Widgetized Section

Go to Admin » Appearance » Widgets » and move Gabfire Widget: Social into that MastheadOverlay zone

সমতায় শেষ টি-টোয়েন্টি সিরিজ

 আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টিতে রান তাড়া করে পাকিস্তানের বড় জয়টি বাংলাদেশের বিপক্ষে। বিশ্বকাপে শ্রীলঙ্কার পাল্লেকেলেতে ২ উইকেটে ১৭৮ রানের টার্গেটে পাকিস্তানের জয়টি চলতি বছরই। ভারতের বিপক্ষে গতকাল জয় নিয়ে টি-টোয়েন্টির ট্রফি পাকিস্তানে উড়িয়ে নেয়ার স্বপ্ন  দেখছিলেন হাফিজরা স্বাভাবিক। তবে ভারতের ইনিংস শেষে নিশ্চিত হয়ে যায়, এমন কিছু চাইলে পাকিস্তানকে তা পেতে হবে রেকর্ড গড়েই। আগে ব্যাটিংয়ে ভারত পাকিস্তানের সামনে টার্গেট দেয় ১৯৩ রানের। এতে পাক তারকারা সম্ভাবনাময় ব্যাটিংয়ে ভক্ত সমর্থকদের ম্যাচের ২০ ওভার পর্যন্ত ধরে রাখতে পারেন বড়জোর। শেষ পর্যন্ত পাকিস্তান আহমেদাবাদে এ ম্যাচ জেতেনি। ভাঙেনি তাদের আগের রেকর্ডও। পাঁচ বছর পর উপমহাদেশের দুই জনপ্রিয় দলের দ্বিপক্ষীয় প্রথম সিরিজটিতে ক্রিকেটপ্রেমীরা দেখলেন সমতা। প্রথম ম্যাচে ব্যাঙ্গালোরে জয় দিয়ে  ভারত সফর শুরু করে পাকিস্তান। ভারতের ১৩ রানের জয়ে এ দিন ম্যাচের নায়ক ফাইটার ক্রিকেটার যুবরাজ সিং। ৩৬ বলের দ্বিগুণ ৭৬ রানের টর্নেডো ইনিংসে এ ম্যাচ পাকিস্তানের নাগালের বাইরে  নেন দূরারোগ্য ব্যাধি ক্যান্সার বিজয়ী যুবরাজ। ব্যাটে জবাবে এ দিন ম্যাচে পাকিস্তানের  আশাটা বড় রাখছিলেন পাক ওপেনাররা। নাসির জামশেদ ও আহমেদ শেহজাদ বিনা উইকেটে ৭৪ রান তুলে নেন ৯.৫ ওভারে। দলীয় ৮৪ রানে দুই পাক ওপেনার আউট হয়ে ফিরে গেলেও এ সময়  জুটিতে ৬২ রান তুলে নিয়ে পাকিস্তানের সম্ভাবনা  জীবিত রাখেন অধিনায়ক হাফিজ ও উমর আকমল। ১৬.২ ওভারে দলীয় ১৪৬ রানে আউট হন আকমল।  পরের ওভারগুলোতে আরও ৪ উইকেট হারিয়ে পাকিস্তান ইনিংস শেষ হয় ১৮১ রানে।
ব্যাটিংক্রিজে ইনফর্ম যুবরাজের নিখুঁত টাইমিংয়ে দারুণ সব বড় শট দেখা আছে দর্শকদের। আহমেদাবাদের সরদার প্যাটেল মাঠে গতকাল ভারতের পুঁজিটা বড়সড় হওয়ার পেছনে বড় নামটি যুবরাজেরই। ৩৬ বলে ৭২ রানের ইনিংসে যুবরাজ ছক্কা হাঁকান সাতটি। আর পাকিস্তান কোচ ডেভ হোয়াইটমোরের ঘোষিত তুরুপের তাস সাঈদ আজমলকে ১৯ নম্বর ওভারে যুবরাজ  হাঁকান টানা তিন ছক্কা। ১৩ নম্বর ওভারে দর্শকরা ভারত ইনিংসের প্রথম ছক্কাটি দেখেন যুবরাজের ব্যাটেই। শহীদ আফ্রিদিকে যুবরাজ হাঁটুমুড়ে মিডউইকেটে খেলেন দৃষ্টিনন্দন ছক্কাটি। টসে জিতে এদিন ভারতকে ব্যাটিংয়ে দেন পাকিস্তান অধিনায়ক মোহাম্মদ হাফিজ। ঝড়ো  শুরুতে ৪.৫ ওভারে ভারতের ৪৪ রানে ওপেনার গৌতম গম্ভীর আউট হলেও ভারতের বড় পুঁজির সম্ভাবনা দেখা যাচ্ছিল তখনও। কিন্তু ৮৮ রানে রাহানে ও বিরাট কোহলি উইকেট হারালে কিছুটা হেলে যায় এ সম্ভাবনা। ম্যাচে এ সময় পাকিস্তান তুঙ্গে নেয়া পেস তারকা উমর গুল ইনিংস শেষে পান সর্বাধিক ৪ উইকেট।  তবে অসুখ ফেরত ভারত তারকা যুবরাজ দলের সংগ্রহটা পাকিস্তানের কাছ থেকে নিরাপদ দূরত্বে নিয়ে যান পরিচিত আপন ঢঙেই। অধিনায়ক এমএস ধোনি ৩৩ রান নিয়ে অপরাজিত থাকলেও অপেক্ষাকৃত ছিলেন কম মারমুখি।  শিরোপাজয়ী ভারতের গত বিশ্বকাপের সেরা খেলোয়াড় যুবরাজের পাঁচ ছক্কা দেখানো নৈপুণ্যে শেষ ৫ ওভারে ভারতের রান ওঠে ৭৪। ম্যাচশেষে ভারতের ১৩ রানের জয়ে এটা গুরুত্বপূর্ণ ছিল বলা লাগে না।

Share this:
Share this page via Facebook Share this page via Twitter

LIKE US on FACEBOOK নিউজ সোর্স b24/মজ / ডেস্ট