Widgetized Section

Go to Admin » Appearance » Widgets » and move Gabfire Widget: Social into that MastheadOverlay zone

২০১২’তে ২৪ গুম, ৭০ বিচারবহির্ভূত খুন

ঢাকা: মহাজোট সরকারের চতুর্থ বছরে মোট ২৪ জন আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী পরিচয়ধারীদের দ্বারা গুম এবং ৭০ জন বিচারবহির্ভূত হত্যাকাণ্ডের শিকার হয়েছেন বলে জানিয়েছে মানবাধিকার সংগঠন অধিকার।

শনিবার বিকেলে জাতীয় প্রেস ক্লাবে আয়োজিত এক সংবাদিক সম্মেলনে মানবাধিকার পরিস্থিতি নিয়ে বার্ষিক প্রতিবেদন উপস্থাপনকালে এই তথ্য জানানো হয়। অধিকার’র সাধারণ সম্পাদক আদিলুর রহমান প্রতিবেদনটি উপস্থাপন করেন।

প্রতিবেদনে জানানো হয়, ২০১২ সালে মোট ২৪ জন ব্যক্তি আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্য পরিচয়ে ধরে নিয়ে যাওয়ার পর তাদের গুম হওয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে। আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর পরিচয়ে অপহৃত এসব ব্যক্তির অনেককেই পরে খুঁজে পাওয়া যায়নি এবং বেশ কয়েকজনের ক্ষতবিক্ষত লাশ উদ্ধার করা হয়েছে।

অধিকার প্রতিবেদনে জানানো হয়, ২০১২ সালের সর্বাধিক আলোচিত গুমের ঘটনাটি ঘটেছে ১৮ এপ্রিল। ওই দিন বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক ও সাবেক সংসদ সদস্য এম ইলিয়াস আলী এবং তার গাড়ি চালক আনসার আলী গুম হন।

এ ব্যাপারে ইলিয়াস আলীর স্ত্রী তাহসিনা রুশদীর দাবি করেন, সরকারের কোনো বাহিনীই তার স্বামীকে ধরে নিয়ে গেছে।

বছরের অপর আলোচিত গুমের ঘটনাটি ঘটে সাভারের আশুলিয়ায় গার্মেন্টস শ্রমিক নেতা আমিনুল ইসলাম। ২০১২ সালের ৪ এপ্রিল আমিনুল আশুলিয়া থেকে আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী পরিচয়ধারীদের দ্বারা অপহৃত হন এবং পরে তাকে হত্যা করা হয়।

অধিকারের প্রতিবেদনে আরো জানানো হয়, ২০১২ সালে আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর হাতে মোট ৭০ ব্যক্তি বিচারবহির্ভূত হত্যাকাণ্ডের শিকার হয়েছেন। এর মধ্যে ৫৩ জন ক্রসফায়ারে, আটজন গুলিতে এবং সাতজন নির্যাতনে নিহত হন। এদের মধ্যে ৪০ জনকে হত্যা করেছে র্যা ব।

প্রতিবেদনে জানানো হয়, ওই বছর পুলিশ, র্যা ব ও জেল কর্তৃপক্ষের হাতে মোট ৭২ জন ব্যক্তি নির্যাতনের শিকার হয়েছেন। তার মধ্যে সাতজন নির্যাতনে নিহত হন।

নির্যাতিতদের মধ্যে ৫৩ জন পুলিশের হাতে, র্যা ব-পুলিশের হাতে পাঁচজন, রযা্ বের হাতে পাঁচজন এবং জেল কর্তৃপক্ষ ও বিজিবি’র হাতে একজন করে নির্যাতিত হয়েছেন। এই বছর সারা দেশে মোট ৬৩ জন জেল হাজতে মৃত্যুবরণ করেছেন বলেও জানানো হয়।

সংবাদ সম্মেলনে আরো উপস্থিত ছিলেন আধিকারের সভাপতি ড. সি আর আবরার ও উপদেষ্টা ফরহাদ মাজহার।

Share this:
Share this page via Facebook Share this page via Twitter

LIKE US on FACEBOOK নিউজ সোর্স b24/মজ / ডেস্ট