীয় গণতন্ত্রের প্রবক্তা শহীদ জিয়ার আদর্শকে সমুন্নত রাখার চেষ্টা করেছেন। ভয়ভীতির মুখেও আদর্শচ্যুত হননি। তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী যত কথাই বলুন না কেন, তত্ত্বাবধায়ক সরকার ব্যবস্থা চালু হলেই দেশে নির্বাচন হবে। অন্যথায় নয়। বিরোধী দলীয় চিফ হুইপ জয়নুল আবদীন ফারুকের পরিচালনায় স্মরণসভায় বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা শামসুজ্জামান দুদু, ঢাকা মহানগর বিএনপির সদস্য আবদুস সালাম, ছাত্রবিষয়ক সম্পাদক শহীদ উদ্দিন চৌধুরী এ্যানী এমপি, শ্রমিকদলের সাধারণ সম্পাদক জাফরুল হাসান, স্বেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি হাবিব-উন নবী খান সোহেল ও খোন্দকার দেলোয়ার কন্যা ডা. দেলোয়ারা পান্না প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।

Share this:
Share this page via Facebook Share this page via Twitter

LIKE US on FACEBOOK নিউজ সোর্স b24/মজ / ডেস্ট