Widgetized Section

Go to Admin » Appearance » Widgets » and move Gabfire Widget: Social into that MastheadOverlay zone

বাংলাদেশ আজ ডিজিটাল : প্রধানমন্ত্রী

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, “আমরা কথা দিয়েছিলাম বাংলাদেশকে ডিজিটাল বাংলাদেশ হিসেবে গড়ে তুলবো। আজ বাংলাদেশ ডিজিটাল। ১৯৯৬ সালে ক্ষমতায় এসে আমরা মানুষের হাতে মোবাইল দিয়েছিলাম। এবার ক্ষমতায় আসার পর আমরা মানুষের হাতে ল্যাপটপ দিয়েছি। প্রযুক্তি ব্যবহার করে মানুষের জীবনযাত্রা সহজ করেছি।”

রবিবার সকালে রাজধানীর কুড়িল ফ্লাইওভার উদ্বোধনকালে সেখানে আয়োজিত এক সুধী সমাবেশে তিনি এসব কথা বলেন।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, “আমরা ক্ষমতা গ্রহণের পর এমন কোনো সেক্টর নেই, যেখানে আপনারা বলতে পারবেন, আমরা উন্নয়ন করি নাই। এরই ধারাবাহিকতা কুড়িল ফ্লাইওভার। কিছু সময় আগে বালু ব্রিজ উদ্বোধন করেছি। এটাও মানুষের দীর্ঘদিনের চাওয়া।”

কুড়িল ফ্লাইওভার নির্মাণ কাজের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট সকলকে ধন্যবাদ জানিয়ে শেখ হাসিনা বলেন, “এই ফ্লাইওভারের কাজ সময়মতো শেষ করার জন্য আমি এর সঙ্গে সংশ্লিষ্ট সকলকে ধন্যবাদ জানাই। এতে যদি কোনো ধরনের দুর্নীতি থাকতো তাহলে এতো তাড়াতাড়ি এ নির্মাণকাজ শেষ হতো না। এ ফ্লাইওভারটিকে বলা হয় ঢাকার নতুন গেটওয়ে। মাত্র ৩৮ মাসের মধ্যে এর নির্মাণকাজ শেষ করা সহজসাধ্য কাজ নয়। আমি এর সঙ্গে সংশ্লিষ্ট সকলকে ধন্যবাদ জানাই।”

এসময় রাজধানীতে সরকারের বিভিন্ন উন্নয়ন কর্মকান্ড তুলে ধরে প্রধানমন্ত্রী বলেন, “আমরা ক্ষমতা গ্রহণের পর রাজধানীর অনেক উন্নয়ন কর্মকান্ড করেছি। আমরা মিরপুর ফ্লাইওভার নির্মাণ করেছি। যাত্রাবাড়ী ফ্লাইওভারের নির্মাণকাজও অল্প কিছুদিনের মধ্যে শেষ হবে।”

শেখ হাসিনা বলেন, “সরকারের এ উন্নয়নের ধারাবাহিকতা বজায় রাখা দরকার। আমি জানি না, দেশের মানুষ আবার সেই অন্ধকারে ফিরে যাবে কিনা? দেশের মানুষ যদি আবার অন্ধকারে ফিরে যায় তাহলে আমার বলার কিছুই নেই। তবে আমি দেশবাসীকে এ বিষয়ে সতর্ক করতে চাই।”

বর্তমান সরকারের সময়ে সকল নির্বাচন সুষ্ঠু হয়েছে দাবি করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, “আমরা ভোট চুরি করি না। আমাদের সময়ে যতগুলো নির্বাচন হয়েছে সকল নির্বাচন অবাধ ও সুষ্ঠু হয়েছে। আমরা জনগণের ভোটের অধিকার ফিরিয়ে দিয়েছি। জনগণ যাকে ভোট দিবে সেই জয়ী হবে। আমরা তাকেই মেনে নেবো।”

এইচএসসি পরীক্ষায় ফলাফল প্রসঙ্গে প্রধানমন্ত্রী বলেন, “আমাদের আশা ছিল বিগত বছরের তুলনায় ছাত্র-ছাত্রীদের রেজাল্ট এ বছর আরো ভালো হবে। কিন্তু এবার এইচএসসি পরীক্ষার দিনগুলোতে বিএনপি-জামায়াত-শিবির হরতাল দিয়েছে। এতে বাচ্চাদের পড়াশোনার ব্যাপক ডিস্টার্ব হয়েছে। আবার আমাদের টার্গেট ছিল রেজাল্ট আরো ভালো হবে। কিন্তু তা পূরণ করতে পারি নাই। তবে ৭৪ শতাংশ পাস কম কথা নয়। অতীতে কোনো সরকারই এটা করতে পারে নাই- আমরাই এটা করেছি।”

দেশে লোডশেডিং হওয়ার কোনো কারণ নেই উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, “আমি নিজেই বলেছিলাম প্রতিদিন দুই ঘণ্টা করে লোডশেডিং দিতে। তা না হলে মানুষ ভুলে যাবে দেশে লোডশেডিং ছিল। দেশে বর্তমানে লোডশেডিং হওয়ার মোত কোনো পরিস্থিতি নেই। তবে কিছু কিছু জায়গায় কেউ কেউ ইচ্ছে করে নামাজ, ইফতার ও সেহরির সময় লোডশেডিং করে। এরকম ঘটনা কোথাও হলে সঙ্গে সঙ্গে আমাদের জানাবেন।”

প্রধানমন্ত্রী তার বক্তব্যের শুরুতে উপস্থিত সবাইকে পবিত্র রমজানের মোবারকবাদ ও আসন্ন ঈদুল ফিতরের অগ্রিম শুভেচ্ছা জানান।

অনুষ্ঠানের শুরুতে রাজউক চেয়ারম্যান নুরুল হুদা কুড়িল ফ্লাইওভার প্রকল্পের বিভিন্ন দিক তুলে ধরেন। এর পর প্রকল্পের পাওয়ার পয়েন্ট তুলে ধরেন ড. মাজহারুল ইসলাম।

এ সময় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন গৃহায়ন ও গণপূর্ত প্রতিমন্ত্রী এডভোকেট আব্দুল মান্নান খান, ডাক ও টেলিযোগাযোগমন্ত্রী এডভোকেট সাহারা খাতুন, স্থানীয় সরকার প্রতিমন্ত্রী জাহাঙ্গীর কবির নানক, সংদস সদস্য এ কে এম রহমতউল্লাহ, প্রধানমন্ত্রীর মিডিয়া উপদেষ্টা ইকবাল সোবহান চৌধুরী প্রমুখ।

Share this:
Share this page via Facebook Share this page via Twitter

LIKE US on FACEBOOK নিউজ সোর্স b24/মজ / ডেস্ট