Widgetized Section

Go to Admin » Appearance » Widgets » and move Gabfire Widget: Social into that MastheadOverlay zone

৭০ অনুচ্ছেদ চ্যালেঞ্জ করে ও রাষ্ট্রপতি নির্বাচন স্থগিত চেয়ে রিট

ঢাকা: সংবিধানের ৭০ অনুচ্ছেদকে চ্যালেঞ্জ করে এবং রাষ্ট্রপতি নির্বাচনের প্রক্রিয়া স্থগিত চেয়ে হাইকোর্টে রিট আবেদন করা হয়েছে।

মঙ্গলবার সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী ড. ইউনুস আলী আকন্দ জনস্বার্থে সুপ্রিম কোর্টের সংশ্লিষ্ট শাখায় রিট আবেদনটি দাখিল করেন।

রিট আবেদনে রাজনৈতিক দল থেকে পদত্যাগ বা দলের বিপক্ষে ভোটদানের কারণে আসন শূন্য হওয়াসংক্রান্ত সংবিধানের ৭০ অনুচ্ছেদকে কেন বাতিল ও অবৈধ ঘোষণা করা হবে না তা জানতে চেয়ে রুল জারির আবেদন করা হয়েছে। এ রুলের ওপর শুনানি না হওয়া পর্যন্ত রাষ্ট্রপতি পদে নির্বাচন প্রক্রিয়ায় স্থগিতাদেশ চাওয়া হয়েছে।

রিটে মন্ত্রিপরিষদের সচিব, আইনসচিব, সংসদবিষয়ক সচিবালয়ের সচিব ও প্রধান নির্বাচন কমিশনারকে বিবাদী করা হয়েছে।

আবেদনে বলা হয়েছে, সংবিধানের ২৭ অুনচ্ছেদ অনুযায়ী আইনের দৃষ্টিতে দেশের সব নাগরিকের সমান অধিকার। কিন্তু সংবিধানের ৭০ অনুচ্ছেদ এ অধিকারকে ক্ষর্ব করেছে।

আবেদনে আরো বলা হয়, এ অনুচ্ছেদ বহাল থাকার কারণে নিরপেক্ষ কোনো ব্যক্তি রাষ্ট্রপতি পদে প্রার্থী হওয়ার সুযোগ পাচ্ছেন না। এতে তাদের অধিকার ক্ষর্ব হয়েছে। বর্তমান সংবিধান অনুযায়ী রাষ্ট্রপতি প্রার্থী হতে হলে তার প্রস্তাবক ও সমর্থক হতে হবে কোনো সংসদ সদস্যকে। দলীয় প্রার্থী ছাড়া কোনো সংসদ সদস্য প্রস্তাবক ও সমর্থক হতে পারছেন না। কারণ সংবিধানের ৭০ অনুচ্ছেদ অনুযায়ী দলীয় প্রার্থীর বাইরে অন্য কোনো প্রার্থীকে সমর্থন দিলে সংসদ সদস্যপদ খারিজ হয়ে যাবে।

রিট আবেদনে বলা হয়, ৭০ অনুচ্ছেদ সংবিধানের ৭(১), ১৯(১,৩), ২৬, ২৭, ও  ১১৯ অনুচ্ছেদের সঙ্গে সাংঘর্ষিক।

প্রসঙ্গত, সংবিধানের ৭০ অনুচ্ছেদে বলা হয়েছে, ‘নির্বাচনে কোন রাজনৈতিক দলের প্রার্থীরূপে মনোনীত হইয়া কোন ব্যক্তি সংসদ-সদস্য নির্বাচিত হইলে তিনি যদি (ক) উক্ত দল হইতে পদত্যাগ করেন, অথবা (খ) সংসদে উক্ত দলের বিপক্ষে  ভোটদান করেন, তা হইলে সংসদে তাহার আসন শূন্য হইবে, তবে তিনি সেই কারণে পরবর্তী কোন নির্বাচনে সংসদ-সদস্য হইবার অযোগ্য হইবেন না।’

রিট আবেদনকারী আইনজীবী ড. মুহাম্মদ ইউনুস আলী আকন্দ নতুন বার্তাকে বলেন, রাষ্ট্রপতি পদটি নিরপেক্ষ। কিন্তু ৭০ অনুচ্ছেদের কারণে নিরপেক্ষ যোগ্য ব্যক্তিরা রাষ্ট্রপতি নির্বাচনে অংশ নিতে পারছেন না।  তিনি বলেন, ৭০ অনুচ্ছেদ জনগণের মৌলিক অধিকার খর্ব করেছে। এ কারণে রিট করা হয়েছে।

বুধবার আবেদনটি শুনানির জন্য বিচারপতি কাজী রেজা-উল-হক ও বিচারপতি এ বি এম আলতাব হোসেনের সমন্বয়ে গঠিত বেঞ্চে উপস্থাপন করা হতে পারে বলে তিনি জানান।

গত ২০ মার্চ জিল্লুর রহমানের মৃত্যুর পর রাষ্ট্রপতি পদটি শূন্য হয়। এরপর এ পদে অস্থায়ী রাষ্ট্রপতির দায়িত্ব পান জাতীয় সংসদের স্পিকার অ্যাডভোকেট আবদুল হামিদ। মঙ্গলবার নির্বাচন কমিশন দেশের ২০তম রাষ্ট্রপতি নির্বাচনের জন্য আগামী ২৯ এপ্রিল ভোট নেয়ার দিন ধার্য করেন।

Share this:
Share this page via Facebook Share this page via Twitter

LIKE US on FACEBOOK নিউজ সোর্স b24/মজ / ডেস্ট