Widgetized Section

Go to Admin » Appearance » Widgets » and move Gabfire Widget: Social into that MastheadOverlay zone

ষষ্ঠ আন্তর্জাতিক শিশু চলচ্চিত্র উৎসব শুরু

 ২০ জানুয়ারি : চিলড্রেনস ফিল্ম সোসাইটি বাংলাদেশের উদ্যোগে গতকাল থেকে শুরু হয়েছে ষষ্ঠ আন্তর্জাতিক শিশু চলচ্চিত্র উৎসব। ২৫শে জানুয়ারি পর্যন্ত দেশের সব বিভাগীয় শহরে একযোগে অনুষ্ঠিত হবে এ উৎসব। প্রতিবারের মতো এবারও বেশ ভিন্ন আঙ্গিকে সাজানো হয়েছে এ উৎসবকে।  ‘ফ্রেমে ফ্রেমে আগামীর স্বপ্ন’ স্লোগানকে সঙ্গে নিয়ে গতকাল বিকাল চারটায় অনুষ্ঠিত হয় উৎসবের উদ্বোধনী অনুষ্ঠান। ঢাকার কেন্দ্রীয় পাবলিক লাইব্রেরি চত্বর ও বাংলা একাডেমীর আবদুল করিম সাহিত্যবিশারদ মিলনায়তনে এ উদ্বোধনী অনুষ্ঠান হয় দুটি পর্বে। অনুষ্ঠানে সম্মানীত অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ড. মুহম্মদ জাফর ইকবাল, বাংলাদেশে ইউনিসেফের প্রতিনিধি প্যাসকেল ভিলেনিউভ। এছাড়াও বিশেষ অতিথি ছিলেন কানাডিয়ান চলচ্চিত্র নির্মাতা ন্যান্সি ট্রিটস বটকিন। বিকাল ৪টায় উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের প্রথম পর্বে কেন্দ্রীয় পাবলিক লাইব্রেরি চত্বরে অনুষ্ঠিত হয় উদ্বোধনী সংগীত, পতাকা উত্তোলন ও জাতীয় সংগীত। এরপর আগত অতিথিরা একসঙ্গে পায়রা ও বেলুন উড়িয়ে এই ষষ্ঠ শিশু চলচ্চিত্র উৎসবের উদ্বোধন করেন। এরপর ৪টা ১৫ মিনিটে কেন্দ্রীয় পাবলিক লাইব্রেরি থেকে বাংলা একাডেমী পর্যন্ত হয় শোভাযাত্রা। অনুষ্ঠানের দ্বিতীয় পর্বে বাংলা একাডেমীর আবদুল করিম সাহিত্যবিশারদ মিলনায়তনে শুভেচ্ছা বক্তব্য প্রদান করেন অতিথিরা। এরপর অনুষ্ঠিত হয় প্রদীপ প্রজ্বলন ও চলচ্চিত্র প্রদর্শনী। এবারের উৎসবে সারাদেশে মোট ২২টি স্থানে ৪২টি দেশের দুই শতাধিক শিশুতোষ চলচ্চিত্র প্রদর্শিত হবে। ঢাকায় মূল উৎসব কেন্দ্র হিসেবে ব্যবহৃত হবে কেন্দ্রীয় পাবলিক লাইব্রেরি চত্বর ও শওকত ওসমান মিলনায়তন। এছাড়া ঢাকায় সাতটি, চট্টগ্রামে সাতটি, রাজশাহীতে চারটি এবং রংপুর, খুলনা, সিলেট ও বরিশালে একটি করে ভেন্যু থাকবে। প্রতিদিন সকাল ১১টা, দুপুর ২টা, বিকাল ৪টা ও সন্ধ্যা ৬টায় মোট ৪টি করে প্রদর্শনী অনুষ্ঠিত হবে। উৎসবের সব প্রদর্শনী শিশুদের জন্য উন্মুক্ত থাকবে। ইউনিসেফ এ ব্যাপারে বিশেষ সহযোগিতা দিচ্ছে। এছাড়া শিশু প্রতিনিধিদের জন্য সপ্তাহব্যাপী থাকবে কর্মশালা, সেমিনার, বিশিষ্টজনদের সঙ্গে অন্তরঙ্গ আলাপচারিতাসহ নানা আয়োজন। ঢাকার উৎসবে এবারও সারাদেশ থেকে ১২৫ জন শিশু প্রতিনিধিকে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে। বাংলাদেশের শিশুদের নির্মিত চলচ্চিত্রের প্রতিযোগিতা বিভাগে প্রাথমিকভাবে মনোনীত ৬০টি ছবি থেকে পাঁচটিকে পুরস্কৃত করা হবে। পুরস্কার হিসেবে থাকছে ক্রেস্ট, সার্টিফিকেট ও ছবি নির্মাণের জন্য ২৫ হাজার টাকার আর্থিক প্রণোদনা। এবারের উৎসবে ৬ বিদেশী অতিথিও অংশ নিচ্ছেন। তারা হচ্ছেন  কানাডার চলচ্চিত্রকার ন্যান্সি ট্রিটস বটকিন ও প্রযোজক মার্ক শেক্টার, সিঙ্গাপুরের বিশিষ্ট চলচ্চিত্র সমালোচক ও সংগঠক ফিলিপ চিয়াহ, যুক্তরাজ্যের ড্যানিয়েল স্মিথ ও ইতালির চলচ্চিত্র নির্মাতা গিউসেপ ক্যারিয়েরি।