Widgetized Section

Go to Admin » Appearance » Widgets » and move Gabfire Widget: Social into that MastheadOverlay zone

অবশেষে ক্ষমা চাইলেন এমপি রনি

অবশেষে ক্ষমা চেয়েছেন সরকারদলীয় সংসদ সদস্য গোলাম মাওলা রনি। সাংবাদিক পেটানোর ঘটনায় নিজের অসংযত আচরণের দায় স্বীকার করে বৃহস্পতিবার নিজ কার্যালয় থেকে পাঠানো এক বিবৃতিতে তিনি এ ঘটনার জন্য সাংবাদিকসহ দেশের প্রতিটি মানুষের কাছে ক্ষমা চেয়েছেন।

বিবৃতিতে তিনি বলেন, রাজনৈতিক জীবনে আমি বরাবরই বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ এবং জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর নীতি-আদর্শে বিশ্বাসী, অনুগত ও নিবেদিতপ্রাণ এক কর্মী। ভবিষ্যতেও আমি কখনও এ থেকে বিচ্যুত হবো না। আমার রাজনৈতিক শিক্ষা এবং অনুপ্রেরণার উৎস জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান। তার স্পষ্টবাদিতা এবং সাহস আমার পাথেয়। আর রাজনীতিতে বঙ্গবন্ধুকন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বকে আরও গতিশীল এবং নিরাপদ করাই আমরা লক্ষ্য।

শিক্ষাজীবন শেষে আমি গণমাধ্যমে সক্রিয়ভাবে যুক্ত হই। কিছু সময় প্রবাসে এবং রাজনীতিতে জড়িয়ে পড়ায় লেখালেখিতে ছেদ পড়ে। পরিচিতিজনদের আগ্রহ, উৎসাহ ও সহযোগিতায় আবারও বেশ কিছুদিন হলো লেখালেখি শুরু করেছি। টেলিভিশন অনুষ্ঠান বিশেষ করে টক শোতেও নিয়মিত অংশ নিচ্ছি। অনেকের মতো আমিও মনে করি আমাদের এ রাজনৈতিক সংস্কৃতির পরিবর্তন প্রয়োজন। এই সমাজে স্পষ্ট কথা বলা/লেখার লোকের সংখ্যা দ্রুত কমছে। এ অবস্থায় আমার লেখায়/ আলোচনায়/ বক্তব্যে প্রশংসা ও তিরস্কার দুটোই জুটেছে। নানা বিষয়ে মতপার্থক্য এবং দৃষ্টিভঙ্গির ভিন্নতার কারণে সম্প্রতি আমি এক অনাকাঙিক্ষত ঘটনার মুখোমুখি হই। ঘটনার পূর্বাপর বিশ্লেষণে বোঝা যায় আমি মূলত পরিস্থিতির শিকার।

রনি বলেন, এ ঘটনায় সাংবাদিক বন্ধুদের সঙ্গে অসংযত আচরণের দায় পুরোপুরি আমার। গণমাধ্যমে যুক্ত/কর্মরত সকল সাংবাদিক বন্ধু, এ আচরণে ক্ষুব্ধ সকল শুভ্যানুধায়ীর কাছে আমি ক্ষমাপ্রার্থী। ক্ষমা প্রার্থনার মাধ্যমে এ অধ্যায়ের অবসান ঘটবে বলে আমি আশা করছি।

রনি বলেন, বেশ কিছুদিন ধরে বিভিন্ন গণমাধ্যমে আমার বিরুদ্ধে নানা অনিয়ম ও দুর্নীতির সঙ্গে সম্পৃক্ততা নিয়ে লেখালেখি হচ্ছে। আমি আবারও এ বিষয়ে পরিষ্কার বলতে চাই, আমার বিরুদ্ধে উত্থাপিত এসব অভিযোগের একটিরও সত্যতা মিললে আমি তাৎক্ষণিকভাবে রাজনীতি থেকে চিরদিনের মতো দূরে সরে দাঁড়াবো।

আপনাদের সবার সহযোগিতা এবং দোয়ায় ভবিষ্যতেও যেন বরাবরের মতো দুর্নীতি, অপশাসনের বিরুদ্ধে লেখালেখি/আলোচনা চালিয়ে যেতে পারি সে প্রত্যাশা করছি।

উল্লেখ্য, গত শনিবার দুপুরে রাজধানীর তোপখানা রোডের মেহেরবা প্লাজায় ব্যক্তিগত কার্যালয়ের সামনে ইন্ডিপেনডেন্ট টেলিভিশনের ২ সংবাদকর্মীকে মারধর করেন গোলাম মাওলা রনি। ওইদিন তিনি এবং ইন্ডিপেনডেন্ট টেলিভিশন কর্তৃপক্ষ পাল্টাপাল্টি মামলা করেন। পরদিন তিনি আদালত থেকে জামিন নেন। বুধবার বাদী এমপি রনির জামিন বাতিল চাইলে তা মঞ্জুর করে তাকে গ্রেফতারের নির্দেশ দেয়া হয়। আদালতের নির্দেশের পর বুধবার বিকালে তাকে গ্রেফতার করে গোয়েন্দা পুলিশ। বৃহস্পতিবার সকালে তাকে আদালতে তোলা হয় এবং জেলহাজতে পাঠানোর নির্দেশ দেয়া হয়। বর্তমানে তিনি জেলহাজতে রয়েছেন।

Share this:
Share this page via Facebook Share this page via Twitter

LIKE US on FACEBOOK নিউজ সোর্স b24/মজ / ডেস্ট