Widgetized Section

Go to Admin » Appearance » Widgets » and move Gabfire Widget: Social into that MastheadOverlay zone

৯৬ সালের শেয়ার কেলেংকারির মামলার নিষ্পত্তি হয়নি: অর্থমন্ত্রী

ঢাকা, ১ মার্চ: অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আব্দুল মুহিত বলেছেন, ‘‘১৯৯৬ সালের শেয়ার বাজার কেলেংকারির মামলা গত ১৫ বছরেও নিষ্পত্তি না হওয়ার তথ্যটি সত্য। সাক্ষীর অভাব, তথ্য-প্রমাণাদির অপর্যাপ্ততা ও বিচারিক আদালতে মামলার আধিক্যের কারণে এ মামলাগুলো নিষ্পত্তি করা সম্ভব হয়নি।

বৃহস্পতিবার জাতীয় সংসদের বৈঠকের টেবিলে উত্থাপিত জয়নাল আবদিনের  (ফেনী-২) সংশ্লিষ্ট প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী এ তথ্য জানান।

তিনি বলেন, ‘‘এ মামলাগুলো দ্রুত নিষ্পত্তির বিষয়ে সরকারের সদিচ্ছা রয়েছে। ১৯৯৬ সালে পুঁজিবাজারে সংঘটিত শেয়ার কেলেংকারির মামলাগুলো নিষ্পত্তির লক্ষ্যে আইন মন্ত্রণালয়কে অনুরোধ জানানো হয়েছে। পুঁজিবাজার সংক্রান্ত মামলাগুলো দ্রুত নিষ্পত্তির লক্ষ্যে বিশেষ ট্রাইব্যুনাল গঠনের পরিকল্পনা রয়েছে।’’

সারাহ বেগম কবরীর প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী বলেন, ‘‘বর্তমান সরকারের তিন বছরে বিভিন্ন দাতা দেশ ও আন্তর্জাতিক সংস্থার কাছ থেকে ১৪ হাজার ১২৯ মিলিয়ন মার্কিন ডলার ঋণ সাহায্য পাওয়ার চুক্তি সাক্ষরিত হয়েছে। এর মধ্যে ১১ হাজার ৭৭০ মিলিয়ন ডলার ঋণ ও ২ হাজার ৩৫৯ মিলিয়ন ডলার অনুদান।’’

ইসরাফিল আলমের প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী বলেন, ‘‘দেশের অর্থনীতি সংকটাপন্ন ও মুদ্রাস্ফীতি উদ্বেগজনক অবস্থায় রয়েছে, তথ্যটি সঠিক নয়। তবে বিশ্বের অন্যান্য দেশের অর্থনীতির মতো বাংলাদেশেও মুদ্রাস্ফীতি রয়েছে।২০১০-১১ অর্থবছরে বাংলাদেশে মুদ্রাস্ফীতির হার ৮ দশমিক ৮। যা অন্যান্য বহুদেশের তুলনায় ভাল অবস্থানে রয়েছে।’’

মোঃ শহীদুজ্জামান সরকারের প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী বলেন, ‘‘২০১০-১১ অর্থবছরে বাংলাদেশ মোট ৬ হাজার ৫৬৯ কোটি টাকার বৈদেশিক ঋণ পরিশোধ করেছে। এরমধ্যে ৫ হাজার ১৯৯ কোটি টাকা আসল ও ১ হাজার ৩২৯ কোটি টাকা সুদ বাবদ প্রদান করা হয়েছে।’’

রাশেদা বেগম হীরার প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী বলেন, ‘‘বিমান বাংলাদেশ এয়ার লাইন্সের ৫৬ কোটি টাকা ও জিএমজির ১৮ কোটি ৭৩ লাখ টাকা বকেয়া বিমান ভ্রমণ আদায়ের লক্ষ্যে সংশ্লিষ্ট এয়ারলাইন্স বরারর তাগাদাপত্র দেয়া হয়েছে। জিএমজি আগামী জুনের মধ্যে সব বকেয়া পরিশোধের প্রতিশ্রুতি দিয়েছে।’’

বেগম সালমা ইসলামের প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী বলেন, ‘‘শেয়ার বাজার নিয়ন্ত্রণকারী সংস্থাগুলোর মধ্যে সমন্বয় বৃদ্ধি, সিকিউরিটিজ ও একচেঞ্জ কমিশনের পুনর্গঠনের পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে। এরমাধ্যমে শেয়ার বাজারের দুর্বলতা চিহ্ণিত করে সমাধানের চেষ্টা চালানো হবে। ভবিষ্যতে এ বাজারে কারসাজি চিরতরে বন্ধ করতে সংশ্লিষ্ট আইন ও বিধি-বিধান সংস্কার করা হচ্ছে। এরই অংশ হিসেবে এসইসি ও স্টক একচেঞ্জের দৈনন্দিন লেনদেন সার্বক্ষণিক পর্যবেক্ষণ করা হচ্ছে।’’

বা২৪/ওয়াইই/জিসা

Share this:
Share this page via Facebook Share this page via Twitter

LIKE US on FACEBOOK নিউজ সোর্স b24/মজ / ডেস্ট