Widgetized Section

Go to Admin » Appearance » Widgets » and move Gabfire Widget: Social into that MastheadOverlay zone

সিদ্ধিরগঞ্জ রণক্ষেত্র, নিহত ১৮

নারায়ণগঞ্জ সদর উপজেলার সিদ্ধিরগঞ্জ এলাকা হেফাজত ও পুলিশের সংঘর্ষে রণক্ষেত্রে পরিণত হয়েছে। কাঁচপুর ব্রীজ থেকে সানারপাড় এলাকা পর্যন্ত সাড়ে তিন কিলোমিটর জুড়ে এ সংঘর্ষ চলছে। এ ঘটনায় ১৮ জনের মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে। আজ ভোরে সানারপাড় এলাকার মাদানীনগর মাদ্রাসায় তল্লাশি চালানোর সময় সংঘর্ষের সূত্রপাত হয়। সংঘর্ষ এখনও চলছে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে হাজার রাউন্ড গুলি নিক্ষেপ করা হয়েছে বলে প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছেন। গুলিতে নিহতরা হলেন, জসীম উদ্দিন (৩০, সিএনজি চালক), পলাশ (২৫), সাইফুল ইসলাম (২৫, ফাহিম ফ্যাশসনসের সেলস ম্যান), জাহিদুল ইসলাম সৌরভ (১৭, এসএসসি জিপিএ ৫ প্রাপ্ত শিক্ষার্থী), হান্নান (৩৫, আলামীন সোয়েটারের কর্মচারি), বাবু গাজী (৩৬, শরিয়তপুরের নড়িয়ার বাসিন্দা), মাসুম (৩০), সাদেক (৩২), হাবিবুল্লাহ (রিক্সাচালক), বিজিবি সদস্য বিজিবি’র লায়েক সুবেদার শাহ আলম (৫৫), পুলিশ কনস্টেবল জাকারিয়া মোল্লা (৪৪) ও ফিরোজুল হাসান (৫৩)। এখন হেফাজত কর্মীরা মাদানীনগর মাদ্রাসায় অবরুদ্ধ রয়েছে। তারা সেখান থেকে ইটপাটকেল নিক্ষেপ করছে। পলিশ কিছুক্ষণ পরপর গুলি করছে। স্থানীয়রা জানান, ভোরে ফজর নামাজের পর ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের নারায়ণগঞ্জের সিদ্ধিরগঞ্জের সানারপাড় এলাকার মাদানীনগর মাদ্রাসায় তল্লাশির চেষ্টা চালায় র‌্যাব ও পুলিশ। এসময় মাদ্রাসার ছাত্ররা তল্লাশি অভিযানে বাধা দিলে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা রাবার বুলেট ও টিয়ারশেল নিক্ষেপ করে। একই সময় ছাত্রলীগ ও যুবলীগের কর্মীরা লাঠিসোটা নিয়ে হামলা চালালে শুরু হয় ত্রিমুখী সংঘর্ষ। এরপর মাদ্রাসার মাইকে হেফাজতে ইসলামের কর্মীদের মাঠে নামার আহবান জানানোর পর থেকেই সর্বত্র উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে। ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের সিদ্ধিরগঞ্জের শিমরাইল মোড় থেকে সাইনবোর্ড পর্যন্ত অন্তত ৫ টি স্পটে শুরু হয় দফায় দফায় সংঘর্ষ। সানারপাড় এলাকায় পুলিশ বক্সে আগুন দিয়েছে হেফাজত কর্মীরা। সেখানে পুলিশ ও বিজিবির একাধিক গাড়ী ভাংচুরের খবর পাওয়া গেছে। অন্ততঃ ১০টি গাড়িতে আগুন ধরিয়েছে তারা। এখনও বেশ কয়েকটি গাড়িতে আগুন জ্বলছে। এদিকে মতিঝিল শাপলা চত্বরে অভিযান চালিয়ে হেফাজত কর্মীদের সরিয়ে দেয়ার পর ফুসে উঠেছে রাজধানীর পূর্বাঞ্চল। ঢাকা-চট্টগ্রাম ও ঢাকা-সিলেট মহাসড়কে অবরোধ করেছে হেফাজত কর্মীরা। তাদের সঙ্গে পুলিশের দফায় দফায় সংঘর্ষ হচ্ছে। হেফজাত কর্মীরা বেশ কয়েকটি বাসে আগুন দেয়। ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে অন্তত ৫০টি স্পটে হেফাজত কর্মীদের সাথে পুলিশ ও ছাত্রলীগ যুবলীগের সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। সংঘর্ষে আহত হয়েছে অন্তত কয়েকশ।

Share this:
Share this page via Facebook Share this page via Twitter

LIKE US on FACEBOOK নিউজ সোর্স b24/মজ / ডেস্ট