Widgetized Section

Go to Admin » Appearance » Widgets » and move Gabfire Widget: Social into that MastheadOverlay zone

সাক্ষাৎ চান গণজাগরণ প্রতিনিধিরা, রাজি নন আল্লামা শফী

হাটহাজারী: যুদ্ধাপরাধীদের ফাঁসির দাবিতে গঠিত গণজাগরণ মঞ্চের প্রতিনিধিরা দেশের বয়োবৃদ্ধ আলেম, হেফাজতে ইসলামের প্রধান, হাটহাজারী মাদ্রাসার মহাপরিচালক আল্লামা আহমদ শফীর সঙ্গে সাক্ষাৎ করতে চান। তবে আল্লামা শফী সাফ জানিয়ে দিয়েছেন, তিনি ‘নাস্তিক’ ব্লগারদের বিচার না হওয়া পর্যন্ত তাদের সঙ্গে আলোচনায় বসবেন না।

গণজাগরণ মঞ্চের প্রতিনিধি দল আল্লামা শফীর সঙ্গে আলোচনা করতে আসছেন মর্মে কয়েকটি সংবাদমাধ্যমে খবর প্রকাশিত হওয়ার পরিপ্রেক্ষিতে দারুল উলূম হাটহাজারী মাদ্রাসার মহাপরিচালকের কার্যালয়ে হেফাজতে ইসলাম নেতারা বুধবার সকাল ১০টায় এক জরুরি বৈঠক করেন।

বৈঠকে আল্লামা শাহ্ আহ্মদ শফী ওই প্রতিনিধি দলের সঙ্গে তার আলোচনার খবরকে সম্পূর্ণ বিভ্রান্তিকর এবং তৌহিদী জনতাকে ধোঁকা দেয়ার নতুন ষড়যন্ত্র বলে আখ্যায়িত করেন।

আল্লামা শফী বলেন, “শাহবাগের আন্দোলনে নেতৃত্ব দানকারী ব্লগাররা প্রিয়নবী সা.-এর  বিরুদ্ধে যে জঘন্য অবমাননা করেছে, তা জাতির কাছে দিবালোকের মতো স্পষ্ট হয়ে গেছে। মহান আল্লাহ্, নবী-রাসুল, ইসলাম, মুসলমান, ওলামা-মাশায়েখ, ইসলামি কৃষ্টি কালচার পর্দা, দাড়ি-টুপিসহ ইসলামি আদর্শ ও সংস্কৃতির বিরুদ্ধে ওই ব্লগারদের অপতৎপরতার ব্যাপারে কোটি কোটি রাসুলপ্রেমী মুসলমানের মনে কোনো সন্দেহ নেই। সুতরাং তাদের সঙ্গে আলোচনার প্রশ্নই আসে না।”

আল্লামা শফী আরো বলেন, “যেখানে রাসুলের শত্রু নাস্তিক ব্লগারদের ওলি-আউলিয়ার পুণ্যভূমি চট্টগ্রামে প্রবেশ কঠোরভাবে প্রতিহত করা হচ্ছে, সেখানে তাদের সঙ্গে আলোচনার প্রশ্ন আসে কী করে! অবিলম্বে ইসলাম ও প্রিয়নবী সা.-এর অবমাননাকারী নাস্তিক ব্লগারদের কঠোর শাস্তি নিশ্চিত করুন।”

আল্লামা শাহ্ আহ্মদ শফী তৌহিদী জনতাকে বিভ্রান্তিকর কোনো খবরে কান না দিয়ে ওলি-আউলিয়ার পুণ্যভূমি চট্টগ্রামসহ দেশের সর্বত্র নাস্তিক ব্লগারদের কঠোর প্রতিরোধের আহ্বান জানিয়ে বলেন, “যেখানেই তারা প্রবেশের চেষ্টা করবে, সেখানেই তাদের কঠোর প্রতিরোধ করতে হবে।”

বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন- হেফাজতে ইসলামের কেন্দ্রীয় নায়েবে আমির মুহাদ্দিস আল্লামা শামসুল আলম, মহাসচিব আল্লামা হাফেজ মো. জুনায়েদ, মাওলানা আশ্রাফ আলী নিজামপুরী, মাওলানা মুনির আহ্মদ ও মাওলানা শফিউল আলম।

উল্লেখ্য, গণজাগরণ মঞ্চ চট্টগ্রামে মহাসমাবেশ আহ্বান করলে তা প্রতিহতের ঘোষণা দেয় হেফাজতে ইসলাম। বুধবার একই স্থানে গণজাগরণ ও হেফাজত মহাসমাবেশ আহ্বান করায় প্রশাসন চট্টগ্রাম মহানগরীজুড়ে ১৪৪ ধারা জারি করে। এ পরিপ্রেক্ষিতে উভয় সংগঠনই তাদের কর্মসূচি স্থগিত করে।

Share this:
Share this page via Facebook Share this page via Twitter

LIKE US on FACEBOOK নিউজ সোর্স b24/মজ / ডেস্ট