Widgetized Section

Go to Admin » Appearance » Widgets » and move Gabfire Widget: Social into that MastheadOverlay zone

নৌকায় ভোট চাইলেন প্রধানমন্ত্রী

রাজধানীতে আয়োজিত জনসভায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আগামী নির্বাচনের জন্য ভোট প্রার্থনা করে
বলেছেন, জনগণ যে প্রত্যাশা নিয়ে আওয়ামী লীগকে ভোট দিয়েছিলেন, সরকার সে আশা পূরণ করে চলেছে। কিছু কাজ এখনও বাকি রয়েছে। বাকি কাজগুলো সম্পন্ন করতে হলে আগামীতেও আবার নৌকা মার্কায় ভোট দিন। অসমাপ্ত কাজ সমাপ্ত করতে আবারও দেশবাসীর সমর্থন প্রয়োজন।
গতকাল বিকালে রাজধানীর মুগদায় নব নির্মিত হাসপাতালের উদ্বোধন উপলক্ষে এক জনসভার আয়োজন করা হয়। খিলগাঁও-সবুজবাগ থানা আওয়ামী লীগ আয়োজিত জনসভায় সভাপতিত্ব করেন স্থানীয় সংসদ সদস্য সাবের হোসেন চৌধুরী। বক্তব্য রাখেন, আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব-উল আলম হানিফ, সাংগঠনিক সম্পাদক আফম বাহাউদ্দিন নাছিম, ঢাকা মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া বীরবিক্রম। ৫০০ শয্যার এ জেনারেল হাসপাতাল নগরীর পূর্ব দিকের বাসিন্দাদের চিকিৎসা সেবার সুযোগ করে দেবে। প্রধানমন্ত্রী বলেন, বিগত নির্বাচনে আমরা যে ওয়াদা করেছিলাম, সে ওয়াদা পূরণ করে চলেছি। আমরা মানুষের উন্নয়নে কাজ করতে চাই। দেশের অর্থনৈতিক অবস্থার পরিবর্তন করতে চাই। বিএনপি সরকার বিগত সময়ে দেশে সন্ত্রাসী ক্যাডার বাহিনী, জঙ্গিবাদ, হাওয়া ভবন সৃষ্টি করেছিল। দুর্নীতির মাধ্যমে কোটি কোটি বিদেশে পাচার করেছিল। গ্যাস, বিদ্যুৎ- এর উৎপাদন কমে গিয়েছিল। ৪২০০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ রেখে গিয়েছিলাম। তারা উৎপাদন কমিয়ে এনে ৩২০০ মেগাওয়াট করেছিল। তিনি বলেন, বিরোধী দলের নেতা এখন বলছেন, ক্ষমতায় গেলে নতুনভাবে সরকার পরিচালনা করবেন। আসলে তারা ক্ষমতায় গেলে নতুনভাবে দুর্নীতি করবে।
আওয়ামী লীগ সভানেত্রী বলেন, আমরা দেশের মানুষের উন্নয়নের জন্য কাজ করছি। কিন্তু বিরোধী দলের নেত্রী হঠাৎ করে আমাদের ৪৮ ঘণ্টার আল্টিমেটাম দিয়ে হেফাজতকে শাপলা চত্বরে বসালেন। হেফাজত শান্তিপূর্ণ কর্মসূচির কথা বলে, তারা রাস্তার দু’পাশের গাছ কেটে সাবাড় করে দিল। মসজিদে আগুন দিল, কোরআন  পোড়ালো।
শিক্ষা ক্ষেত্রে সরকারের বিভিন্ন সফলতা তুলে ধরে প্রধানমন্ত্রী বলেন, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের পর বর্তমান সরকারই দেশে বেসরকারি প্রাথমিক শিক্ষকদের জাতীয়করণ করেছে। মেয়েদের বিনামূল্যে শিক্ষার ব্যবস্থা করা হয়েছে। প্রধানমন্ত্রী তহবিল গঠন করেছি। সেখান থেকে আগামীতে ছাত্রদেরও বৃত্তি প্রদান করা হবে। আমরা শিক্ষা বিস্তারের উন্নয়নের জন্য কাজ করি। কারণ আওয়ামী লীগই চায় দেশ এগিয়ে যাক। আর অন্যদিকে যারা নিজেই মেট্রিক পাস করতে পারে না। তারা কিভাবে শিক্ষার প্রসার যাবে।
আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় আসলে বিদেশ থেকে পুরস্কার নিয়ে আসে। আর বিএনপি ক্ষমতায় এসে দেশকে পাঁচ বার দুর্নীতিতে চ্যাম্পিয়ান বানিয়েছিল। আমরা আগামীতে দেশকে এগিয়ে নিতে চাই।
তিনি বলেন, যারা আমাদের মুক্তিযুদ্ধের বিরোধিতা করেছিল, মা-বোনদের ধরে নিয়ে পাকিস্তানিদের হাতে তুলে দিয়েছিল, গণহত্যা করেছিল সেই সকল যুদ্ধাপরাধীর বিচার শুরু হয়েছে। স্বজন হারারা বিচার পাচ্ছেন। এ বিচার সম্পন্ন করতে দেশবাসীর কাছে আবারও সহায়তা চাই। যারা যুদ্ধাপরাধীদের বাঁচাতে মরিয়া হয়ে উঠেছে, তারা যেন আর ক্ষমতায় আসতে না পারে সে ব্যাপারে দেশবাসীকে সজাগ থাকতে হবে।
বিরোধী নেত্রীর সমালোচনা করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, আমরা দেশের জন্য কাজ করি। আর বিএনপি নেত্রী দেশের জিএসপি বাতিলের জন্য ইহুদিদের পত্রিকায় নিবন্ধন লেখেন। মানুষের ভাগ্য নিয়ে ছিনিমিনি খেলেন। ক্ষমতায় থাকতে বিদেশে অর্থ পাচার করেন।
জনসভায় স্থানীয় আওয়ামী লীগের কর্মী-সমর্থকরা অংশ নেন। প্রধানমন্ত্রী আনুষ্ঠানিকভাবে ফিতা কেটে মুগদা জেনারেল হাসপাতালের উদ্বোধন করেন।

Share this:
Share this page via Facebook Share this page via Twitter

LIKE US on FACEBOOK নিউজ সোর্স b24/মজ / ডেস্ট