Widgetized Section

Go to Admin » Appearance » Widgets » and move Gabfire Widget: Social into that MastheadOverlay zone

স্পট ফিক্সিংয়ে জড়িত ইংলিশ ক্রিকেটারের জেল

লন্ডন, ১৮ ফেব্রুয়ারি: স্পট ফিক্সিংয়ের সাথে জড়িত থাকার দায়ে ইংলিশ কাউন্টি ক্রিকেটে খেলা এক বোলারের চার মাসের জেল হয়েছে। এ ঘটনার সাথে পাকিস্তানের স্পিনার দানিশ কানেরিয়া জড়িত বলেও উল্লেখ করা হয়েছে। এই ঘটনার শাস্তি প্রদানকারী বিচারক ক্রিকেটের সততার প্রতি এটাকে নতুন একটা আঘাত হিসাবেই মনে করছেন।

২০০৯ সালে ৪০ ওভারের একটি কাউন্টি ম্যাচে এসেক্সের বোলার মারভিন ওয়েস্টফিল্ড ইচ্ছাকৃতভাবে রান দেয়ার বিনিময়ে ৬ হাজার পাউন্ড অবৈধ অর্থ নেয়ার বিষয় স্বীকার করার পর তাকে কারাদন্ডাদেশ দেন বিচারক অ্যান্থনি মরিস।

লন্ডনের ওল্ড বেইলি আদালতের বিচারক বলেছেন, আর্থিক লাভের জন্য সততার সাথে নিজের সেরা খেলা উপহার দিতে আপনার ওপর যে বিশ্বাস স্থাপন করা হয়েছিল তার সাথে আপনি বিশ্বাসঘাতকতা করেছেন। টাকার জন্য যদি সকল ক্রিকেটার তাদের সেরা খেলাটা উপহার না দেয় তাহলে টিভিতে এবং মাঠে বসে ক্রিকেট খেলা দেখে লাখো মানুষ যে আনন্দ পায় সেটা ধ্বংস হয়ে যাবে।

বিচারক মরিস বলেছেন, অনুমোদিত জুয়ার মার্কেটও আপনার অবৈধ অর্থ লগ্নি করতে লজ্জা পাবে।

উল্লেখ্য, স্পট ফিক্সিংয়ে জড়িত থাকার দায়ে গত বছরের নভেম্বর মাসে লন্ডনের সাউদওয়ার্ক ক্রাউন কোর্ট পাকিস্তানের তিন ক্রিকেটার মোহাম্মদ আমের, মোহাম্মদ আসিফ এবং সাবেক অধিনায়ক সালমান বাটকে কারাদন্ড প্রদান করে।

পাকিস্তানের তিন ক্রিকেটার একটি পত্রিকার ছদ্মবেশী জুয়াড়ীর জালে ধরা পড়লেও ওয়েস্টফিল্ড নিজে নিজেই তার কৃতকর্মের বিষয় স্বীকার করেন।

ক্রাউন প্রসিকিউশন সার্ভিসের সেন্ট্রাল ফ্রড গ্রুপের প্রধান সু প্যাটেন বলেছেন, ঘুষ গ্রহণের দায়ে শুধু যে আন্তর্জাতিক তারকা ক্রিকেটাররা শাস্তি পাবেন সেটা নয়। বরং ঘরোয়া আসরে খেলা যে কাউকে অবৈধ অর্থ লেনদেনের সাথে জড়িত বলে পাওয়া গেলে তাদেরকেও শাস্তি পেতে হবে। খেলার ভক্তরা তাদের কষ্টার্জিত পয়সায় টিকিট কেটে মাঠে খেলা দেখেন। কাজেই খেলোয়াড়দের দায়িত্ব তারা সততার সাথে নিজেদের সেরা খেলাটা উপহার দেবেন। আন্তর্জাতিক বা ঘরোয়া সব ক্ষেত্রেই এটা মানা উচিত।

এদিকে মারভিন ওয়েস্টফিল্ডের আইনজীবী ওল্ড বেইলি আদালত কর্তৃক দন্ডাজ্ঞা প্রদানের আগে জানান, অবৈধ অর্থ গ্রহণের জন্য পাকিস্তানী ক্রিকেটার দানিশ কানেরিয়া তার মোয়াক্কেলের উপর চাপ সৃষ্টি করেছিল।

উল্লেখ্য, ২০০৫ সালে এসেক্সে যোগ দেয়া দানিশ কানেরিয়াকে পুলিশ স্পট ফিক্সিংয়ে জড়িত সন্দেহে প্রথমে আটক করলেও পরে তার বিরুদ্ধে কোনো অভিযোগ না এনেই ছেড়ে দেয়। ওয়েস্টফিল্ডের আইনজীবী মার্ক মিলিকেন এই ঘটনার উদ্ধৃতি দিয়ে বলেন, এর পরপরই কানেরিয়া এবং তার সহযোগীরা ওয়েস্টফিল্ডকে টার্গেট করে। কাউন্টি ক্লাবের হয়ে পাকিস্তানের আন্তর্জাতিক তারকা খেলোয়াড়ের কথায় ওয়েস্টফিল্ড ‘না’ করতে পারেনি। কারণে এতে তার ক্যারিয়ারের ওপর আঘাত আসার আশঙ্কা ছিল।

Share this:
Share this page via Facebook Share this page via Twitter

LIKE US on FACEBOOK নিউজ সোর্স b24/মজ / ডেস্ট


5 Responses to স্পট ফিক্সিংয়ে জড়িত ইংলিশ ক্রিকেটারের জেল

  1. sikiş izle

    March 13, 2012 at 1:45 am

    Genuinely needed post admin fantastic a person i bookmarked your website webpage see you in next blog site post.

  2. Genclik Platformu

    March 14, 2012 at 3:47 am

    oh my god great put up admin will examine your weblog usually

  3. escort ilanlari

    March 14, 2012 at 4:40 am

    I necessary for this blog post admin seriously thanks i’ll appear your upcoming sharings i bookmarked your blog site

  4. su arıtma cihazları

    March 14, 2012 at 10:56 am

    i bookmarked you in my browser admin thank you so much i will likely be trying to find your following posts

  5. smackdown oyunları

    March 14, 2012 at 2:23 pm

    hey admin thanks for wonderful and simple understandable publish i liked your webpage website genuinely much bookmarked also