Widgetized Section

Go to Admin » Appearance » Widgets » and move Gabfire Widget: Social into that MastheadOverlay zone

‘আর ধৈর্য নয়’

আওয়ামী লীগ সভানেত্রী ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বিএনপি-জামায়াতকে হুঁশিয়ারি দিয়ে বলেছেন, আপনারা ধ্বংসযজ্ঞ চালাবেন, মানুষ হত্যা করবেন আর আমরা আঙ্গুল চুষবো? সরকারকে এতে দুর্বল ভাববেন না। অনেক ধৈর্য ধরেছি, আর ধৈর্য নয়। আজ বিকালে ঐতিহাসিক ৭ই মার্চ উপলক্ষে আওয়ামী লীগ আয়োজিত আলোচনা সভায় তিনি এসব কথা বলেন। রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে আয়োজিত অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী বলেন, যারা সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড চালিয়ে মানুষ হত্যা, দেশীয় সম্পদ নষ্ট করছে তাদের মোকাবিলায় সারাদেশে ‘সন্ত্রাস প্রতিরোধ কমিটি’ গঠনের জন্য ডিসিদের কাছে চিঠি পাঠাতে মন্ত্রিপরিষদ সচিবকে নির্দেশ দেয়া হয়েছে। এই কমিটিতে আলেম, ওলামা ও মসজিদের ঈমামসহ সর্বস্তরের মানুষকে অন্তর্ভুক্ত করা হবে। যারা সন্ত্রাস চালাবে তাদের পর্যবেক্ষণ এবং নাম ঠিকানা শনাক্ত করার মাধ্যমে রাজনৈতিক দলগুলোর নেতাকর্মীরা সন্ত্রাস প্রতিরোধ কমিটিকে সহযোগিতা করবে।
বিএনপিকে নয়া পাকিস্তানি দালাল হিসেবে আখ্যায়িত করে শেখ হাসিনা বিরোধী দলীয় নেত্রীর উদ্দেশে বলেন, ধ্বংসাত্মক কার্যক্রম বন্ধ করুন।
শেখ হাসিনা বলেন, পঁচাত্তরের ১৫ই আগস্টে বঙ্গবন্ধু হত্যার পর সংবিধান লঙ্ঘন করে অবৈধভাবে ক্ষমতা দখল করেন জিয়াউর রহমান। এরপর তিনি মার্শাল ল’ জারি করে যুদ্ধাপরাধীদের বিচার বন্ধ করে দেন। মুক্তিযুদ্ধের চেতনা একে একে ধ্বংস করে দেন। স্বাধীনতার পর বঙ্গবন্ধু মদ, জুয়ার লাইসেন্স বাতিল করলেও জিয়াউর রহমান তা চালু করেন। মুখে ধর্মের দোহাই দিয়ে সকল বেধর্মী কাজ করেন। এখন আবার একই কাজ তারা করছেন। জায়নামাজে আগুন দিচ্ছেন, জুমার নামাজ শেষ হওয়ার আগেই ধ্বংসাত্মক কাজে লিপ্ত হচ্ছে। পুলিশসহ সারাদেশে মানুষ খুন, দেশের সম্পদ ক্ষতি করছে। প্রকৃতিও তাদের হাত থেকে রেহাই পাচ্ছে না। হাজার হাজার গাছ তারা কেটে ফেলেছে। প্রকৃতির প্রতিও যেন তারা বৈরী। আর বিরোধী দলীয় নেত্রী এদের সঙ্গে হাত মিলাচ্ছেন। তাদের সমর্থন করছেন। তাদের নিয়ে যত রাজনীতি। তিনি মুক্তিযোদ্ধা ও স্বাধীনতার ঘোষকের স্ত্রী দাবি করেন, আবার স্বাধীনতার বিরোধীদের পক্ষ অবস্থান নেন। এর জবাব কী তিনি জনগণকে দিতে পারবেন? প্রধানমন্ত্রী বলেন, এতগুলো হত্যাকাণ্ডের দায় বিরোধীদলীয় নেত্রীকেই নিতে হবে।
খালেদা জিয়ার নির্দেশ দিয়ে জামায়াত-শিবির দেশে তাণ্ডব চালাচ্ছে উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, খালেদা জিয়া একদিকে তাণ্ডবের নির্দেশ দিচ্ছেন, অন্যদিকে হিন্দু বাড়িঘরের হামলার জন্য সহানুভূতি জানিয়ে বিবৃতি দিচ্ছেন। সর্প হয়ে দর্শন করে, আবার ওঝা হয়ে ঝাড়ছেন। চমৎকার খেলা খেলছেন তিনি।
প্রণব মুখার্জির সঙ্গে সাক্ষাৎ বাতিল করায় খালেদা জিয়ার সমালোচনা করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, কিছু দিন আগে ভারত সফরে গিয়েছিলেন। বেশ আয়েশ করে পায়েশ খেয়ে এলেন। অথচ দেশে ভারতের রাষ্ট্রপতি আসার পরও দেখা করলেন না। হরতাল দেয় জামায়াত, আর সেই হরতাল পালন করেন খালেদা জিয়া।

Share this:
Share this page via Facebook Share this page via Twitter

LIKE US on FACEBOOK নিউজ সোর্স b24/মজ / ডেস্ট