Widgetized Section

Go to Admin » Appearance » Widgets » and move Gabfire Widget: Social into that MastheadOverlay zone

ট্রাইব্যুনালের এক বিচারপতির আবারও দ্বিমত

স্টাফ রিপোর্টার: ট্রাইব্যুনালের জ্যেষ্ঠ দুই সদস্যের সঙ্গে আবারও দ্বিমত পোষণ করলেন কনিষ্ঠজন। সালাহউদ্দিন কাদের চৌধুরীর একটি আবেদনের আদেশে এই ঘটনা ঘটেছে। পূর্বনির্ধারিত তারিখ অনুযায়ী গতকাল যে বিষয়ে আদেশ দেয়ার দিন ধার্য ছিল না, আসামির অনুপস্থিতিতে সে বিষয়ে আদেশ দেয়ায় ট্রাইব্যুনালের জ্যেষ্ঠ দুই সদস্যের সঙ্গে কনিষ্ঠ বিচারপতি একেএম জহির আহমেদের এই দ্বিমত পোষণ। এর আগে সোমবার গোলাম আযমের মামলায়ও তিনি দ্বিমত পোষণ করেছিলেন। গত ৫ই মার্চ সালাহউদ্দিন কাদের চৌধুরীর কয়েকটি আবেদনের ওপর শুনানি হয়। এ আবেদনগুলো হলো- ট্রাইব্যুনালের কার্যক্রমে দালাল আইন যুক্ত করা, আসামিকে তার বিরুদ্ধে তদন্ত প্রতিবেদনের কপি সরবরাহ, ট্রাইব্যুনালের কার্যক্রমে আন্তর্জাতিক আইনের প্রয়োগ, আসামির জামিন, কাশিমপুর-২ কারাগার থেকে আসামিকে বদলি এবং আসামির বিরুদ্ধে দালাল আইনে চলমান মামলাগুলো এই ট্রাইব্যুনাল থেকে বাদ দেয়া। শুনানি শেষে আদেশ দেয়ার দিন ধার্য করা হয়। ওই দিন আদেশে বলা হয়, সালাহউদ্দিন কাদের চৌধুরীর বিরুদ্ধে দালাল আইনে চলমান মামলাগুলো ট্রাইব্যুনাল থেকে বাদ দেয়ার আবেদন ছাড়া বাকি আবেদনগুলোর ওপর ১৩ই মার্চ আদেশ দেয়া হবে। সেদিন আসামিকে ট্রাইব্যুনালে হাজির করতে হবে না। সে হিসেবে সালাহউদ্দিন কাদেরকে ট্রাইব্যুনালে হাজির করা হয়নি। সকালে বিচারপতি নিজামুল হকের নেতৃত্বে তিন সদস্যের আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল আসন গ্রহণ করে। ট্রাইব্যুনালের চেয়ারম্যান বিচারপতি নিজামুল হক লিখিতভাবে আদেশ দেয়া শুরু করেন। সব ক’টি আবেদনই খারিজ করা হয়। মামলা বাদ দেয়ার আদেশের সময় আসামির আইনজীবী ফখরুল ইসলাম বলেন, এ বিষয়ে তো আজ আদেশ দেয়ার তারিখ ছিল না। আপনি সেদিন বলেছিলেন, এটি ছাড়া বাকিগুলোর ওপরে আদেশ দেয়া হবে। তাছাড়া, আসামি সালাহউদ্দিন কাদেরও আজ ট্রাইব্যুনালে উপস্থিত নেই। জবাবে ট্রাইব্যুনালের চেয়ারম্যান আদেশ দেয়ার কথা জানান। আদেশে এ আবেদনটিও খারিজ করা হয় এবং আগামী ২০শে মার্চ অভিযোগ গঠনের বিষয়ে আদেশ দেয়া হবে বলে উল্লেখ করা হয়। একই সঙ্গে সালাহউদ্দিন কাদেরের আবেদনগুলোকে উদ্দেশ্যপ্রণোদিত ও বিচার কার্যক্রম বিলম্বিত করার চেষ্টা হিসেবেও মন্তব্য করা হয়। ট্রাইব্যুনাল চেয়ারম্যানের আদেশ দেয়ার পরে কনিষ্ঠ বিচারপতি একেএম জহির আহমেদ বলেন, ট্রাইব্যুনালের চেয়ারম্যানের প্রতি যথাযথ সম্মান রেখেই এ আদেশের সঙ্গে আমি দ্বিমত পোষণ করছি। কারণ আজ এ বিষয়ে আদেশ দেয়ার দিন ধার্য ছিল না। তাছাড়া, আসামিও উপস্থিত নেই। নিয়মানুযায়ী এ ধরনের একটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয়ে আসামির উপস্থিতিতে আদেশ দেয়া প্রয়োজন। অভিযুক্তের সামনে আদেশ দেয়াটা তার অধিকার। তার জানা উচিত কেন তার আবেদন খারিজ করা হলো। তাই আমি ট্রাইব্যুনালের সিনিয়র দুই সদস্যের সঙ্গে দ্বিমত পোষণ করছি। ট্রাইব্যুনালের আদেশের পরে সালাহউদ্দিন কাদের চৌধুরীর আইনজীবী ব্যারিস্টার ফখরুল ইসলাম সাংবাদিকদের বলেন, যে বিষয়ে আদেশ দেয়ার কথা ছিল না সে বিষয়েও আজ আদেশ দেয়া হয়েছে। বিচার বিলম্বিত করার জন্যই আবেদন করা হয়েছে- ট্রাইব্যুনালের এমন মন্তব্যের জবাবে তিনি বলেন, শ্রদ্ধার সঙ্গে আমি ট্রাইব্যুনাল চেয়ারম্যানের এ মন্তব্য প্রত্যাখ্যান করছি। আরও কঠিন করে বলছি, ট্রাইব্যুনালে তার এ ধরনের মন্তব্য করা উচিত হয়নি।
গোলাম আযমের মামলার শুনানি পেছালো: জামায়াতের সাবেক আমীর অধ্যাপক গোলাম আযমের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠনের শুনানি আগামী ১৯শে মার্চ পর্যন্ত মুলতবি করা হয়েছে। আসামিপক্ষের সময় আবেদনের প্রেক্ষিতে আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল এ আদেশ দেয়। গোলাম আযমের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন না করার পক্ষে ওই দিন যুক্তি উপস্থাপন করবেন তার আইনজীবীরা। আসামি পক্ষের আইনজীবী তাজুল ইসলাম বলেন, আসামির প্রধান আইনজীবী আবদুর রাজ্জাক প্রস্তুতি এখনও শেষ করতে পারেন নি। তাই আমাদের আরও সময় প্রয়োজন। পরে ট্রাইব্যুনাল সময় বাড়িয়ে দেয়। ট্রাইব্যুনাল চেয়ারম্যান বলেন, এরপর আর সময় বাড়ানোর আবেদন বিবেচনা  করা হবে না। গত ১১ই জানুয়ারি গ্রেপ্তার হয়ে অধ্যাপক গোলাম আযম হাসপাতালের প্রিজন সেলে রয়েছেন।
আবদুল কাদের মোল্লার মামলার শুনানি আজ: জামায়াতের সহকারী সেক্রেটারি জেনারেল আবদুল কাদের মোল্লার মামলার কার্যক্রম আজ পর্যন্ত মুলতবি করা হয়েছে। শুনানিতে প্রসিকিউটর মোহাম্মদ আলী তথ্য দেন, আসামি আলবদরের নেতা ছিলেন। এসময় ট্রাইব্যুনালের দ্বিতীয় জ্যেষ্ঠ বিচারপতি এটিএম ফজলে কবির বলেন, আবদুল কাদের মোল্লা ১৯৭১ সালে আলবদরের নেতা ছিলেন-এমন তথ্যের উৎস কি? কোথায় পেয়েছেন এমন কথা? আপনার বক্তব্যের পক্ষে প্রমাণ কি? এসময় প্রসিকিউটর বলেন, আছে, মাই লর্ড। পরে তিনি জব্দ তালিকা থেকে ২০০৭ সালের একটি পত্রিকার কাটিং উপস্থাপন করেন। ট্রাইব্যুনাল বলে, শুধু এই একটিই। আর কোন তথ্য আছে? তাছাড়া, ওই পত্রিকার সংবাদের সোর্স কি? পত্রিকার সংবাদের পক্ষে ডকুমেন্ট কোথায়? এসময় প্রসিকিউটর এর পক্ষে আরও ডকুমেন্টস খোঁজেন। পরে বলেন, মাই লর্ড। এখন খুঁজে পাচ্ছি না। পরে দেখাতে পারবো। এরপর ট্রাইব্যুনালের কার্যক্রম মুলতবি করা হয়।
নিজামীর বিরুদ্ধে অভিযোগ উত্থাপন শুরু: জামায়াতের আমীর মাওলানা মতিউর রহমান নিজামীর বিরুদ্ধে মানবতাবিরোধী অপরাধের অভিযোগ উত্থাপন শুরু হয়েছে। ট্রাইব্যুনাল প্রসিকিউটর আলতাফ উদ্দিন আহমেদ অভিযোগ উত্থাপন শুরু করেন। ৭২ পৃষ্ঠা অভিযোগপত্রের মধ্যে ২৩ পৃষ্ঠা পড়া শেষ হয়েছে। এ মামলার কার্যক্রম আজ পর্যন্ত মুলতবি করা হয়েছে।

Share this:
Share this page via Facebook Share this page via Twitter

LIKE US on FACEBOOK নিউজ সোর্স b24/মজ / ডেস্ট