Widgetized Section

Go to Admin » Appearance » Widgets » and move Gabfire Widget: Social into that MastheadOverlay zone

বিরোধী দলীয় সাংসদদের মানববন্ধন : সংসদে তত্ত্বাবধায়ক বিল আনার দাবি

BNP ২৭ জানুয়ারি : বিরোধীদলীয় চীফ হুইপ জয়নুল আবেদীন ফারুক বলেন, আমরা দেশের কথা জনগণের কথা বলতে সংসদে যেতে চাই। নির্দলীয় তত্ত্বাবধায়ক সরকারের বিল আনুন আমরা সংসদে যেতে প্রস্তুত।
সংসদে শীতকালীন অধিবেশনের প্রথম দিনে রাষ্ট্রপতির কাছে এই দাবি জানান তিনি।

রোববার সকালে সংসদ ভবনের পূর্ব গেইটে বিরোধী দলীয় সংসদ সদস্যদের এক মানববন্ধনে তিনি এই কথা বলেন।

নির্দলীয় তত্ত্বাবধায়ক সরকার পুন:প্রতিষ্ঠা ও বিরোধী দলীয় নেতা খালেদা জিয়ার নামে মিথ্যা মামলা প্রত্যাহারের দাবিতে বিরোধী দলীয় সংসদ সদস্যরা এই মানব বন্ধন পালন করেন।

জয়নুল আবেদীন ফারুক আরও বলেন, বর্তমানে  দেশে কুশাসন, হত্যা-গুম ও বিরোধী দল দমনের রাজনীতি চলছে। তিন বারের প্রধান মন্ত্রী খালেদা জিয়ার নামে মিথ্যা মামলা দিয়ে তাকে কাঠগড়ায় দাড় করানো হয়েছে।

সংসদে কথা বলার নিশ্চয়তা চেয়ে তিনি বলেন, আমরা বিশ্বাস করি সংসদে কথা বলা উচিত। কিন্তু আমরা যেতে চাই ফেলানীর কথা, হত্যা গুমের কথা, সাগর রুনির কথা, হলমার্কের দুর্নীতির সাথে কারা জড়িত তাদের কথা, শেয়ারবাজার লুটের সাথে কারা কারা জড়িত তাদের কথা বলার জন্য। কিন্তু সরকার আমাদের কথা বলার নিশ্চয়তা দিচ্ছে না। আমরা জনগণের কথা বলার নিশ্চয়তা চাই।

রাষ্ট্রপতিকে উদ্দেশ্য করে ফারুক বলেন, আপনি কিছুক্ষন পর সংসদে বক্তব্য দিবেন। লক্ষ্য করবেন, আপনার ডান পাশের আসনগুলো খালি। আপনি প্রধানমন্ত্রীকে জিজ্ঞেস করেন আজকে চার বছর বিরোধী দল কেন সংসদে যায় না। আমরা সংসদে যেতে চাই দেশের স্বাধীনতা সার্বভৌমত্ব রক্ষার কথা বলতে। কারো গালি শুনতে না। আপনি নির্দলীয় সরকার বিল আনুন আমরা সংসদে যেতে প্রস্তুত।

খালেদা জিয়ার মামলা প্রত্যাহারের দাবি জানিয়ে ফারুক বলেন, আজকে আমাদের নেত্রী আদালতের কাঠগড়ায়, মির্জা ফখরুল কারাগারে আমরা কিভাবে সংসদে যাব। প্রধানমন্ত্রী দুর্নীতি মামলার আসামী হয়ে নিজের ক্ষমতার জোরে মামলা প্রত্যাহার করেছেন আর বিরোধী দলীয় নেতা কর্মীদের সাজানো মামলায় আটক করছেন। এই অবস্থায় সংসদে গিয়ে আমরা কি করব?

প্রধানমন্ত্রীকে তিনি বলেন, আপনি আত্মস্বীকৃত খুনি দুর্নীতিবাজদের পাশে বসিয়ে দেশ পরিচালনা করছেন। বিরোধী নেতাদের উপর নির্যাতন কারী পুলিশকে পুরস্কার দিচ্ছেন। আমরা কী তাদের স্বীকৃতি দিতে সংসদে যাব?

ফারুক বলেন, খালেদা জিয়া টেকনাফ থেকে তেতুলিয়া গিয়ে জনগণকে আন্দোলনে সম্পৃক্ত করছেন। দাবি না মানলে জনগণ তাদের দাবি আদায় করে ছাড়বে। আগামী নির্বাচন নির্দলীয় সরকারের অধীনেই হবে।

মানব বন্ধনে অধিকাংশ বিরোধী দলীয় সাংসদ উপস্থিত ছিলেন। এছাড়া সংরক্ষিত নারী সাংসদেরাও মানব বন্ধনে অংশ নেন।

নির্দলীয় সরকারের দাবি জানিয়ে ও সরকারের বিভিন্ন কর্মকান্ডের সমালোচনা করে বক্তব্য রাখেন বিরোধী দলীয় সাংসদ মে.জে (অব.) মাহবুবুর রহমান, মাহবুবু উদ্দিন খোকন, রাশেদা বেগম হীরা, সৈয়দা আশিফা আশরাফি পাপিয়া প্রমুখ।