Widgetized Section

Go to Admin » Appearance » Widgets » and move Gabfire Widget: Social into that MastheadOverlay zone

‘বিরোধী দলের দাবি ভিন্ন সংলাপে লাভ নেই’

পররাষ্ট্রমন্ত্রী ডা. দীপু মনি বলেছেন, বিভ্রান্তি সৃষ্টি করে বিরোধী দল আসন্ন জাতীয় সংসদ নির্বাচন এড়িয়ে যেতে চাইছে। যদি তা না হয়, তাহলে তারা অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচনের দাবি তুলতো। গতকাল পররাষ্ট্র দপ্তরে আয়োজিত সংবাদ  সম্মেলনে ‘রাজনৈতিক সংলাপ’ বিষয়ে এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এ অভিযোগ করেন। মন্ত্রী বলেন, নিরপেক্ষ নির্বাচনের দাবি-ই বিরোধী দলের মূল দাবি হওয়া উচিত ছিল। কিন্তু তাদের দাবি ভিন্ন। আর ভিন্ন দাবি বলেই সংলাপ করেও কোন লাভ হবে না। মন্ত্রীর যুক্তরাষ্ট্র সফর সম্পর্কে অবহিত করতে সংবাদ সম্মেলনটির আয়োজন করা হয়। শুরুতেই তিনি তার সফরের বিস্তারিত তুলে ধরে দীর্ঘ বক্তৃতা করেন। পরে প্রশ্নোত্তর পর্বে যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে সম্পর্ক, দেশটির নয়া পররাষ্ট্রমন্ত্রী জন কেরি’র সঙ্গে বৈঠক, জিএসপি সুবিধা পুনর্বিবেচনা, টিকফা চুক্তি, চলমান মানবতাবিরোধী অপরাধের বিচার কার্যক্রম নিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের পর্যবেক্ষণ, মাওলানা দেলাওয়ার হোসাইন সাঈদীর মামলার সাক্ষী সুখরঞ্জন বালী অপহরণ ও সমপ্রতি ভারতের কারাগারে থাকার খবর প্রকাশ এবং দেশের চলমান রাজনৈতিক পরিস্থিতি নিয়ে সাংবাদিকদের বিভিন্ন প্রশ্নের জবাব দেন। এ সময় টিকফা চুক্তি সই সম্পর্কিত এক প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী বলেন, এটি নীতিগত সিদ্ধান্তের বিষয়। চুক্তিটি সই হলে উভয়ের ‘লাভ’ হবে বলেও অভিমত প্রকাশ করেন তিনি। তবে এটি কোন অবস্থাতেই জিএসপি’র সঙ্গে সম্পর্কিত নয় বলে দাবি করেন মন্ত্রী। তার সফরে জিএসপি বহালের বিষয়ে যুক্তরাষ্ট্রের ‘ইতিবাচক’ মনোভাব দেখেছেন বলেও দাবি করেন দীপু মনি। অপর এক প্রশ্নে তিনি বলেন, টিকফা নিয়ে জন কেরির সঙ্গে সরাসরি কোন কথা হয়নি। তবে দু’দেশের বাণিজ্য বিষয়ক সহযোগিতা বাড়ানো নিয়ে বিস্তর আলোচনা হয়েছে। তার সঙ্গে দ্বিপক্ষীয় বৈঠকে উভয়ের স্বার্থ সংশ্লিষ্ট বিষয় নিয়ে আলোচনা হয়েছে জানিয়ে দীপু মনি বলেন, দেশটির বাজারে জিএসপি সুবিধা বহাল রাখাসহ রোহিঙ্গা ইস্যু ও দেশের চলমান পরিস্থিতি আলোচনায় গুরুত্ব পেয়েছে। মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রীকে বাংলাদেশ সফরের আমন্ত্রণ জানিয়েছেন উল্লেখ করে দীপু মনি বলেন, জবাবে তিনিও সফরের বিষয়ে প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন। দেশের সহিংস রাজনৈতিক পরিস্থিতি বিদেশী বিনিয়োগ বাধাগ্রস্ত করবে- বিদেশী গণমাধ্যমের এমন বক্তব্যের বিষয়ে মন্ত্রীর দৃষ্টি আকর্ষণ করা হলে তিনি ভিন্নমত পোষণ করেন। বলেন, আমার অতি সম্প্রতি শেষ হওয়া যুক্তরাষ্ট্র সফরে অনেক বিনিয়োগকারীর সঙ্গে কথা হয়েছে। বাংলাদেশে আরও বেশি বিনিয়োগে তাদের আগ্রহ আমি দেখেছি। দেশে বিচারবহির্ভূত হত্যাকাণ্ড সম্পর্কে জেনেভার মানবাধিকার বিষয়ক গণশুনানিতে দীপু মনির দাবি ‘অসত্য’ মর্মে সমপ্রতি তত্ত্বাবধায়ক সরকারের সাবেক উপদেষ্টা এডভোকেট সুলতানা কামাল যে বক্তব্য দিয়েছেন সে বিষয়ে দৃষ্টি আকর্ষণ করেন সাংবাদিকরা। জবাবে পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, আমি কোথাও বলিনি বিচারবহির্ভূত হত্যাকাণ্ড ঘটছে না। বরং আমি তুলনামূলক পরিসংখ্যান দিয়ে আগের সরকারের চেয়ে কমেছে বলে জানিয়েছি। একই সঙ্গে ক্রসফায়ারের ঘটনায় ৫০-এর অধিক পুলিশ নিহত হয়েছে বলেও তুলে ধরেছি। সুলতানা কামালকে উদ্দেশ্য করে দীপু মনি প্রশ্ন রাখেন, মানবাধিকার নিয়ে যারা কাজ করেন পুলিশ সদস্যদের মানবাধিকারের বিষয়টি কি তাদের আওতার বাইরে? পুলিশ কি মানুষ নয়? তাদের কি মানবাধিকার নেই? যদি এক্সচেঞ্জ অফ ফায়ার না হতো তাহলে এত সংখ্যক পুলিশ মরলো কিভাবে? মন্ত্রী বলেন, জেনেভায় আমার বক্তব্য শেষ হওয়ার পর পেডিয়াম থেকে নামার সঙ্গে সঙ্গে তিনি (সুলতানা কামাল) আমাকে জড়িয়ে ধরে অভিনন্দন জানিয়েছেন। আমার বক্তৃতার প্রশংসা করেছেন। আমি অসত্য বললে তিনি আমার প্রশংসা করতেন না। ভিডিও ফুটেজ থাকলে তা আজ দেখাতে পারতাম। এটিএন’র একটি ক্যামেরা অবশ্য সেখানে আমি দেখিছি। যাই হোক এতদিন পর তার এমন বক্তব্য খুবই দুঃখজনক।’ সম্প্রতি বস্ত্রমন্ত্রী আবদুল লতিফ সিদ্দিকীর মার্কিন রাষ্ট্রদূতকে লেখা চিঠির বিষয়টি ‘কূটনৈতিক শিষ্টাচার লংঘন’ কিনা জানতে চাইলে দীপু মনি বলেন, যে চিঠিটি লেখা হয়েছে তা পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জানার বাইরে ছিল। তবে পরে যতদূর জানা গেছে তাহলো- তিনি এটি ব্যক্তিগতভাবেই লিখেছেন। কোন সরকারি প্যাডে নয়। আর তা পাঠানো হয়েছে ই-মেইলে। কূটনীতিকদের চিঠি দিতে হলে সাধারণত পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমে দিতে হয় বলে মন্তব্য করেন দীপু মনি। মাওলানা দেলাওয়ার হোসাইন সাঈদীর অপহৃত হওয়া সাক্ষী সুখরঞ্জন বালী ভারতের কারাগারে রয়েছে এমন সংবাদের বিষয়ে মন্ত্রীর দৃষ্টি আকর্ষণ করা হয়। জবাবে দীপু মনি বলেন, বিষয়টি দেখতে কলকাতাস্থ বাংলাদেশ হাইকমিশনকে দায়িত্ব দেয়া হয়েছে। এরই মধ্যে নাগরিকত্ব যাচাই করতে কারাগারে আটক ১৩০ জনের তালিকা পর্যালোচনা করা হচ্ছে। বাকি নাম পাওয়ার জন্য ভারতীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সঙ্গে ঘনিষ্ঠ যোগাযোগ রাখা হচ্ছে বলেও জানান তিনি।

Share this:
Share this page via Facebook Share this page via Twitter

LIKE US on FACEBOOK নিউজ সোর্স b24/মজ / ডেস্ট