Widgetized Section

Go to Admin » Appearance » Widgets » and move Gabfire Widget: Social into that MastheadOverlay zone

ফাঁসির দাবিতে আন্দোলন চালিয়ে যাওয়ার শপথ

যুদ্ধাপরাধীদের ফাঁসি ও স্বাধীনতার বিরোধীদের প্রতিষ্ঠান বয়কটের দাবিতে দেশব্যাপী আন্দোলন চালিয়ে যাওয়ার শপথ করা হয়েছে শাহবাগ স্কয়ারের মহাসমাবেশ থেকে। মুক্তিযুদ্ধের সময় খুন, গণহত্যা, লুণ্ঠন, অগ্নিসংযোগ ও ধর্ষণকারীদের সর্বোচ্চ শাস্তি, জামায়াতে ইসলামীকে নিষিদ্ধ করা, এই সংগঠন পরিচালিত সব ব্যবসা প্রতিষ্ঠান, মিডিয়া ও শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বর্জনের দাবিতে গণমানুষকে নিয়ে সারা দেশে আন্দোলন চালিয়ে যেতে শপথ পাঠ করেন মুষ্টিবদ্ধ লাখো মানুষ। শাহবাগের বাতাস কাঁপিয়ে উচ্চারিত হয়েছে সব যুদ্ধাপরাধীদের ফাঁসির দাবি। জামায়াত নেতা আবদুল কাদের মোল্লার ফাঁসির দাবিতে চলা টানা চারদিনের অবস্থান সমাবেশ থেকে গতকাল বিকালে অনুষ্ঠিত মহাসমাবেশ পরিণত হয় প্রতিবাদী মানুষের মহাসমুদ্রে। নানা শ্রেণী পেশার লাখো মানুষ দৃপ্ত কণ্ঠে উচ্চারণ করেছেন স্বাধীনতা বিরোধী যুদ্ধাপরাধীদের বিচারের দাবি। বিকাল তিনটায় শুরু হওয়া এই সমাবেশে চলে সন্ধ্যা পর্যন্ত। এতে ছাত্র ও যুব নেতাদের পাশাপাশি দেশের বিশিষ্টজনরা সংহতি প্রকাশ করে বক্তব্য রাখেন। সংহতি প্রকাশ করেন বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের নেতারা। তবে সমাবেশের আয়োজকরা আগেই ঘোষণা দিয়েছিলেন এটি দলনিরপেক্ষ সমাবেশ। তাই কোন রাজনৈতিক দলের নেতাদের মঞ্চে দেখা যায়নি। সমাবেশে গেলেও বক্তব্য দেয়ার সুযোগ পাননি কেউ। সমাবেশে অংশ নেয়া মুক্তিযুদ্ধের সেক্টর কমান্ডার, বিশিষ্ট লেখক, সাংবাদিক, সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্বরা তাদের বক্তব্যে নতুন প্রজন্মের এই প্রতিবাদী আয়োজনকে আরেক মুক্তিযুদ্ধ বলে উল্লেখ করেছেন। বলেছেন, যারা এই প্রতিবাদে অংশ নিয়েছেন তারা এই প্রজন্মের এক একজন মুক্তিযোদ্ধা। রণাঙ্গনে যুদ্ধ করা বীর সেনানীরা বলেছেন, প্রতিবাদী এই তরুণরাই আগামী দিনে বাংলাদেশের স্বাধীনতা সার্বভৌমত্ব সমুন্নত রাখবে। নিরাপদ রাখবে। ব্লগার এন্ড অনলাইন এক্টিভিস্ট নেটওয়ার্ক নামের ব্লগারদের একটি সংগঠন শাহবাগ প্রতিবাদের সূচনা করেছিলেন। গতকালের সবাবেশের চাবিও ছিল তাদের হাতে। এই সংগঠনের আহবায়ক ইমরান এইচ সরকার সভাপতিত্ব করেন সমাবেশে। সমাবেশে শেষে তিনিই শপথ বাক্য পাঠ করান উপস্থিত লাখো মানুষকে। এই তরুণের সঙ্গে হাত তুলে শপথ করেন মুক্তিযোদ্ধাসহ ছাত্র-যুব সমাজ। শপথ বাক্য পাঠ করানোর পর তিনি শাহবাগের অবস্থান কর্মসূচী চালিয়ে যাওয়ারও ঘোষণা দেন।
বিকাল ৩টায় শাহবাগ মোড়ে দুটি ট্রাকে তৈরি অস্থায়ী মঞ্চ থেকে চরমপত্র পাঠের মধ্য দিয়ে শুরু হয় প্রতিবাদ সমাবেশ। শুরুতে দাঁড়িয়ে সমবেত কণ্ঠে গাওয়া হয় জাতীয় সঙ্গীত। এরপর শুরু হয় ছাত্র ও যুব সংগঠনের নেতাদের বক্তব্য। পরে দেশের বিশিষ্টজনরা সংহতি প্রকাশ করেন। সমাবেশের প্রথম পর্ব উপস্থাপন করেন টিভি উপস্থাপক অঞ্জন রায়। দ্বিতীয় পর্ব পরিচালনা করেন মুক্তিযুদ্ধের সংগঠক নাসির উদ্দিন ইউসূফ বাচ্চু।

Share this:
Share this page via Facebook Share this page via Twitter

LIKE US on FACEBOOK নিউজ সোর্স b24/মজ / ডেস্ট