Widgetized Section

Go to Admin » Appearance » Widgets » and move Gabfire Widget: Social into that MastheadOverlay zone

পরের দিন ইসির ফলাফল ঘোষণার সিদ্ধান্ত সন্দেহজনক : মান্নান

নির্বাচনের পরের দিন সকাল ১১টায় ফলাফল ঘোষণা কেন করা হবে সে ব্যাপারে গাজীপুর সিটি নির্বাচনে ১৮ দল সমর্থিত প্রার্থী অধ্যাপক এমএ মান্নান অবগত নন। তিনি বলেন, নির্বাচন কমিশনের এ সিদ্ধান্ত সন্দেহজনক। ফলাফল নির্বাচনের দিন সন্ধ্যায় ঘোষণার দাবি জানান তিনি।

তিনি বলেন, যদি অবাধ ও সুষ্ঠু নির্বাচন হয় তাহলে বিশাল ভোটের ব্যবধানে জয়ী হবো। কিন্তু সরকার এ জয়  ছিনিয়ে নেয়ার জন্য উঠে পড়ে লেগেছে। সরকার বেপরোয়া হয়ে পড়েছে।

শুক্রবার বিকালে টঙ্গী নির্বাচনী কার্যালয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ কথা বলেন।

সম্মেলনে এমএ মান্নান বলেন, সিটি নির্বাচন সুষ্ঠু ও অবাধ করতে হলে সেনা মোতায়েন করা ছাড়া বিকল্প নেই। এ নির্বাচনে কারচুপি হলে এর দায়-দায়িত্ব নির্বাচন কমিশনকেই নিতে হবে ।

তিনি বলেন, নির্বাচনে প্রচারণার কাজ রাত ১২টায় শেষ হয়েছে। সরকারদলীয় প্রার্থী আজমত উল্লাহ খান তার দলের বিভিন্ন পর্যায়ের সরকারি কর্মকর্তাদের নির্বাচনী আচরণবিধি অমান্য করে তার পক্ষে কাজ করাচ্ছেন।

তিনি অভিযোগ করেন, আমি কিছুক্ষণ আগে শুনলাম, গাজীপুর বিশ্ববিদ্যালয় থেকে প্রিজাইডিং অফিসারদের ব্যালট পেপার দেয়া হচ্ছে। আর সেখানে সরকার দলীয় প্রার্থী আজমত উল্লাহ খান গিয়েছেন। আমি শুনেছি তিনি প্রত্যেক কেন্দ্রে ৩০০ ভোট আগে দিয়ে ভোটগণনার সময় ভোটারদের ভোটের সাথে মিশিয়ে জয় ছিনিয়ে নেয়ার চেষ্টা চালাচ্ছেন।

তিনি বলেন, আজমত উল্লাহ খান কয়েক দিন ধরে কালো টাকা ছড়াচ্ছেন। যে ভোট কেন্দ্রগুলো তাদের প্রতিকূলে সেখানে তারা দলীয় ক্যাডার নিয়োগ দিয়েছে।

তিনি বলেন, আমার সক্রিয় কর্মীকে পুলিশ দিয়ে গ্রেফতার করা হয়েছে। বিভিন্ন জায়গায় আমার কর্মীদের ওপর সরকার দলীয় ক্যাডারদের হামলা হচ্ছে।

তিনি বলেন, গতকাল ৫টি বাসযোগে ছাত্রলীগ যুবলীগ ক্যাডাররা গাজীপুরে এসেছে। তারা এখনো অবস্থান করছে। এ ব্যাপারে রিটার্নিং অফিসারের কাছে অভিযোগ দেয়া হয়েছে।

তিনি অভিযোগ করে বলেন, ৩০০ ভোট দোয়াত-কলম মার্কায় দিয়ে তা ভোটের সাথে মিশিয়ে সরকারদলীয় প্রার্থীকে জয়ী করার জন্য প্রিজাইডিং অফিসারদের চাপ দেয়া হচ্ছে।

মান্নান বলেন, নির্বাচন অবাধ ও সুষ্ঠু হলে যেই ফলাফল হোক আমি মেনে নিবো। নির্বাচনকে বানচাল করার জন্য সরকারদলীয় সমর্থকদের অপতৎপরতা অব্যাহত রয়েছে। এখানে সরকারি কর্মকর্তারাও কাজ করছে।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন বিএনপির নির্বাহী কমিটির সদস্য হাসান উদ্দিন সরকার, জাতীয় পার্টির জেলা যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আসাদ সিদ্দিকী, টঙ্গী থানা বিএনপির সভাপতি শাহেন শাহ আলম, বিএনপি নেতা সালাউদ্দিন সরকার, টঙ্গী থানার বিএনপি সাধারণ সম্পাদক মাহবুবুল আলম শুক্কুর, গাজীপুর জেলা যুবদল সভাপতি প্রমুখ।

Share this:
Share this page via Facebook Share this page via Twitter

LIKE US on FACEBOOK নিউজ সোর্স b24/মজ / ডেস্ট