Widgetized Section

Go to Admin » Appearance » Widgets » and move Gabfire Widget: Social into that MastheadOverlay zone

এরশাদের লংমার্চে চৌদ্দগ্রামে জাপার দুই গ্রুপ মুখোমুখি

ঢাকা, ৪ মার্চ: আগামীকাল সোমবার সাবেক সেনাশাসক হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের নেতৃত্বে অনুষ্ঠিতব্য জাতীয় পার্টির লংমার্চ উপলক্ষে কুমিল্লার চৌদ্দগ্রামে ত্রিমুখী ভয়াবহ সংঘাতের আশঙ্কা দেখা দিয়েছে।

পুলিশ জানায়, পার্টির শীর্ষনেতা কাজী জাফর আহম্মদের পক্ষ থেকে সেখানে গত তিনদিন আগেই পথসভা উপলক্ষে পুলিশের অনুমতি নেয়া হয়েছে। কাজী জাফরের পক্ষে অনুমতি নেন চৌদ্দগ্রাম উপজেলা জাতীয় পার্টির সভাপতি আবুল কাশেম ও সাধারণ সম্পাদক নজির আহম্মদ।

পরে সেখানকার পার্টির আরেক নবাগত নেতা শফিকুর রহমানের নেতাকর্মীরা ভাগ হয়ে আলাদাভাবে পুলিশের কাছে অনুমতি চেয়ে আবেদন করলে পুলিশ তা নাকচ করে দেয়।

চৌদ্দগ্রাম থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোজাম্মেল হোসেন বার্তা২৪ ডটনেটকে বলেন, “জাতীয় পার্টির দুটি গ্রুপ আলাদাভাবে এখানে পথসভা করতে চাচ্ছে। আমরা শুধু কাজী জাফর সাহেবের সমর্থকদের অনুমতি দিয়েছি।”

ওসি বলেন, “শফিকুর রহমান নাকি জাতীয় পার্টির নতুন নেতা।”

কর্মসূচিতে কোনো অঘটন যেন না ঘটে, সে ব্যাপারে পুলিশ সঠিকভাবে দায়িত্ব পালন করবে বলেও জানান তিনি।

এদিকে গত দু’টি লংমার্চে (টিপাইমুখ ও তিস্তা) এরশাদের প্রেস ও পলিটিক্যাল সেক্রেটারী সুনীল শুভরায় পথসভার স্থানগুলো সাংবাদিকদের জানালেও ফেনীর লংমার্চের বেলায় তা হয়নি।

তিনি সাংবাদিকদের শুধু জানিয়েছেন, “৬/৭টি স্থানে পথসভায় অংশ নিতে পারেন এরশাদ।”

অপরদিকে কুমিল্লায় জাপা নেতা শফিকুর রহমানের ঘনিষ্টজন খোরশেদ আলম বার্তা২৪ ডটনেটকে জানান, “আমরা সভার সব প্রস্তুতি নিয়েছি। পুলিশ আমাদেরকে সভার অনুমতি দিতে চাইছে না। কিন্তু আমাদের নেতাকর্মীরা এরশাদ সাহেবের আগমন উপলক্ষে সক্রিয়ভাবে কর্মসূচিতে অংশ নিবে। আমরা পথসভা করবই।”

আবুল কাশেম ও নজির আহম্মদকে দলের বহিষ্কৃত নেতা উল্লেখ করে তিনি বলেন, “ওনারা একটু সমস্যা করছে।”

তিনি বলেন, “আমরা আরেকটি সূত্রে খবর পেয়েছি যে, আমাদের তৈরি করা সব তোরণে রাতে আগুন লাগিয়ে দেয়া হবে। দীর্ঘপথের দূরত্বে যেসব তোরণ তৈরি করা হয়েছে সবগুলোতো আর আমরা পাহারা দিয়ে ঠেকানো সম্ভব না। আমরা প্রশাসনকে এ ব্যাপারে জানিয়েছি।”

কাজী জাফর আহম্মদের বিষয়ে তিনি বলেন, “ওনার সঙ্গে তো আমাদের সম্পর্ক ভালো। কোনো বিরোধ নেই। উনি আমাদের মুরুব্বি। আমার মনে হয়, মুলত সরকারদলীয়রাই সভা পন্ডে গোপনভাবে এসব কাজ করছে।”

বার্তা২৪/কেএমআর/এসএফ

Share this:
Share this page via Facebook Share this page via Twitter

LIKE US on FACEBOOK নিউজ সোর্স b24/মজ / ডেস্ট