Widgetized Section

Go to Admin » Appearance » Widgets » and move Gabfire Widget: Social into that MastheadOverlay zone

মন্ত্রী এমপির সঙ্গে চট্টগ্রামের শীর্ষ সন্ত্রাসী তৈয়বের দাপুটে উপস্থিতি

চট্টগ্রাম: এককালে সন্ত্রাসের জনপদ খ্যাত ফটিকছড়ি এলাকার সাবেক ছাত্রলীগ নেতা ও  চট্টগ্রামের শীর্ষ সন্ত্রাসী তৈয়বকে মঙ্গলবার চট্টগ্রামে এক দলীয় অনুষ্ঠানে একাধিক মন্ত্রী, এমপির সঙ্গে মঞ্চে বিচরণ করা নিয়ে চাঞ্চল্য সৃষ্টি হয়েছে।

দীর্ঘদিন বিদেশে পলাতক থাকার পর অনেক খুন-সন্ত্রাসের মামলার এ আসামির রাজনৈতিক ময়দানে সক্রিয় হওয়া নিয়ে দলের অভ্যন্তরেও  ব্যাপক কানাঘুষা শুরু হয়েছে।

মঙ্গলবার চট্টগ্রাম উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের সম্মেলনে পুলিশের তালিকাভুক্ত এ সন্ত্রাসীকে একাধিক মন্ত্রী, সংসদ সদস্য ও আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় নেতাদের সঙ্গে শুধু মঞ্চেই দেখা গেছে তা নয়, সম্মেলনে একজন কাউন্সিলর হিসেবেও দায়িত্ব পালন করেন তিনি।

নগরীর ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউটে অনুষ্ঠিত সম্মেলনের মঞ্চে উপস্থিত ছিলেন, যোগাযোগমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য ওবায়দুল কাদের, আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুবুল আলম হানিফ, কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক বীর বাহাদুর, সাবেক মেয়র ও নগর আওয়ামী লীগের সভাপতি এবিএম মহিউদ্দিন চৌধুরী, বন ও পরিবেশমন্ত্রী ড.হাসান মাহমুদ, সংসদ সদস্য এবিএম ফজলে করিম চৌধুরী ও এবিএম আবুল কাশেমসহ একাধিক কেন্দ্রীয় নেতা।

এ ব্যাপারে উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন এমপি বলেন, “আবু তৈয়ব আমাদের জেলা কমিটির সদস্য। এ জন্য তিনি সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন। তাছাড়া তার বিরুদ্ধে যত মামলা ছিল সবই খারিজ হয়ে গেছে।”

সম্মেলন চলাকালে মঞ্চের দ্বিতীয় সারিতে বসা সন্ত্রাসী আবু তৈয়বের সঙ্গে বেশ করেয়কবার অন্তরঙ্গভাবে কথা বলতে দেখা গেছে চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মোছলেম উদ্দিন আহমেদসহ সিনিয়র নেতাদের।

জানা গেছে, আবু তৈয়বের বিরুদ্ধে ছাত্রলীগে নেতা টিপুসহ অনেক হত্যা মামলাসহ বিগত জোট সরকারের আমলে ৩৫টি মামলা ছিল। ২০০১ সালের জাতীয় নির্বাচনে আওয়ামী লীগের পরাজয়ের পর তৈয়ব বিদেশে পালিয়ে যান। বর্তমান আওয়ামী লীগ সরকার ক্ষমতায় আসার পরও তৈয়বের বিরুদ্ধে ১৭টি মামলা ছিল। সবকটি মামলায় তার বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি হয়। এসব মামলার মধ্যে ১৬টি মামলা রাজনৈতিক বিবেচনায় বাতিল করা হয়েছে। বর্তমানে একটি মামলা রয়েছে।

এ বিষয়ে হাটহাজারী সার্কেলের সহকারী পুলিশ সুপার নিজাম উদ্দিন বলেন, “আবু তৈয়বের বিরুদ্ধে ১৯টি মামলায় গ্রেফতারি পরোয়ানা ছিল। সম্প্রতি হাইকোর্ট থেকে সবকটি মামলার রি-কল চাওয়া হয়েছে। তবে  পুরনো সন্ত্রাসীদের বিরুদ্ধে বর্তমানে কোনো মামলা না থাকলেও তাদের কার্যক্রম এবং গতিবিধি নজরে রাখার জন্য পুলিশ সুপারের কার্যালয় থেকে নির্দেশ রয়েছে।

Share this:
Share this page via Facebook Share this page via Twitter

LIKE US on FACEBOOK নিউজ সোর্স b24/মজ / ডেস্ট