Widgetized Section

Go to Admin » Appearance » Widgets » and move Gabfire Widget: Social into that MastheadOverlay zone

সবার ঐকান্তিক চেষ্টা ছাড়া নির্ভুল ভোটার তালিকা অসম্ভব: সিইসি

সাভার ১০ মার্চ: প্রধান নির্বাচন কমিশনার কাজী রকিব উদ্দিন আহমদ বলেছেন, “সকলের ঐকান্তিক প্রচেষ্টা ছাড়া নির্ভুল ভোটার তালিকা প্রনয়ন করা সম্ভব নয়।”

শনিবার বেলা ১১টায় সাভার বিশ্ববিদ্যালয় কলেজ মাঠ প্রাঙ্গনে ভোটার তালিকা হালনাগাদকরণের লক্ষে তথ্য সংগ্রহ কার্যক্রমের উদ্ধোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

তিনি বলেন, ‘‘চারটি পর্যায়ে এ কাজ প্রনয়ন করা হবে। গত ভোটার তালিকা প্রনয়নের ক্ষেত্রে ভোটারের ছবির কিছুটা সমস্যা হয়েছিল। এবার স্বচ্ছ ছবি তোলার জন্য ডিজিটাল ক্যামেরার পাশাপাশি সফটওয়্যারেরও উন্নয়ন ঘটনো হয়েছে।’’

আগে ভোটার তালিকা হালনাগাদের পর অনেক আইডি কার্ডই নির্বাচন কমিশন কার্যালয়ে রয়ে গেছে জানিয়ে তিনি নতুন ভোটার তালিকা হালনাগাদের সময় সেই সকল কার্ডগুলোর স্ব স্ব ব্যক্তির কাছে হস্তান্তরের জন্য মাঠ কর্মীদের পরামর্শ দেন।

নির্বাচন কমিশন সচিব ড. মোহাম্মদ সাদিকের সভাপতিত্বে এসময় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন নির্বাচন কমিশনার মোহম্মদ আবু হাফিজ, মোহাম্মদ আবদুল মোবারক, ব্রিগেডিয়ার জেনারেল (অব.) মোহাম্মদ জাবেদ আলী এবং মোহাম্মদ
শাহনেওয়াজ।

প্রধান নির্বাচন কমিশনার পরে সাভার বিশ্ববিদ্যালয় কলেজ সংলগ্ন দুটি ভোটার তালিকা হালনাগাদ কেন্দ্র পরিদর্শন করে মাঠ কর্মীদের কার্যক্রম পর্যবেক্ষণ করেন।

এসময় আরো বক্তব্য দেন ঢাকা-১৯সাভারের সংসদ সদস্য তালুকদার মোহাম্মদ তৌহিদ জং মুরাদ। এছাড়াও নির্বাচন কমিশনের অতিরিক্ত সচিব সিরাজুল ইসলাম, হালনাগাদকরণ প্রকল্প পরিচালক ও জাতীয় নিবন্ধন অনুবিভাগের মহা-পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল (অব.) আখতারুজ্জামান সিদ্দিকী, ঢাকা বিভাগীয় কমিশনার মঈন উদ্দিন আব্দুল্লাহ, ঢাকা জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মোহাম্মদ শাহআলম, ঢাকা জেলা প্রশাসক মহিবুল হক প্রমূখসহ স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ এসময় উপস্থিত ছিলেন।

প্রথম পর্যায়ের প্রথম ধাপে চলতি বছরের ১০মার্চ থেকে ২০মার্চ পর্যন্ত ৬৪টি উপজেলা/থানার তথ্য সংগ্রহ এবং ২১ মার্চ থেকে ২৬মে পর্যন্ত ভোটারদের রেজিস্ট্রেশন কেন্দ্রে নিবন্ধন করা হবে।

দ্বিতীয় ধাপে এর আওতায় আসবে ৭৬টি উপজেলা। এর কার্যক্রম চলবে এপ্রিলের ২য় সপ্তাহ থেকে তয় সপ্তাহ পর্যন্ত। দ্বিতীয় পর্যায়ে ১’শ ৪০টি উপজেলা,থানায় তথ্য সংগ্রহ করা হবে ১৭ মে থেকে ২৬ মে পর্যন্ত। রেজিস্ট্রেশন কেন্দ্রে নিবন্ধন করা হবে ২৯ মে থেকে ১আগস্ট পর্যন্ত।

তৃতীয় পর্যায়ে ১’শ ৪০টি উপজেলায় ২১জুলাই থেকে ৩১জুলাই পর্যন্ত তথ্য সংগ্রহ এবং ৪ আগস্ট থেকে ১৪ অক্টোবর পর্যন্ত রেজিস্ট্রেশন কেন্দ্রে নিবন্ধন করতে হবে এবং চতুর্থ পর্যায়ে ৯২টি উপজেলায় তথ্য সংগ্রহ হবে ৪ অক্টোবর থেকে ১৩ অক্টোবর এবং রেজিস্ট্রেশন কেন্দ্রে নিবন্ধনের সময় হবে ১৭ অক্টোবর থেকে ২৪ ডিসেম্বর পর্যন্ত। এ কার্যক্রমে মোট রেজিস্ট্রেশন কেন্দ্র থাকবে ৫হাজার ১’শ ১৫টি। মোট ভোটার সংখ্যা ৮কোটি ৬৪লক্ষ ১০হাজার ৩’শ ৫৬।

হালনাগাদে অর্ন্তভূক্ত নতুন সম্ভাব্য ভোটার সংখ্যা ৭০লাখ। তথ্য সংগ্রহকারী থাকবে ৫৭হাজার ৬’শ ৭জন। সুপারভাইজারের দায়িত্বে থাকবে ১১হাজার ৫’শ ২১জন। মোট রেজিস্ট্রেশন টীম থাকবে ১’শ ৬২টি। এছাড়াও মোট টেকনিক্যাল এক্সপার্ট/সাপোর্ট থাকবে ২’শ ৩০জন।

বার্তা২৪/আজা/জিসা

Share this:
Share this page via Facebook Share this page via Twitter

LIKE US on FACEBOOK নিউজ সোর্স b24/মজ / ডেস্ট