Widgetized Section

Go to Admin » Appearance » Widgets » and move Gabfire Widget: Social into that MastheadOverlay zone

অর্থমন্ত্রী সিলেটে ঘুরে বেড়াচ্ছেন

হাইভোল্টেজ নির্বাচন নিয়ে অভিযোগ-পাল্টা অভিযোগের মধ্যে নতুন আলোচনা অর্থমন্ত্রীকে নিয়ে। নির্বাচনের আগের দিন হঠাৎ সিলেটে তার অবস্থান এবং পুলিশি নিরাপত্তা নিয়ে শহরে যাতায়াতে আলোচনা সর্বত্র। গতকাল
ভোটের আগের দিন গাড়ি বহর নিয়ে মহড়া দিয়েছেন মন্ত্রী। এ নিয়ে ১৮ দলীয় জোট সমর্থিত প্রার্থী আরিফুল হক চৌধুরীর পক্ষ থেকে আনুষ্ঠানিক অভিযোগ তেলা হয়েছে, সরকারি দল সমর্থিত প্রার্থী বদরউদ্দিন আহমদ কামরানের পক্ষে নির্বাচনকে প্রভাবিত করতেই অর্থমন্ত্রী সিলেটে অবস্থান করছেন। এটিকে নির্বাচনী বিধি লঙ্ঘন বলেও অভিযোগ করেছেন সম্মিলিত নাগরিক জোটের প্রার্থী আরিফুল হক চৌধুরী। অন্যদিকে বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান শমসের মুবিন চৌধুরী ও বিএনপি নেতা নেতা নাসের রহমান প্রশাসনের নির্দেশে গতকাল সিলেট ছেড়েছেন।
গতকাল সন্ধ্যায় নগরীর জিন্দাবাজারে এক সংবাদ সম্মেলনে সম্মিলিত নাগরিক জোটের প্রার্থীর পক্ষে তার সদস্য সচিব আবুল কাহের শামীম বলেন, আরিফুল হক চৌধুরীর বিজয় নিশ্চিত জেনে জনগণের ভোটাধিকারকে ছিনিয়ে নেয়ার জন্য সরকার এবং সরকারদলীয় প্রার্থী বিভিন্নভাবে ষড়যন্ত্র ও চক্রান্ত করছেন। ২০টি কেন্দ্রে আওয়ামী লীগ ও ছাত্রলীগের সন্ত্রাসী এবং অস্ত্রধারীরা সেন্টার দখল করার গভীর ষড়যন্ত্র করছে- এ অভিযোগ করে শামীম বলেন, অবৈধ অস্ত্রধারীরা সিলেট শহরে প্রকাশ্যে ঘুরে বেড়াচ্ছে। অথচ প্রশাসন এখন সে ব্যাপারে কোন পদক্ষেপ গ্রহণ করেনি। তিনি বলেন, এক মাস আগে সিলেট শহরের প্রাণকেন্দ্র টিলাগড় পয়েন্টে যারা অস্ত্র উঁচিয়ে সন্ত্রাসের রাজত্ব কায়েম করেছিল এবং অস্ত্রধারীদের পুলিশের হাত থেকে ছিনিয়ে নিয়েছিল সেই অস্ত্রধারীরা ভোটকেন্দ্র দখলের ষড়যন্ত্র করছে। এসব অবৈধ অস্ত্র ভোট ডাকাতির কাজে ব্যবহৃত হওয়ার আশঙ্কা করেন তারা। নির্বাচন কমিশন ও পুলিশ প্রশাসনের কাছে লিখিত অভিযোগ করা হয়েছে জানিয়ে শামীম সন্ত্রাসমুক্ত নির্বাচনে সর্বাত্মক সহায়তা কামনা করেন। শামীম বলেন, নির্বাচন আচরণবিধি লঙ্ঘন করে কিছু কিছু মন্ত্রী সিলেটে আসা-যাওয়া করছেন। অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত নির্বাচন আচরণবিধি লঙ্ঘন করে সিলেটে অবস্থান করছেন। তার এ অবস্থান নির্বাচনকে প্রভাবিত করতে পারে। নির্বাচন কমিশনের কাছে অনতি বিলম্বে এ ব্যাপারে জরুরি পদক্ষেপ নেয়ার জোর দাবি জানান তিনি। নির্বাচনকে প্রভাবিত করতে পুলিশের এক সাবেক কর্মকর্তা (এআইজি) সৈয়দ বজলুর করিমের নেতৃত্বে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় নির্বাচন পরিচালনা কমিটির একটি টিম সিলেটে অবস্থান করছে জানিয়ে আবুল কাহের শামীম অভিযোগ করেন, তারা ঢাকা থেকে এসে সিলেটের পুলিশ প্রশাসনকে বিভিন্নভাবে প্রভাবিত করার চেষ্টা করছেন। অবাধ, সুষ্ঠু নির্বাচন আয়োজনে দেশবাসী, সিলেটবাসী, সরকার ও গণমাধ্যমের প্রতি আহ্বানও জানান তিনি। এক প্রশ্নের জবাবে শামীম বলেন, অর্থমন্ত্রীর সিলেট শহরে অবস্থানই স্থানীয় প্রশাসনকে প্রভাবিত করতে পারে। অবশ্য অর্থমন্ত্রীর ঘনিষ্ঠজন সিলেট মহানগর আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক শফিউল আলম চৌধুরী নাদেল বলেছেন, অর্থমন্ত্রী সিলেটে ভোট দিতে এসেছেন।

Share this:
Share this page via Facebook Share this page via Twitter

LIKE US on FACEBOOK নিউজ সোর্স b24/মজ / ডেস্ট