Widgetized Section

Go to Admin » Appearance » Widgets » and move Gabfire Widget: Social into that MastheadOverlay zone

বিরোধী নেতার কার্যালয়ে গুলিবর্ষণে সরকার জড়িত: ফখরুল

বিরোধী নেতা খালেদা জিয়ার কার্যালয়ে গুলিবর্ষণের ঘটনায় সরাসরি ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগকেই দায়ী করেছে বিএনপি। এর প্রতিবাদে ৪ঠা এপ্রিল সারা দেশে প্রতিবাদ সমাবেশ করবে দলটি। সন্ধ্যায় বিএনপি চেয়ারপারসনের গুলশান কার্যালয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে দলের ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর এ অভিযোগ করেন। তিনি বলেন, বিরোধী দলীয় নেতার গুলশানের কার্যালয়কে লক্ষ্য করে আওয়ামী লীগের সন্ত্রাসীর গুলি করেছে। ওই ঘটনার প্রতিবাদে আজকের শান্তিপূর্ণ প্রতিবাদ সমাবেশে শেষ হওয়ার পর গণমাধ্যমসহ কয়েকটি গাড়িতে অগ্নিসংযোগ ও ককটেল বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটেছে। এই ঘটনার সঙ্গে সরকারের মদদপুষ্ঠ সন্ত্রাসীরাই জড়িত। এ ঘটনায় আমরা উদ্বিগ্ন-উৎকণ্ঠিত। এটা গণতন্ত্রের প্রতি চরম আঘাত। আমরা এসব ঘটনার নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি। সেই সঙ্গে গুলিবর্ষণের ঘটনায় জড়িতদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানাই। মির্জা আলমগীর বলেন, বিরোধী দলীয় নেতার কার্যালয়ে সরকারি দলের সন্ত্রাসীরা গুলি করে। এ ঘটনা থেকে প্রমাণ হয়, দেশে কোন আইনের শাসন নেই। মানুষের জান-মালের নিরাপত্তা নেই। গুলশান ডিপ্লোম্যাটিক এলাকা। এ এলাকায় এ ধরনের ঘটনায় প্রমাণ হয়, সরকার আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে সম্পূর্ণ ব্যর্থ। বিএনপি মহাসচিব বলেন,  দুপুরে নয়াপল্টনে বিএনপির প্রতিবাদ সমাবেশে ককটেল বিস্ফোরণ ও গাড়ি পোড়ানোর ঘটনাতেও সরকারের মদতপুষ্ট সন্ত্রাসীরা জড়িত। গত ২রা মার্চ থেকেই বিএনপির শান্তিপূর্ণ কর্মসূচিতে এভাবে আঘাত করা হচ্ছে। দেখা গেছে, পুলিশি বাহিনী আমাদের মিছিল ও মিটিং সরাসরি গুলি করেছে। বিনা উস্কানিতে রাবার বুলেট, টিয়ার শেল ছুঁঁড়ে উল্টো বিএনপি নেতাকর্মীদের নামে মিথ্যা মামলা দেয়া হচ্ছে। ৬ই মার্চের সমাবেশেও অনুরূপ ঘটনা ঘটানো হয়েছে। ১১ই মার্চ তারা আর অল্পতে ক্ষ্যান্ত হয়নি। দু’টি গেট ভেঙে দলীয় কার্যালয়ের ভেতরে ঢুকে নির্যাতন চালিয়েছে। নেতাকর্মীদের আটক করে মিথ্যা মামলা দিয়েছে। আজ পর্যন্ত  তাদের মুক্তি দেয়া হয়নি। মির্জা আলমগীর বলেন, চেয়ারপারসনের কার্যালয়ে গুলিবর্ষণের প্রতিবাদে ৪ঠা এপ্রিল সারাদেশে প্রতিবাদ সমাবেশ হবে। এছাড়া তত্ত্বাবধায়ক সরকার পদ্ধতি পুনর্বহাল, আটক নেতাকর্মীদের মুক্তি দাবি, সরকারের পদত্যাগ ও গণহত্যা বন্ধের প্রতিবাদে আগামী ১০ই এপ্রিল সমাবেশ হবে নয়াপল্টনে। এ সময় তিনি আজকের সকাল-সন্ধ্যা হরতাল সফল করার জন্য দেশবাসীর প্রতি আহবান জানান। বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব নয়াপল্টনে গণমাধ্যমে গাড়িতে অগ্নিসংযোগের ঘটনার তীব্র নিন্দা জানান। বিরোধী নেতা খালেদা জিয়া ওই সমাবেশে বক্তব্য দেবেন। সংবাদ সম্মেলনে দলের যুগ্ম মহাসচিব সালাহউদ্দিন আহমেদ, সহ দপ্তর সম্পাদক আবদুল লতিফ জনি উপস্থিত ছিলেন।

Share this:
Share this page via Facebook Share this page via Twitter

LIKE US on FACEBOOK নিউজ সোর্স b24/মজ / ডেস্ট