Widgetized Section

Go to Admin » Appearance » Widgets » and move Gabfire Widget: Social into that MastheadOverlay zone

চালু হলো বিকল্প বিরোধ নিষ্পত্তি আদালত


ঢাকা, ১৪ মার্চ: দেশে প্রথমবারের মত বিকল্প বিরোধ নিষ্পত্তি (এডিআর) কার্যক্রম চালু করলো জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর)।

বুধবার দুপুরে রাজধানীর সোনারগাঁও হোটেলে এর উদ্বোধন করেন আইনমন্ত্রী ব্যারিস্টার শফিক আহমেদ। প্রাথমিক অবস্থায় এনবিআরের বৃহৎ করদাতা ইউনিট (এলটিইউ), কর অঞ্চল – ১ ও ঢাকা দক্ষিণ কমিশনারেটে এ কার্যক্রম চালু হবে। এসব অঞ্চলের আয়কর ও মূল্য সংযোজন করদাতারা এ বিকল্প বিরোধ নিষ্পত্তির সুযোগ নিতে পারবেন।

এডিআর হচ্ছে আদালতের বাইরে গিয়ে এনবিআর ও করদাতাদের মধ্যকার বিদ্যমান বিরোধ নিষ্পত্তির একটি পদ্ধতি। এই পদ্ধতিতে একজন নিরপেক্ষ ফ্যাসিলিটেটর (মধ্যস্থতাকারী) উভয় পক্ষের সাক্ষ্য প্রমাণের ভিত্তিতে রায় দিবেন। উভয় পক্ষ এই রায় মানলে বিরোধটি নিষ্পত্তির পর্যায়ে যাবে। আর কোনো এক পক্ষের আপত্তি থাকলে তিনি বিষয়টি নিয়ে চাইলে আদালতের দ্বারস্থ হতে পারবেন। ফ্যাসিলিটেটরের রায় মানতে হবে এমন কোনো বাধ্যবাধকতা নেই।

এই পদ্ধতির সুবিধা হলো, স্বল্প সময়ের মধ্যে বিরোধ নিষ্পত্তি করা। গতানুগতিক পদ্ধতিতে কোনো বিরোধ দেখা দিলে আদালতের মাধ্যমে তার নিষ্পত্তি হয়। এতে এক একটি মামলা নিষ্পত্তি করতে বছরের পর বছর সময় লেগে যায়।

এনবিআর সূত্রে জানা গেছে, এধরনের প্রায় ১৬ হাজার মামলা বর্তমানে আদালতে বিচারাধীন রয়েছে। এ কারণে প্রায় ১৩ হাজার কোটি টাকা আটকে রয়েছে বলে সম্প্রতি এক অনুষ্ঠানে এনবিআর চেয়ারম্যান ড. নাসির উদ্দিন আহমেদ সাংবাদিকদের জানিয়েছেন।

এনবিআর সূত্র জানিয়েছে, এ কার্যক্রম চালু হলে এনবিআরের আটকে থাকা এসব অর্থের বেশিরভাগ শিগগিরই এনবিআরের হাতে আসবে। একই সাথে মামলা জটও কমবে।

বিরোধ নিষ্পত্তিতে সহায়তার জন্য ১৩ জন ফ্যাসিলিটেটরকে চূড়ান্ত করা হয়েছে। এনবিআর ও ব্যবসায়ীদের শীর্ষ সংগঠন এফবিসিসিআই এই তালিকা চূড়ান্ত করেছে। ফ্যাসিলিটেটরদের মধ্যে ব্যবসায়ী ও এনবিআরের সাবেক কর্মকর্তা রয়েছেন। তারা এ দায়িত্বের জন্য নির্দিষ্ট হারে সম্মানী পাবেন। এনবিআর ও করদাতা সমানভাবে এ অর্থ পরিশোধ করবেন।

ফ্যাসিলিটেটররা হচ্ছেন সাবেক তত্ত্বাবধায়ক সরকারের উপদেষ্টা সৈয়দ মনজুর এলাহী, বেগম রোকেয়া আফজাল রহমান ও তপন চৌধুরী, ইন্টারন্যাশনাল চেম্বার অব কমার্সের (বাংলাদেশ) সভাপতি মাহবুবুর রহমান, এনবিআরের সাবেক সদস্য মো. আব্দুল লতিফ সিকদার, আলী আহমেদ, মোহাম্মদ শাহাবুদ্দীন, মুহাম্মদ দেলোয়ার হোসেন, মেট্রোপলিটন চেম্বারের (এমসিসিআই) সাবেক সভাপতি আনিস-উদ দৌলা, এমসিসিআইয়ের সহ-সভাপতি ব্যারিস্টার নিহাদ কবির, এফবিসিসিআইয়ের আয়কর বিষয়ক সাব-কমিটির আহবায়ক মো. হুমায়ুন কবির, এনবিআরের সাবেক কমিশনার মো. হুমায়ূন কবির ভূঁইয়া ও আয়কর আপীলাত ট্রাইব্যুনালের সাবেক সদস্য মো. তারিক হায়দার।

বার্তা২৪/ওআর/জিসা

Share this:
Share this page via Facebook Share this page via Twitter

LIKE US on FACEBOOK নিউজ সোর্স b24/মজ / ডেস্ট