Widgetized Section

Go to Admin » Appearance » Widgets » and move Gabfire Widget: Social into that MastheadOverlay zone

সিলেটে ১৪ দলকে নিয়ে অর্থমন্ত্রী বৈঠক, ডাক পায়নি জাতীয় পার্টি

সিলেট অফিস: প্রধানমন্ত্রীর সফরকে সামনে রেখে সিলেটে ১৪ দলের বৈঠক করলেও ডাক পড়েনি জাতীয় পার্টির। এ নিয়ে সিলেটের আওয়ামী লীগ নেতারা জাতীয় পার্টির সঙ্গে কোন যোগাযোগ করছেন না। এ নিয়ে ক্ষোভ বিরাজ করছে সিলেটের জাতীয় পার্টির নেতাকর্মীদের মধ্যে। তবে দলের শীর্ষ কয়েকজন নেতা গতকাল জানিয়েছেন, আওয়ামী লীগ ডাকলে সিলেটের জাতীয় পার্টির নেতারা তাদের সঙ্গে বৈঠকে বসবে না। যুদ্ধাপরাধ ইস্যু নিয়ে দুই মাস আগে সিলেটে মহাজোটের যৌথ বৈঠক আহ্বান করা হয়েছিল। সেখানে সিলেটের আওয়ামী লীগ নেতারা জাতীয় পার্টিকে উপস্থিত থাকার আমন্ত্রণ জানিয়েছিলেন। ওই বৈঠকে জাতীয় পার্টি গেলেও আওয়ামী লীগের কর্মসূচিতে পরবর্তীতে অংশ নেয়নি। এর কারণ হিসেবে জানা গেছে, তৃণমূল নেতাদের চাপের কারণে শেষ মূহূর্তে আওয়ামী লীগের সঙ্গে শরিক হয়ে কর্মসূচি পালন করতে পারেনি জাতীয় পার্টি। তৃণমূল নেতাদের দাবি, তারা ক্ষমতার শরিক হয়েও বর্তমানে বিরোধী দলে আছেন। তাদের সঙ্গে এরকমই আচরণ করছে আওয়ামী লীগ। এ ব্যাপারে জাতীয় পার্টির কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক আবদুল্লাহ সিদ্দিকী মানবজমিনকে জানিয়েছেন, আওয়ামী লীগের সঙ্গে সিলেটের জাতীয় পার্টির ভাল সম্পর্ক নেই। এর কারণ আওয়ামী লীগ নির্বাচনের আগে জাতীয় পার্টির নেতাদের সঙ্গে আচরণ করেছে এক রকম আর ক্ষমতায় যাওয়ার পর করেছে আরেক রকমের। এ কারণে সিলেটের আওয়ামী লীগের নেতাদের সঙ্গে জাতীয় পার্টির নেতাদের সেই সুসম্পর্ক নেই। আগামীতেও তা জোড়া না লাগার সম্ভাবনাই বেশি। এদিকে, প্রধানমন্ত্রীর সফরকে সামনে রেখে গতকাল সিলেট সার্কিট হাউসে ১৪ দলের বৈঠক হয়েছে। জাতীয় পার্টি ছাড়া বৈঠকেও ১৪ দলের নেতারা আওয়ামী লীগের উপর ক্ষোভ কম ঝাড়েননি। গতকালের সিলেটে ছিল অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিতের প্রথম বৈঠক। নির্বাচনের পর এটাই তার ১৪ দলের সঙ্গে আনুষ্ঠানিক প্রথম বৈঠক। বৈঠকে জাসদ নেতা জাকির  হোসেন বলেন, যুদ্ধাপরাধীদের বিচারের প্রশ্নে আমরা ১৪ দলের সঙ্গে আছি। তবে শেখ হাসিনার সিলেট সফর নিয়ে সমাবেশ সফল করতে হলে আওয়ামী লীগের নেতাদের দ্বিধা-দ্বন্দ্ব ভুলে কাজ করতে হবে। তিনি সিলেটের আলিয়া মাদ্রাসা মাঠে প্রায় ৪ মাস আগের বেগম খালেদা জিয়ার সমাবেশ থেকে বেশি লোক সমাগম ঘটাতে তিনি কাজ করার আহ্বান জানান। তবে সাম্যবাদী দলসহ আরও কয়েক দলের নেতারা আওয়ামী লীগের সঙ্গে সবসময় থাকার অঙ্গীকার করলেও ক্ষোভ ঝাড়েন অনেকেই। তবে তাদের কথার জবাবে মেয়র বদর উদ্দিন আহমদ কামরান বলেন, নেত্রীর এই সফর এবার হবে সিলেটের জন্য মাইলফলক। তিনি এ জন্য সকল নেতাকর্মীকে দ্বিধাদ্বন্দ্ব ভুলে একত্রে কাজ করার আহ্বান জানান। আওয়মী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক এডভোকেট মিসবাহ উদ্দিন সিরাজ বলেন, যুদ্ধাপরাধীদের বিরুদ্ধে সবাইকে একযোগে মাঠে নামতে হবে। এর কারণ সিলেটে যুদ্ধাপরাধীদের দোসররা একের পর এক বোমা হামলা চালিয়েছিল। বৈঠকে অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত বলেছেন, মহাজোট সরকার তার নির্বাচনী প্রতিশ্রুতি করতে কাজ করে যাচ্ছে। মন্ত্রী বলেন, মহাজোটের অন্যতম নির্বাচনী অঙ্গীকার ছিল বঙ্গবন্ধুর খুনিদের বিচার। এটি ইতিমধ্যে সম্পন্ন হয়েছে। এছাড়া, মহাজোট সরকার তার নির্বাচনী প্রতিশ্রুতি অনুযায়ী যুদ্ধাপরাধীদের বিচার শুরু করেছে, যা আগামী দু’ বছরের মধ্যেই নিষ্পত্তি হবে। সিলেট জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আব্দুজ জহির চৌধুরী সুফিয়ানের সভাপতিত্বে সভায় আগামী ২৪শে মার্চ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সিলেট সফর সফলে সিলেট ১৪ দলের নেতাকর্মীদের সহযোগিতা কামনা করা হয়। বৈঠকে জেলা সাধারণ সম্পাদক শফিকুর রহমান চৌধুরী ও মহানগরের সাধারণ সম্পাদক আসাদ উদ্দিন আহমদ বক্তব্য রাখেন।

Share this:
Share this page via Facebook Share this page via Twitter

LIKE US on FACEBOOK নিউজ সোর্স b24/মজ / ডেস্ট