Widgetized Section

Go to Admin » Appearance » Widgets » and move Gabfire Widget: Social into that MastheadOverlay zone

আসাদের শান্তি উদ্যোগে আমেরিকার ‘না’

ওয়াশিংটন: সিরিয়ার প্রেসিডেন্ট বাশার আল আসাদের প্রস্তাবিত একটি শান্তি উদ্যোগ নাকচ করে দিয়েছে আমেরিকা। এই প্রস্তাবকে তারা ক্ষমতা ধরে রাখার জন্য  আসাদের আরেকটি প্রচেষ্টা হিসেবে উল্লেখ করছে।
আমেরিকার পররাষ্ট্র দফতরের মূখপাত্র ভিক্টোরিয়া নুল্যান্ড বলেছেন, প্রেসিডেন্ট আসাদের সরকার সব ধরনের বৈধতা হারিয়েছে এবং তার ক্ষমতা থেকে সরে দাঁড়ানো উচিত।
এর আগে দামেস্কের অপেরা হাউজে উল্লসিত সমর্থকদের সামনে আসাদ সংকট নিরসনে তার শান্তি উদ্যোগের নানা দিক তুলে ধরেন।
গত বছরের জুন মাসের পর এই প্রথম ভাষণে বাশার আল আসাদ বলেছেন, তার শান্তি উদ্যোগের মধ্যে থাকবে, একটি জাতীয় সম্মেলনের মাধ্যমে নতুন একটি সংবিধান রচনা করা। তবে বিরোধী সব পক্ষের সঙ্গে আলোচনার কোনো ইঙ্গিত দেননি আসাদ। বরং তার ভাষায়, পশ্চিমাদের হাতের পুতুলদের সঙ্গে কোনো আলোচনা তিনি করবেন না।
আমেরিকা ছাড়াও সিরিয়ার প্রতিবেশী রাষ্ট্র তুরস্ক, বৃটেন এবং ইউরোপীয় ইউনিয়ন আসাদের এ বক্তব্যের সমালোচনা করে আবারো তাকে পদত্যাগের আহ্বান জানিয়েছেন।
আসাদের বক্তব্যকে হতাশাজনক বলছেন বৃটিশ পররাষ্ট্র দফতরের মন্ত্রী এলিস্টার বার্ট।
বৃটিশ পররাষ্ট্র দফতরের মন্ত্রী এলিস্টার বার্ট আসাদের এ বক্তব্যকে গভীরভাবে হতাশাজনক বলে মন্তব্য করেছেন।
বার্ট বলছেন, “এই বক্তব্যে বোঝা যাচ্ছে, মৃত্যু এবং ধ্বংসযজ্ঞের মতো যেসব ঘটনা সিরিয় জনগণের জীবন বিপর্যস্ত করে তুলেছে, তার কোনো দায়দায়িত্বই আসাদ এবং তার সরকার নিতে চায় না। সিরিয় জনগণই যখন সরকারের বিরুদ্ধে রুখে দাড়িয়েছে, তখন এ বিষয়টি বাইরের মদদে করা হয়েছে বলাটা ভণ্ডামি।”
মধ্যপ্রাচ্য থেকে বিবিসির সংবাদদাতা জেমস রেনল্ডস বলছেন, প্রেসিডেন্ট আসাদের নতুন এ প্রস্তাবে কোনো বিরোধী গোষ্ঠীর আগ্রহ দেখানোর সম্ভাবনা খুবই কম। এরই মধ্যে সিরিয়ার প্রধান বিরোধী গোষ্ঠী, সিরিয়ান ন্যাশনাল কাউন্সিল আসাদের সব প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করেছে।
জাতিসংঘের হিসেবে, ২০১১ সালের মার্চে সংকট শুরু হবার পর থেকে এখন পর্যন্ত সিরিয়ায় ৬০ হাজার মানুষ নিহত হয়েছে। সূত্র: বিবিসি
Share this:
Share this page via Facebook Share this page via Twitter

LIKE US on FACEBOOK নিউজ সোর্স b24/মজ / ডেস্ট