Widgetized Section

Go to Admin » Appearance » Widgets » and move Gabfire Widget: Social into that MastheadOverlay zone

দুর্দান্ত জয়ে টিকে রইলো ভারত

স্পোর্টস ডেস্ক: বিরাট কোহলির দুর্দান্ত সেঞ্চুরিতে কমনওয়েলথ ব্যাংক সিরিজে টিকে রইলো ভারতের আশা। নিজেদের শেষ ম্যাচে বোনাস পয়েন্ট পেতে হলে ৪০ ওভারের মধ্যেই জিততে হতো ভারতকে। কোহলির ৮৬ বলে হার না মানা ১৩৩ রানে মাত্র ৩৬.৪ ওভারেই ৩২১ রানের টার্গেট স্পর্শ করে ভারত। জয়ের সঙ্গে বোনাস পয়েন্টও মেলে ভারতের। জয়ের ফলে আট ম্যাচ থেকে ভারতের পয়েন্ট দাঁড়ালো ১৫। একম্যাচ কম খেলে শ্রীলঙ্কার পয়েন্টও ১৫। শেষ ম্যাচে শ্রীলঙ্কা হেরে গেলে রানরেটে এগিয়ে থাকা দলই চলে যাবে ফাইনালে। শ্রীলঙ্কা জিতে গেলে কোন হিসাব না করেই ব্যাগ গোছাতে হবে ধোনিদের। গতকাল হোবার্টে নিজেদের শেষ ম্যাচ আলাদাভাবেই শুরু করে  দেয়ালে পিঠ ঠেকা ভারত। দিলশান আর সাঙ্গাকারার জোড়া শতকে শ্রীলঙ্কার করা ৩২০ রানের জবাবে মাত্র ৬.২ ওভারে ৫৪ রান এনে দেন শচীন-সেওয়াগ জুটি। সেওয়াগ মাত্র ১৬ বল খেলে ৫টি চার ও ১টি ছয়ে ৩০ রান করেন। শচীন দর্শকদের আবারও নিরাশায় রেখে ৩০ বলে ৩৯ রান করে বিদায় নেন। ভারত প্রথম দশ ওভারের বাধ্যতামূলক পাওয়ার প্লেতে দুই উইকেট হারিয়ে ৯৭ রান করে। পাওয়ার প্লের ব্যাটিংই ভারতের দ্রুতগতির জয়ের ভিত গড়ে দেয়। শচীন-সেওয়াগের বিদায়ের পর কোহলি ও গম্ভীর মিলে ১১৫ রানের জুটি গড়েন। ২০১ রানের মাথায় ৬৩ রান করে গম্ভীর আউট হয়ে গেলে রায়নাকে নিয়ে বাকি সময় পার করেন কোহলি। রায়না ২৪ বলে ৪০ রান করলেও ১৬ চার এবং ২ ছক্কায় ১৩৩ রান করে কোহলি দলের আশা বাঁচিয়ে রাখা জয় নিয়ে মাঠ ছাড়েন। ওয়ানডেতে এটি নবম শতক হলেও কোহলির ক্যারিয়ার সেরা এটি। শ্রীলঙ্কার বোলারদের মধ্যে সবচেয়ে বেশি ঝড় গেছে মালিঙ্গার ওপর দিয়ে। ৭.৪ ওভার বল করে ১২.৫২ ইকোনমি রেটে ৯৬ রান দিয়ে তিনি মাত্র ১ উইকেট পান। হেরাথ ৪ ওভারে ২০ রান দিয়ে শ্রীলঙ্কার সবচেয়ে মিতব্যয়ী বোলার ছিলেন। এর আগে টসে জিতে ভারত অধিনায়ক ধোনি ব্যাটিংয়ে পাঠান শ্রীলঙ্কাকে। শ্রীলঙ্কা এদিন যেন ধোনির সিদ্ধান্ত ভুল প্রমাণ করার মিশন নিয়ে মাঠে নামে। ৪৯ রানে অধিনায়ক জয়াবর্ধনে আউট হয়ে গেলেও সেটা বুঝতেই দেননি দিলশান-সাঙ্গাকারা জুটি। টানা ৩১.২ ওভার অবিচ্ছিন্ন থেকে তারা ২০০ রানের জুটি গড়েন। সাঙ্গাকারা তার  শৈল্পিক ব্যাটিং দিয়ে মাত্র ৮৭ বল খেলে ৮টি চার ও ২টি ছয়ে ১০৫ রান করেন। দিলশান এদিন বেশ সাবলীলভাবে ব্যাটিং করেন। ক্যারিয়ার সেরা ১৬০ রান করতে তিনি ১৬৫টি বল মোকাবিলা করেন। ১১টি চার এবং ৩টি ছয়ের সাহায্যে তিনি তিনবার ব্যাট উঁচিয়ে ধরার উপলক্ষ্য সৃষ্টি করেন। দিলশানের একাদশ আর সাঙ্গাকারার ত্রয়োদশ শতক এটি। ম্যাচজয়ী হার্ডহিটিং সেঞ্চুরির কারণে বিরাট কোহলি ম্যান অব দ্য ম্যাচ মনোনীত হন।
সংক্ষিপ্ত স্কোর
টস: ভারত (ফিল্ডিং)
শ্রীলঙ্কা ইনিংস: ৫০ ওভারে (৩২০/৪, দিলশান ১৬০*, সাঙ্গাকারা ১০৫, জাদেজা ১/৪৩, জহির ১/৬১)।
ভারত ইনিংস: ৩৬.৪ ওভারে (৩২১/৩, কোহলি ১৩৩*, গম্ভীর ৬৩, রায়না ৪০*, শচীন ৩৯, সেওয়াগ ৩০, মাহরুফ ১/২১, মালিঙ্গা ১/৯৬)।
ফল: ভারত ৭ উইকেটে জয়ী
ম্যান অব দ্য ম্যাচ : বিরাট কোহলি
পরবর্তী ম্যাচ: ২রা মার্চ (বাংলাদেশ সময় সকাল ৯.২০ মিনিট)

Share this:
Share this page via Facebook Share this page via Twitter

LIKE US on FACEBOOK নিউজ সোর্স b24/মজ / ডেস্ট


6 Responses to দুর্দান্ত জয়ে টিকে রইলো ভারত

  1. sikiş izle

    March 13, 2012 at 6:49 am

    Nice a single weblog proprietor success webpage post excellent sharings on this webpage always have fun

  2. ucuz notebook

    March 14, 2012 at 4:31 am

    Good post admin! i bookmarked your website weblog. i’ll seem ahead should you may have an e-mail variety including.

  3. escort ilanlari

    March 14, 2012 at 5:11 am

    Good article admin! i bookmarked your word wide web weblog. i’ll glance forward when you may have an e-mail variety adding.

  4. sikvar

    March 14, 2012 at 6:11 am

    I was curious about your next post admin really required this webpage super incredible web site

  5. smackdown oyunları

    March 14, 2012 at 2:56 pm

    i cant get how you are able to reveal like this incredible posts admin a lot thanks

  6. samsung 1080p hdtv

    March 14, 2012 at 11:46 pm

    This article is really impressive. You’ve come to some really great conclusions and made valid points on this subject. Thank you for writing great content. I hope to see more. http://www.samsung1080phdtv.net/