Widgetized Section

Go to Admin » Appearance » Widgets » and move Gabfire Widget: Social into that MastheadOverlay zone

আখেরি মোনাজাতের মধ্য দিয়ে আজ শেষ হচ্ছে বিশ্ব ইজতেমা

 ঢাকা, ২০ জানুয়ারি : বিশ্ব ইজতেমার দ্বিতীয় পর্বের আখেরি মোনাজাত আজ । এর মধ্য দিয়ে শেষ হবে ৪৮তম বিশ্ব ইজতেমা। ঢাকার পাশে গাজীপুরের টঙ্গীতে তুরাগ নদের তীরে ছয় দিনের বিশ্ব ইজতেমার প্রথম পর্ব শুরু হয়েছিল ১১ জানুয়ারি। ১৮ জানুয়ারি শুরু হয় দ্বিতীয় পর্ব। দুই পর্বে আনুমানিক ১৪ হাজার বিদেশি মেহমানসহ ৭০ লাখ ধর্মপ্রাণ মানুষ এবারের ইজতেমায় অংশ নিচ্ছে বলে আয়োজকরা ধারণা করছে।
ইজতেমার ব্যবস্থাপনাবিষয়ক জিম্মাদার গিয়াস উদ্দিন জানান, দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে আখেরি মোনাজাত হওয়ার কথা রয়েছে। তবে এ পর্বের আখেরি মোনাজাতে রাষ্ট্রপতি, প্রধানমন্ত্রী ও বিরোধীদলীয় নেতা অংশ নিচ্ছেন না। আখেরি মোনাজাত বয়ান মঞ্চ থেকে সরাসরি বেতার ও টেলিভিশনে সম্প্রচারে তাবলিগ জামাতের পক্ষ থেকে কোনো অনুমতি দেওয়া হয়নি। প্যান্ডেলের বাইরে থেকে সাধারণ মুসল্লিদের চিত্রসহ মোনাজাত সম্প্রচারে বিভিন্ন গণমাধ্যম উদ্যোগ নিচ্ছে বলে জানা যায়।
শনিবার ইজতেমা ময়দানে বাদ ফজর থেকে বাদ মাগরিব পর্যন্ত ইমান, আমল, আখলাক ও ছয় উছুলের হাকিকত সম্পর্কে মুরবি্বরা আমবয়ান করেন । এ ছাড়া বিভিন্ন তাশকিল ও খেত্তায় সকাল ৯টা থেকে দুপুর ১২টা পর্যন্ত বিষয় ও পেশাভিত্তিক খাস বয়ান করা হয়। বাদ এশা বিভিন্ন আমল ও জিকির-আজকারে মুসলি্লরা সময় কাটান। রোববার বাদ ফজর থেকে হেদায়েতি বয়ান পেশ করা হবে।
তাবলিগের রেওয়াজ অনুসারে শনিবার ইজতেমার দ্বিতীয় দিন বাদ আসর বয়ান মঞ্চে শতাধিক যৌতুকহীন বিয়ে সম্পন্ন হয়।
বয়ান : শনিবার বাদ ফজর বয়ান করেন মাওলানা জামিল আহমদ, বাদ জোহর বয়ান করেন মাওলানা মিয়াজি আজমত, বাদ আসর বয়ান ও নিকাহ খোতবা পেশ করেন মাওলানা যোবায়রুল হাসান এবং বাদ মাগরিব বয়ান করেন মাওলানা আহমেদ লাট। শনিবারের আম ও খাসবয়ানে মুরবি্বরা দ্বিনের দাওয়াত, মেহনত, তাবলিগের উদ্দেশ্য, আগামী এক বছরের করণীয় এবং নতুন জামাতের উদ্দেশে দিকনির্দেশনামূলক আলোচনা করেন। মুরবি্বরা বলেন, মানুষের সবচেয়ে বড় দায়িত্ব হচ্ছে দ্বিনের দাওয়াতে ব্যস্ত থাকা। দ্বিনের মেহনত মূলত প্রতিটি মানুষের প্রকৃত কাজ। এ কাজ নবীওয়ালা কাজ। মেহনতের মাধ্যমে দিল জিন্দা করা যায়। যে যত বেশি মেহনত করবে সে তত বেশি কামিয়াবি হাসিল করবে। দুনিয়া হচ্ছে ক্ষণস্থায়ী। দুনিয়াকে কেউ যদি স্থায়ী ঠিকানা মনে করে তাহলে ভুল হবে। দুনিয়া থেকে আখেরাতের বাণিজ্য করে নিতে হবে। আল্লাহর তরিকা অনুসারে জীবন চালাতে হবে।
তিন হাজার নতুন জামাত : শেষ পর্বের আখেরি মোনাজাতের পর তিন হাজার নতুন জামাত দেশ-বিদেশে তাবলিগের কাজে ছড়িয়ে পড়বে। মুরবি্বরা জানান, ৩৩ জেলা ও ৮০টি দেশ থেকে ইজতেমায় শরিক হওয়া মুসল্লিদের মধ্য থেকে ইতিমধ্যে নতুন জামাত চিল্লার জন্য প্রস্তুত হয়েছে । প্রতিবন্ধী মুসল্লিদের নিয়ে তৈরি জামাত ছাড়াও বেশ কিছু বিদেশি মেহমানের জামাত বাংলাদেশসহ বিভিন্ন মুসলিম ও অমুসলিম দেশে চিল্লায় যাবে।
যৌতুকহীন বিয়ে : শনিবার ইজতেমার মূল বয়ান মঞ্চে শতাধিক জুটির বিয়ের আয়োজন করা হয়। বর-কনের সম্মতিতে দীর্ঘদিন ধরে ইজতেমার দ্বিতীয় দিনে যৌতুকবিহীন বিয়ের প্রচলন চলে আসছে। বাদ আসর মাওলানা যোবায়রুল হাসান নিকাহ খোতবা পেশ করেন। আগেই আগ্রহী অভিভাবকরা নিজ নিজ সন্তানদের নাম তালিকাভুক্ত করেন। এ বিয়ের আসরে বর উপস্থিত থাকেন। তবে কনে উপস্থিত থাকার নিয়ম নেই। কনের সম্মতিতে তাঁর পুরুষ অভিভাবক বিয়ের সব কাজ সম্পন্ন করেন। বিয়ের পর উপস্থিত মুসল্লিদের মধ্যে খুরমা খেজুর ও মিষ্টি বিতরণ করা হয়। সুন্নতি তরিকায় এ বিয়েতে যৌতুক নেওয়া-দেওয়ার কুফল বিষয়ে আলেমরা কোরআন ও হাদিসের আলোকে বয়ান করেন।
আখেরি মোনাজাতের প্রস্তুতি : টঙ্গী মডেল থানার ওসি মোহাম্মদ ইসমাইল জানান, গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিদের জন্য মোনাজাতে অংশগ্রহণ উপলক্ষে কোনো প্রস্তুতি নেই। সম্ভবত তাঁরা কেউ ইজতেমার আখেরি মোনাজাতে শরিক হবেন না। টঙ্গী পৌরসভার মেয়র ও জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আজমত উল্লা খান জানান, রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর জন্য মোনাজাতে অংশ নিতে কোনো ব্যবস্থা করা হয়নি। বিএনপির টঙ্গী থানা শাখার সভাপতি শাহান শাহ আলম জানান, বিরোধীদলীয় নেতা খালেদা জিয়া শেষ পর্বের মোনাজাতে অংশ নিতে টঙ্গী আসছেন না।
পাঁচ মুসল্লির মৃত্যু : শুক্রবার রাতে পাঁচ মুসলি্লর মৃত্যু হয়েছে। তাঁরা হলেন ব্রাহ্মণবাড়িয়ার কাজীপুর এলাকার আনোয়ার হোসেন (৬৫), টাঙ্গাইলের কালিহাতীর নূর মোহাম্মদ (৭০), নওগাঁর নান্দা এলাকার ইসমাইল হোসেন (৬২), হেদায়েতুল ইসলাম (৭০) ও নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজার এলাকার সুলতান উদ্দিন (৬৫)। সবার জানাজা শেষে লাশ বাড়ি পাঠানো হয়েছে। সঙ্গীরা জানান, বার্ধক্য ও শ্বাসকষ্টজনিত রোগে তাঁদের মৃত্যু হয়েছে।