Widgetized Section

Go to Admin » Appearance » Widgets » and move Gabfire Widget: Social into that MastheadOverlay zone

খালেদাকে গ্রেফতারের অপপ্রচার চালাচ্ছে সরকার: বিএনপি

ঢাকা: বিএনপি চেয়ারপাসন বেগম খালেদা জিয়াকে গ্রেফতারের আশঙ্কা নয়, একধরণের প্রচারণা চলছে বলে মন্তব্য করে সরকারকে এ ধরণের বিভীষিকাময় পদক্ষেপ না নিতে আহ্বান জানিয়েছেন তার উপদেষ্টা শামসুজ্জামান দুদু।

বুধবার বিকেলে বিএনপি নেতৃত্বাধীন ১৮দলীয় জোটের ডাকা টানা ৩৬ ঘণ্টার হরতাল শেষে নয়াপল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যাটলয়ে সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ কথা বলেন।

সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে দুদু বলেন, “খালেদা জিয়াকে আলাদাভাবে কখন গ্রেফতার করা হবে তা আমাদের জানা নেই। তবে সারা দেশে একধরণের প্রচারণা চলছে।এটা একধরণের মনস্তাত্বিক লড়াই।তবে তাতে কাজ হবে না, জনগণের বিজয় হবে।”

এসময় তিনি অভিযোগ করে বলেন, “কারা এ প্রচারণা চালাচ্ছে তা আমরা জানিনা, তবে সরকার এ ক্ষেত্রে বিশেষ ভুমিকা রাখছে বলে আমাদের বিশ্বাস।”

বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিবসহ জোটের কেন্দ্রীয় নেতাদের মুক্তি, ‘মিথ্যা’ মামলা প্রত্যাহার, তত্ত্বাবধায়ক সরকার পুনর্বহাল ও সরকারের পদত্যাগের দাবিতে এ হরতাল পালন করে ১৮দল।

এ সময় এক প্রশ্নের উত্তরে তিনি বলেন, “দেশব্যাপী আমরা সবাই গৃহবন্দি অবস্থায় আছি। সরকার যদি খালেদা জিয়াকে গ্রেফতার বা গৃহবন্দি করার মতো বিভীষিকাময় পদক্ষেপ নেয় তাহলে দেশের সামাজিক, অর্থনৈতিক ও রাজনৈতিক স্থিতিশীলতা নষ্ট হবে।”

“সরকার সারাজীবন ক্ষমতায় থাকার যে মাস্টারপ্ল্যান করেছে তার বিরুদ্ধে প্রতিরোধ গড়ে তোলা হবে” মন্তব্য করে তিনি বলেন, “হত্যা, গুম, নির্যাতন যতোই করুক, ভয়ভীতি যতোই দেখাক। জনগণের প্রতিরোধেরই বিজয় হবে।”

তিনি দাবি করেন, “বেগম খালেদ জিয়ার নেতৃত্বে আন্দোলন তীব্র থেকে তীব্রতর হচ্ছে। মামলা আর গ্রেফতার করে এ আন্দোলন বন্ধ করা যাবে না।সরকারের সকল বাধা মোকাবেলা করে গণঅভুত্থানের মাধ্যমে ফ্যাসিস্ট সরকারের পতন ঘটানো হবে।”

এসময় তিনি প্রথম দিনের হরতাল সফল হয়েছে বলেও দাবি করেন। বৃহস্পতিবার শিবিরের হরতালে বিএনপি সমর্থন দেবে কিনা-এমন প্রশ্নের জবাবে দুদু বলেন, “এ বিষয়ে এখনো কোনো সিদ্ধান্ত হয়নি।”

দুদু এসময় ৩৬ ঘণ্টার হরতালকে কেন্দ্র করে সোমবার থেকে সারাদেশে আটক, আহত ও মামলার শিকার নেতাকর্মীদের বিস্তারিত বিবরণ দেন।

ঢাকাসহ সারাদেশে হরতালকে কেন্দ্র করে ১৭০জনের অধিক গ্রেফতার, ও একজনকে দুই বছরের কারাদণ্ড দেয়া হয়েছে। ২৭৬ জনের অধিক নেতাকর্মী আহত হয়েছে। আর ৫০০ জনের অধিক নেতাকর্মীর বিরুদ্ধে ‘বানোয়াট’ মামলা দেয়া হয়েছে বলে দাবি করেন তিনি।

অবিলম্বে আটক নেতাদের মুক্তি ও মামলা প্রত্যাহারের দাবি করেন তিনি বলেন, “অন্যথায় ভবিষ্যতে দলের পক্ষ থেকে আরও কঠোর কর্মসূচি দেয়া হবে।”

সংবাদ সম্মেলনে আরো উপস্থিত ছিলেন, বিএনপির সহ-দফতর সম্পাদক আবদুল লতিফ জনি, শামীমুর রহমান শামিম, বেলাল হোসেন, স্বেচ্ছাসেবক দলের আমিনুল ইসলাম প্রমুখ।

Share this:
Share this page via Facebook Share this page via Twitter

LIKE US on FACEBOOK নিউজ সোর্স b24/মজ / ডেস্ট