Widgetized Section

Go to Admin » Appearance » Widgets » and move Gabfire Widget: Social into that MastheadOverlay zone

মোবাইল অ্যাপ্লিকেশন্স ডেভেলপারদের জন্য নকিয়ার কর্মশালা

ঢাকা, ৭ মার্চ: বাংলাদেশের শীর্ষ মোবাইল ব্র্যান্ড নকিয়া সম্প্রতি বাংলাদেশের প্রতিশ্রুতিশীল অ্যাপ্লিকেশন্স ও গেমস ডেভেলপারদের জন্য দুই দিনব্যাপী এক কর্মশালার আয়োজন করে। দেশের বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয় থেকে সম্ভাবনাময়  তরুণ শিক্ষার্থী ‘নকিয়া ডেভেলপার ডে’ শীর্ষক এই কর্মশালায় অংশ নেন। কর্মশালাটিতে মোবাইল অ্যাপ্লিকেশন্স ছাড়াও মোবাইল গেমিং প্রডাকশন্স বিষয়ে একটি আলাদা অধিবেশনের আয়োজন করা হয়।

 

আয়োজকরা বলেন, ‘‘বর্তমান জীবনযাত্রায় মোবাইল অ্যাপ্লিকেশন্স একটি শিল্প হয়ে উঠেছে। কারণ এটি মানুষের মধ্যে মূল্যবোধ জাগ্রত করার পাশাপাশি জ্ঞান ও তথ্যের চাহিদা তৈরি এবং তা পরস্পরের সঙ্গে বিনিময় করার সুযোগ এনে দিয়েছে। আমাদের ক্ষুদ্র মোবাইল ডিভাইস বা হ্যান্ডসেট ব্যবহারকারীরা যেমন বরিশালে বসে আবহাওয়ার পূর্বাভাস জানতে পারেন তেমনি যশোরে বসবাসকারী কোনো এসএসসি পরীক্ষার্থীও তার পরীক্ষার ফলাফল পেতে পারেন। ঠিক একইভাবে ময়মনসিংহে অবস্থান করেও কোনো কোনো ক্ষুদ্র বিনিয়োগকারী এক মুহূর্তেই শেয়ারের দামের ওঠানামার তথ্য জানতে পারেন। এসব সম্ভব হয়েছে গ্রাহকদের চাহিদার কথা বিবেচনায় নিয়ে মোবাইল ফোনে প্রয়োজনীয় অ্যাপিস্নকেশন সুবিধা যোগ করে দেয়ায়।’’

 

তারা বলেন, ‘‘মোবাইল অ্যাপ্লিকেশন্সের ব্যবহার বাড়ানো বা তা জনপ্রিয় করে তোলার ক্ষেত্রে নকিয়া নেতৃত্ব দিয়ে আসছে। এর মাধ্যমে ইন্টারনেটের বিস্ময়কর জগতে সংযোগ-সম্পর্কের দৃঢ় সেতুবন্ধন স্থাপনের ক্ষেত্রে জনগণের ক্ষমতা বেড়েছে। এজন্য নকিয়ার স্টোরে রয়েছে হাজার হাজার অ্যাপ্লিশেন। যেখান থেকে গ্রাহকেরা বিনামূল্যে নিজেদের চাহিদা ও প্রয়োজন অনুযায়ী যত খুশি তত অ্যাপ্লিকেশন ডাউনলোড করে নিতে পারেন। প্রতি মাসে প্রায় ৩ মিলিয়ন বা ৩০ লাখ অ্যাপ্লিকেশন ডাউনলোড হয়ে থাকে। এরমধ্যে নকিয়া বাংলাদেশ রয়েছে শীর্ষ ২০ দেশের তালিকায়।’’

 

তারা বলেন, ‘‘এভাবেই নকিয়া ডিজিটাল প্রযুক্তিনির্ভর জীবনযাপন পদ্ধতিকে সামনের দিকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার ক্ষেত্রে নেতৃত্ব দিয়ে চলেছে।’’

 

নকিয়া কর্মকর্তারা দাবি করেন, ‘‘অর্থের হিসাবে মোবাইল অ্যাপ্লিকেশন মার্কেটের মোট মূল্যমান চলতি ২০১২ সালের শেষ নাগাদ এক হাজার ৬৫০ কোটি মার্কিন ডলারে দাঁড়াবে। সে অনুযায়ী বিশ্বে মোবাইল অ্যাপ্লিকেশন বাজারজাতকরণের ব্যাপক গুরুত্ব ও সম্ভাবনা রয়েছে বলা যায়। যা কাজে লাগিয়ে বাংলাদেশীরাও বিপুল পরিমাণ বিদেশি মুদ্রা উপার্জন করতে পারেন। বদৌলতে এদেশে এটি একটি বুটিক ইন্ডাস্ট্রিতে পরিণত হতে পারে, যা হাজার মানুষের কর্মসংস্থানের সুযোগ তৈরি করবে। এজন্যই নকিয়া বাংলাদেশ এই মোবাইল অ্যাপ্লিকেশন্স ডেভেলপারদের জন্য নকিয়া ডেভেলপার ডে’র আয়োজন করেছে।’’

 

তারা আরো বলেন, ‘‘আমাদের তরুণ অ্যাপ্লিকেশন ডেভেলপারদের সম্ভাবনাময় অ্যাপ্লিকেশন শিল্পের বিকাশ, ভবিষ্যত ও সুযোগ কাজে লাগানোর বিষয়ে আরও প্রশিক্ষিত করে তোলার লক্ষ্যেই নকিয়া এই কর্মশালার আয়োজন করে।’’

 

নকিয়া ইকোসিস্টেম অ্যান্ড ডেভেলপার এক্সপেরিয়েন্সের (ইডিএক্স) সদস্যরা এই কর্মশালা পরিচালনা করেন। তাদের মধ্যে ছিলেন ইডিএক্স থাইল্যান্ড ও এমার্জিং এশিয়ার প্রধান জ্যানজার্ডস্যাক জিরাপ্যাট, ডেভেলপারস রিলেশন ম্যানেজার বূনপ্যাটিপ এগকারাচ, সিনিয়র টেকনোলজি এক্সপার্ট টাই ভ্যালেরি এবং ইডিএক্স টেকনিক্যাল ম্যানেজার কৃষ্ণমূর্তি মানি।

 

বার্তা২৪/জিসা

Share this:
Share this page via Facebook Share this page via Twitter

LIKE US on FACEBOOK নিউজ সোর্স b24/মজ / ডেস্ট