Widgetized Section

Go to Admin » Appearance » Widgets » and move Gabfire Widget: Social into that MastheadOverlay zone

রাজধানীতে হরতালের আমেজ

ঢাকা, ১১ মার্চ: সোমবার বিএনপির নেতৃত্বাধীন চারদলীয় জোটের মহাসমাবেশকে ঘিরে রোববার রাজধানীতে হরতালের আমেজ লক্ষ্য করা গেছে। কথিত নাশকতা ঠেকাতে নিরাপত্তা বাহিনী যে হারে জনদুর্ভোগ বাড়িয়েছে, তা নগর জুড়ে ভয়াবহ হরতালের আমেজ সৃষ্টি করেছে। বিশেষত রাজধানীবাসী যেভাবে সারাদেশ থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে অবর্ণনীয় দুর্ভোগের শিকার হচ্ছেন, তা নগরবাসীকে হরতালের কথাই মনে করিয়ে দিচ্ছে।

এদিকে জানা গেছে, দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে ঢাকায় আসতে বিএনপি-জামায়াতের রিজার্ভ করা গাড়িগুলোও প্রশাসন আটকে দিয়েছে।

এই কর্মসূচিতে বিশাল জনসমাগমের কথা থাকলেও একদিকে সেটি কিছুটা ব্যাহত হচ্ছে, অন্যদিকে এর প্রভাবে প্রতিদিনের যানজটের রাজধানী বেশ খানিকটা ফাঁকা হয়ে গেছে। শনিবার রাত থেকেই গ্রেফতার আতঙ্কে রাস্তায় সাধারণদের বিচরণ উল্লেখযোগ্য হারে কমেছে।

তবে নয়া পল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে দলের নেতা-কর্মীদের ভিড় জমেছে সকাল থেকেই। অবশ্য পুরো পল্টন এলাকায় চারটি চেক পোস্টে তল্লাশি চালাচ্ছে পুলিশসহ অন্যান্য আইন শৃঙ্খলাবাহিনীর সদস্যরা।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, রাজধানীর আবাসিক হোটেলগুলোতেও পরিচিতজন ছাড়া কাউকে সিটভাড়া দেয়া হচ্ছে না। রোববার রাতে রাজনৈতিক নেতাকর্মী ছাড়াও ব্যক্তিগত কাজে ঢাকায় আসা লোকজন হোটেলে উঠতে গিয়ে বিড়ম্বনার শিকার হন। এদের মধ্যে যারা কোনোভাবে পরিচয় দিয়ে হোটেল কর্তৃপক্ষকে ম্যানেজ করতে পেরেছেন তারা ঠাঁই পেয়েছেন। বাকিরা শেষ পর্যন্ত বিভিন্ন আত্নীয় স্বজনের বাসা-বাড়িকে ওঠে রাত কাটিয়েছেন।

বিএনপির এই কর্মসূচিকে ঘিরে বড় ধরনের নাশকতার আশঙ্কা করছে সরকার।

সরকারী দলের শীর্ষ নেতারা বলছেন, সোমবার বিএনপির কর্মসূচির সুযোগ নিয়ে জামায়াত-শিবিরের নেতারাও বড় ধরনের কিছু করতে পারে।

এজন্য আইন-শৃঙ্খলাবাহিনীর কঠোর অবস্থান রাজধানীকে নিরাপত্তার চাদরে আবৃত করেছে। সবখানে সাধারণ পথচারী থেকে শুরু করে সব ধরনের গাড়ি অত্যন্ত সতর্কতার সঙ্গে চেক করা হচ্ছে। যাকে সন্দেহ তাকেই গ্রেফতার করছে পুলিশ।

সবমিলিয়ে এখন রাজধানীতে পিনপতন নিরবতায় হরতালের আমেজ সৃষ্টি হয়েছে।

‘চলো চলো ঢাকা চলো’ নামে সোমবার রাজধানীর নয়াপল্টনে মহাসমাবেশের আয়োজন করেছে বিএনপি নেতৃত্বাধীন চারদলীয় জোট। রাত সাড়ে আটটায় গুলশানে বিএনপি চেয়ারপারসনের রাজনৈতিক কার্যালয়ে সম্প্রসারিত নতুন জোটের ঘোষণাপত্রে স্বাক্ষর করবেন ছোট-বড় ১৬টি দলের প্রধান। আনুষ্ঠানিকভাবে সমাবেশে এ ঘোষণাপত্র পাঠ করা হবে। আর এর মাধ্যমেই চারদলীয় ঐক্যজোট সম্প্রসারিত হয়ে ১৬ দলীয় জোটের নতুন ভিত তৈরি হবে।

বার্তা২৪/কেএমআর/জিসা

Share this:
Share this page via Facebook Share this page via Twitter

LIKE US on FACEBOOK নিউজ সোর্স b24/মজ / ডেস্ট