Widgetized Section

Go to Admin » Appearance » Widgets » and move Gabfire Widget: Social into that MastheadOverlay zone

ডাণ্ডাবেড়ি নিয়ে কোনো প্রশ্ন নয়: আইনমন্ত্রী

ঢাকা, ২৫ ফেব্রুয়ারি: বিডিআর বিদ্রোহের মামলার আসামীদের ডাণ্ডাবেড়ি পরানো মানবাধিকার লঙ্ঘন কিনা এ প্রশ্নের জবাবে আইনমন্ত্রী ব্যারিস্টার শফিক আহমেদ বলেন, ‘‘যা হচ্ছে, জেলকোড অনুযায়ীই হচ্ছে। এখানে প্রশ্ন তোলার কোনো অবকাশ নেই।’’

শনিবার সকালে বিচার প্রশাসন প্রশিক্ষণ ইনস্টিটিউটে জেলা, দায়রা জজ ও সমমানের কর্মকর্তাদের ১১১তম বিচার প্রশাসন প্রশিক্ষণ কোর্সের উদ্বোধনী অনুষ্ঠান শেষে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এ মন্তব্য করেন।

আইনমন্ত্রী বলেন, ‘‘বিডিআর বিদ্রোহের বিচার যথা সময়ে শেষ হবে এবং যথাযথ প্রক্রিয়ায় এ বিচার কাজ এগিয়ে চলছে।’’

তিনি আরো বলেন, এ বিচারের বিষয়ে সুপ্রিমকোর্টের সঙ্গে পরামর্শক্রমে প্রক্রিয়া চলছে।

ইনস্টিটিউটের ভারপ্রাপ্ত মহাপরিচালক মো.মফিজুল ইসলামের সভাপতিত্বে প্রশিক্ষণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে ব্যারিস্টার শফিক বলেন, ‘‘বিনা কারণে বিচার কার্যে যেন মুলতবি না দেয়া হয়। কারণ এতে বিচারপ্রার্থীদের ভোগান্তি বাড়ে।’’

জেলা জজদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, ‘‘আপনার জেলায় সহকারী বিচারকরা সময়মতো আদালতে আসছেন কিনা, ঠিকমতো বিচারকাজ পরিচালনা করছে কিনা, এ বিষয়ে খেয়াল রাখবেন। এছাড়াও বিনা কারণে মুলতবি দিচ্ছে কিনা এ বিষয়টিও খেয়াল রাখতে হবে।’’

তিনি বলেন, ‘‘বিনা কারণে মুলতবি দেয়া বিচারকার্য পরিচালনায় বড় বাধা। আর বিচারকার্যে দীর্ঘসূত্রিতার মূল কারণ হচ্ছে মুলতবি। অনেক সময় আইনজীবীদের সময় না থাকা আবার বিচারকদেরও ব্যস্ততা থাকার কারণে এ সমস্যা হয়। এজন্য যে মামলা মুলতবির সম্ভাবনা আছে সেটা কজলিস্টে না রাখলে ভালো। তাহলে বিচারপ্রার্থীদের ভোগান্তি কমবে। মামলা কজলিস্টে থাকলে বিচারপ্রার্থীদের আদালতে আসতে হয় এবং আইনজীবীদের ফি দিতে হয়।’’

মামলার কার্যক্রমে কিভাবে সময় কমিয়ে আনা যায় সে ব্যাপারেও চিন্তা করছে সরকার। এজন্য দেওয়ানি ও ফৌজদারি কার্যবিধিতে পরিবর্তন আনা হচ্ছেও বলে মন্তব্য করেন ব্যারিস্টার শফিক।

বা২৪/এফএইচ/জিসা

Share this:
Share this page via Facebook Share this page via Twitter

LIKE US on FACEBOOK নিউজ সোর্স b24/মজ / ডেস্ট