Widgetized Section

Go to Admin » Appearance » Widgets » and move Gabfire Widget: Social into that MastheadOverlay zone

এমপি উদ্ধার করলেন ভবন মালিককে, পরে লাপাত্তা

ভবন ধসের পরপরই রানা প্লাজার মালিক সোহেল রানা ও তার পিতা আবদুল খালেক লাপাত্তা হয়েছেন। রানা সাভার পৌর যুবলীগের সিনিয়র যুগ্ম আহ্বায়ক। ভবন ধসের সময় তিনি ঘটনাস্থলেই ছিলেন। পরে স্থানীয় এমপির পরামর্শে জনরোষের হাত থেকে রক্ষা পাওয়ার জন্য সটকে পড়েন। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, সকাল সাড়ে ৯টার দিকে স্থানীয় এমপি তালুকতার তৌহিদ জং মুরাদ ধ্বংসস্তুপের একটি কক্ষ থেকে তাকে উদ্ধার করেন। পরে জনরোষের হাত থেকে বাঁচানোর জন্য তিনি রানাকে নিরাপদে পাঠিয়ে দেন। এরপর রানার পিতা আবদুল খালেকও পালিয়ে যান। কয়েক দিন আগেই ভবনটিতে  ফাটল ধরা পড়ে। গত বুধবার এ সংবাদ গণমাধ্যমে প্রকাশিত হয়। এতে ওই ভবনের লোকজনের মধ্যে আতঙ্ক দেখা দেয়। একপর্যায়ে সাভার শাখা ব্র্যাক ব্যাংক কর্তৃপক্ষ বুধবার নোটিশ টাঙিয়ে তাদের কার্যক্রম বন্ধ করে দেয়। গার্মেস্টস মালিক কর্তৃপক্ষও তাদের কারখানা ছুটি দিয়ে দেয়। কিন্তু ভবনের মালিক সোহেল রানা স্থানীয় প্রভাবশালী আওয়ামী লীগ নেতাদের মাধ্যমে স্থানীয় প্রশাসনকে ম্যানেজ করে ভবনটি ঝুঁকিমুক্ত ঘোষণা করে। এরপর জোর করেই মার্কেট ও কারখানা চালু রাখে। আহত ও বেঁচে যাওয়া গার্মেন্টস কর্মীরা জানান, ছুটি ঘোষণা করার পরও বুধবার রাতে তাদের মোবাইলে ফোন দিয়ে কাজে যোগদানের নির্দেশ দেয় পোশাক কারখানা কর্তৃপক্ষ। এদিকে বিকালের দিকে সোহেল রানার পিতা আবদুল খালেককে কে বা কারা ধরে নিয়ে গেছে বলে গুজব ছড়ায়। তবে এ বিষয়ে জানতে চাইলে র‌্যাব কিংবা পুলিশের পক্ষ থেকে আটক বা  গ্রেপ্তারের সত্যতা স্বীকার করা হয়নি। র‌্যাবের ইন্টেলিজেন্স উইংয়ের পরিচালক লে. কর্নেল জিয়াউল আহসান বলেন, আমরা ভবন মালিক রানা ও তার পিতাকে খুঁজছি। এখনও গ্রেপ্তার করতে পারিনি।

Share this:
Share this page via Facebook Share this page via Twitter

LIKE US on FACEBOOK নিউজ সোর্স b24/মজ / ডেস্ট