Widgetized Section

Go to Admin » Appearance » Widgets » and move Gabfire Widget: Social into that MastheadOverlay zone

ক্ষতিগ্রস্ত ক্ষুদ্র বিনিয়োগকারীদের ঋণ মওকুফের আদেশ জারি

ঢাকা, ৫ মার্চ: পুঁজিবাজেরে ক্ষতিগ্রস্ত ক্ষুদ্র বিনিয়োগকারীদের ঋণের ৫০ ভাগ সুদ মওকুফের আদেশ জারি করেছে সরকার। সোমবার অর্থমন্ত্রণালয় থেকে এ সংক্রান্ত এক প্রজ্ঞাপন জারি করা হয়। আদেশ জারির পর থেকেই এ সিদ্ধান্ত কার্যকর হবে বলে উল্লেখ করা হয় প্রজ্ঞাপনে।

রোববার সচিবালয়ে পুঁজিবাজার সংশ্লিষ্টদের সঙ্গে বৈঠকের পর অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আব্দুল মুহিত সাংবাদিকদের জানিয়েছিলেন, মার্চেন্ট ব্যাংক, ব্রোকারেজ হাউজসহ সংশ্লিষ্ট ঋণদানকারী প্রতিষ্ঠান ক্ষতিগ্রস্ত হিসাবগুলোতে এক বছর সময়ে অর্জিত সুদের শতকরা ৫০ ভাগ মওকুফ করতে পারবে। তবে মওকুফের পরিমাণ কোনো অবস্থাতেই নিরুপিত মূলধনী ক্ষতির পরিমাণ থেকে বেশি না হয়।

এছাড়া মিউচ্যুয়াল ফান্ড ও প্রবাসী বাংলাদেশীদের নির্ধারিত কোটার ন্যায় মার্জিন ঋণ অ্যাকাউন্ট ও নন মার্জিন ঋণ অ্যাকাউন্ট উভয় ক্ষেত্রে ক্ষতিগ্রস্ত ক্ষুদ্র বিনিয়োগকারীদের চলতি ২০১২ ও আগামী ২০১৩ সালে ইস্যুকৃত সব পাবলিক ইস্যুতে ২০ শতাংশ কোটা পাবে। এ সিদ্ধান্ত অবিলম্বে কার্যকর করার কথাও উল্লেখ করেন অর্থমন্ত্রী। এর এক দিনের মাথায় সিদ্ধান্ত বাস্তবায়নে আদেশ জারি করা হলো।

পুঁজিবাজোরে ক্ষতিগ্রস্ত ক্ষুদ্র বিনিয়োগে নেয়া অন্যান্য সিদ্ধান্তগুলো হলো, ক্ষতিগ্রস্তরা মওকুফ অবশিষ্ট সুদ (যদি থাকে) একটি সুদবিহীন ব্লক অ্যাকাউন্টে স্থানান্তর করে তিন বছরে ত্রৈমাসিক সমান কিস্তিতে পরিশোধ করার সুযোগ পাবে।

মার্জিন অ্যাকাউন্টে গত ৩০ নভেম্বর পর্যন্ত ডেবিট ব্যালেন্স থেকে সুদ বাদ দেয়ার পর অবশিষ্ট অর্থ ভিন্ন অ্যাকাউন্টে স্থানান্তর করে ১০ শতাংশ হারে তিন বছরে ত্রৈমাসিক কিস্তিতে পরিশোধ করতে পারবে। পুনঃ তফশিল সুবিধা দেয়ার ক্ষেত্রে সংশ্লিষ্ট ঋণদানকারী প্রতিষ্ঠান দাতা-গ্রাহক সম্পর্কের ভিত্তিতে কেস টু কেস বিবেচনার ব্যবস্থা নেবে।

নতুন মার্জিন ঋণ দেয়ার ক্ষেত্রে ভিন্ন অ্যাকাউন্ট’র অর্থ বিবেচনায় না নিয়ে প্রচলিত নিয়মে ঋণদানকারী প্রতিষ্ঠান ক্ষতিগ্রস্ত হিসেবে নতুনভাবে মার্জিন ঋণ দিয়ে শেয়ার কেনা-বেচার সুযোগ দেবে।

ক্ষতিগ্রস্ত হিসেবে যথার্থতা নিরূপনে ঋণদানকারী প্রতিষ্ঠান, মার্চেন্ট ব্যাংক, ব্রোকারেজ হাউজ’র পরিচালনা পর্ষদ’র নির্ধারিত ছকে ক্ষতির পরিমাণ সম্পর্কে প্রত্যায়ন করবে।

মিউচ্যুয়াল ফান্ড বিনিয়োগ ঝুঁকি কম হওয়ায় ক্ষুদ্র বিনিয়োগকারীরা যাতে সেখানে বিনিয়োগ করে সে জন্য মিউচ্যুয়াল ফান্ডকে আকর্ষণীয় করার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।

প্রসঙ্গত, ২০১০ সালের শেষ দিক থেকে পুঁজিবাজারে অস্থিরতা শুরু হয়। দফায় দফায় দর পতন দেখা দেয় পুঁজিবাজারে। সর্বশেষ চলতি মাসের প্রথম সপ্তাহ পর্যন্ত এক বছর দুই মাসে তিন দফায় প্রায় ৬০ শতাংশ দরপতন হয়।

পুঁজিবাজারে ক্ষুদ্র বিনিয়োগকারীরা ক্ষতিগ্রস্ত হলে আন্দোলনে নামে ব্যবসায়ীরা। গত ১৬ নভেম্বর পুঁজিবাজার সংশ্লিষ্টদের নিয়ে বৈঠক করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। বাজার স্থিতিশীল করার পাশাপাশি ক্ষুদ্র বিনিয়োগকারীদের ক্ষতি পুষিয়ে দেয়ারও নির্দেশ দেন তিনি।

এরপর সরকারের ইনভেস্টমেন্ট কর্পোরেশন অব বাংলাদেশ-আইসিবি ব্যবস্থাপনা পরিচালক মো. ফায়েকুজ্জামানকে প্রধান করে একটি কমিটি গঠন করা হয়।

কমিটি ক্ষুদ্র বিনিয়োগকারীদের ক্ষতি পোষাতে প্রণোদনার প্রস্তাব উপস্থান করেন। কমিটির এ সুপারিশের আলোকে রোববার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। সর্বশেষ ওই সিদ্ধান্তের আলোকে সরকারি আদেশ জারি করা হলো।

বার্তা২৪ ডটনেট/এসএমএ/জবা

Share this:
Share this page via Facebook Share this page via Twitter

LIKE US on FACEBOOK নিউজ সোর্স b24/মজ / ডেস্ট


2 Responses to ক্ষতিগ্রস্ত ক্ষুদ্র বিনিয়োগকারীদের ঋণ মওকুফের আদেশ জারি

  1. sikiş izle

    March 13, 2012 at 11:07 am

    Hello admin great publish significantly thanks beloved this website actually significantly

  2. smackdown oyunları

    March 14, 2012 at 3:24 pm

    Excellent submit admin! i bookmarked your web weblog. i’ll look ahead in case you could have an e-mail record including.