Widgetized Section

Go to Admin » Appearance » Widgets » and move Gabfire Widget: Social into that MastheadOverlay zone

সাগর-রুনির হত্যাকান্ডে সরকার জড়িত : খালেদা জিয়া

বিএনপি চেয়ারপারসন ও বিরোধীদলীয় নেতা বেগম খালেদা জিয়া বলেছেন, নিহত সাংবাদিক দম্পতি সাগর সারওয়ার ও মেহেরুন রুনির হাতে সরকারের প্রভাবশালী মহলের দুর্নীতির গোপন তথ্য ছিল বলেই তাদের নিজ বাড়িতে নৃশংসভাবে হত্যা করা হয়েছে।

এ হত্যাকান্ডের সাথে সরকার জড়িত। আর সেই জন্যই সাংবাদিক সমাজসহ সর্বস্তরের মানুষের প্রতিবাদ বিক্ষোভ সত্ত্বেও হত্যাকারীদের সরকার গ্রেফতার করেনি।

বুধবার সন্ধ্যায় জাতীয় প্রেসক্লাবে বিএফইউজে ও ডিইউজে আয়োজিত ইফতার মাহফিলে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

গণমাধ্যম বন্ধের কঠোর সমালোচনা করে বিএনপি চেয়ারপারসন বলেন, সম্পূর্ণ অন্যায়ভাবে দৈনিক আমার দেশ পত্রিকার সম্পাদক মাহমুদুর রহমানকে আটক রাখা হয়েছে। তার মুক্তি দাবি করে অনতিবিলম্বে দৈনিক আমার দেশ পত্রিকা, দিগন্ত টেলিভিশন এবং ইসলামিক টেলিভিশন খুলে দেয়ার দাবি জানিয়েছেন তিনি।

আগামীতে ঐক্যের রাজনীতি সৃষ্টির প্রতিশ্রুতি দিয়ে বিরোধীদলীয় নেতা বেগম খালেদা জিয়া সরকারের উদ্দেশে বলেন, বিভক্তি নয়, ঐক্যের রাজনীতি সৃষ্টির মাধ্যমে দেশকে এগিয়ে নেয়া হবে।

সরকারের উদ্দেশে তিনি বলেন, সময় আছে আসুন আলোচনার মাধ্যমে নির্দলীয় সরকারের অধীনে ফিরে যাই, আমরা আপনাদের দাবি মেনে নিয়েছিলাম। আপনারাও আমাদের দাবি মেনে নিন। নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে আওয়ামী লীগ বিজয়ী হলে আমরা অভিনন্দন জানাবো।

খালেদা জিয়া বলেন, সুখী-সমৃদ্ধ দেশ গড়ার জন্য যুদ্ধ করে দেশ স্বাধীন করা হলেও আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় থাকার জন্য নীলনকশা করছে।

তিনি বলেন, তারা সকল প্রতিষ্ঠান দলীয়করণের মাধ্যমে ধ্বংস করছে। সরকার মেধা ও যোগ্যতার মূল্যায়ন করছে না।

বিএনপি চেয়ারপারসন বলেন, বর্তমান সরকার দেশের কোনো উন্নয়ন করেনি তাই তারা ভালো করে জানে জনগণ আওয়ামী লীগকে ভোট দেবে না। দেশকে বিপদের হাত থেকে রক্ষা করতে ঈদের পর সকলকে একত্রে কাজ করার আহ্বান জানান বিরোধীদলীয় নেতা।

তিনি বলেন, আওয়ামী লীগ সরকারের অধীনে সুষ্ঠু নিরপেক্ষ নির্বাচন সম্ভব নয়। সিটি করপোরেশন নির্বাচনে তারা সন্ত্রাসী কর্মকান্ডে লিপ্ত ছিল। উপনির্বাচনেও তারা সন্ত্রাস চালিয়েছে।

হেফাজতে ইসলামের কর্মীদের উচ্ছেদের সময় সরকার  ১ লাখ ৫৫ হাজার রাউন্ড গুলি খরচ করেছে। গুলি করে মানুষ হত্যা করা হয়েছে। অথচ সরকার মিথ্যা কথা বলছে। তাদের সত্য বলার সাহস নেই। সরকারের বিরুদ্ধে যারাই কথা বলছে তাদের নির্যাতন করা হচ্ছে।

খালেদা জিয়া বলেন, জনগণের সরকার প্রতিষ্ঠিত হলে বিদেশিদের নির্দেশে নয়, জনগণের ইচ্ছানুযায়ী রাষ্ট্র পরিচালনা করা হবে।

মঞ্চে খালেদা জিয়ার সঙ্গে ইফতার করেন বিএফইউজের সভাপতি রুহুল আমিন গাজী, মহাসচিব শওকত মাহমুদ, প্রেসক্লাবের সভাপতি কামাল উদ্দিন সবুজ, সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ আবদাল আহমেদ, ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি আবদুস শহিদ, সাধারণ সম্পাদক বাকের হোসাইন, প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি রিয়াজউদ্দিন, বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. আরএ গণি, ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ, ড. আবদুল মঈন খান, আসম হান্নান শাহ, নজরুল ইসলাম খান, ভাইস চেয়ারম্যান সাদেক হোসেন খোকা, চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা এডভোকেট খন্দকার মাহবুব হোসেন, এজেডএম জাহিদ হোসেন, যুগ্ম মহাসচিব বরকত উল্লাহ বুলু, চেয়ারপারসনের প্রেস সচিব মারুফ কামাল খান, কৃষক শ্রমিক জনতা লীগের সভাপতি বঙ্গবীর কাদের সিদ্দিকী, জামায়াতে ইসলামীর নায়েবে আমির একেএম নাজির আহমেদ, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক ভিসি ড. এমাজউদ্দিন আহমেদ প্রমুখ।

সম্পাদকদের মধ্যে অংশ নেন দৈনিক সংগ্রাম সম্পাদক আবুল আসাদ, নয়া দিগন্ত সম্পাদক আলমগীর মহিউদ্দিন, ইন্ডিপেন্ডেট সম্পাদক মাহবুবুল আলম, সাংবাদিক আমান উল্লাহ কবির, ইনকিলাব সম্পাদক এএমএম বাহাউদ্দিন, জাস্ট নিউজ সম্পাদক মুশফিকুল ফজল আনসারী, নতুনবার্তা সম্পাদক সরদার ফরিদ আহমদ, বিশিষ্ট সাংবাদিক মাহফুজ উল্লাহ, এলাহী নেওয়াজ খান সাজু, জাহেদ চৌধুরী, ছড়াকার আবু সালেহ, কবি আল মুজাহিদী, মাহমুদ শফিক, ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির সাধারণ সম্পাদক ইলিয়াস খান, প্রধানমন্ত্রীর তথ্য উপদেষ্টা ইকবাল সোবহান চৌধুরী, বিএফইউজের সাবেক সভাপতি মঞ্জুরুল আহসান বুলবুল, ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়ন সভাপতি ওমর ফারুক, সাধারণ সম্পাদক শাবান মাহমুদ, জাস্ট নিউজের বার্তা সম্পাদক মহিউদ্দিন খান মোহন প্রমুখ।

এছাড়া আরো উপস্থিত ছিলেন নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক মাহমুদুর রহমান মান্না, ইসলামী ঐক্যজোটের চেয়ারম্যান আবদুল লতিফ নেজামী প্রমুখ।

প্রেসক্লাব চত্বরে বেগম খালেদা জিয়া পৌঁছালে তাকে স্বাগত জানান প্রেসক্লাবের সভাপতি কামাল উদ্দিন সবুজ, সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ আবদাল আহমেদ, বিএফইউজের সভাপতি রুহুল আমিন গাজী, মহাসচিব শওকত মাহমুদ, ডিইউজের সভাপতি আবদুস শহিদ, সাধারণ সম্পাদক বাকের হোসেন, চেয়ারপারসনের প্রেস সচিব মারুফ কামাল খান, জাস্ট নিউজ সম্পাদক মুশফিকুল ফজল আনসারী প্রমুখ।

Share this:
Share this page via Facebook Share this page via Twitter

LIKE US on FACEBOOK নিউজ সোর্স b24/মজ / ডেস্ট