Widgetized Section

Go to Admin » Appearance » Widgets » and move Gabfire Widget: Social into that MastheadOverlay zone

মুক্তিযুদ্ধবিরোধী শক্তির ষড়যন্ত্রের বিরুদ্ধে সজাগ থাকুন : প্রধানমন্ত্রী

ঢাকা, ১৯ ডিসেম্বর : প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দেশের স্বাধীনতা ও সার্বভৌমত্বের বিরুদ্ধে মুক্তিযুদ্ধবিরোধী শক্তির ষড়যন্ত্রের ব্যাপারে সজাগ থাকতে সামরিক বাহিনী, জনপ্রশাসনে কর্মরত সরকারি কর্মকর্তাসহ দেশপ্রেমিক সব শক্তির প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন।
বুধবার মিরপুর সেনানিবাসে ডিফেন্স সার্ভিসেস কমান্ড অ্যান্ড স্টাফ কলেজ (ডিএসসি) মিলনায়তনে ন্যাশনাল ডিফেন্স কোর্স অ্যান্ড আর্মড ফোর্সেস ওয়ার কোর্স ২০১২-এর গ্র্যাজুয়েশন ডিগ্রি প্রদান অনুষ্ঠানে ভাষণ দেওয়ার সময় প্রধানমন্ত্রী এ কথা বলেন।
প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘আপনারা জনপ্রশাসন বা প্রতিরক্ষা বাহিনী, যেখানেই দায়িত্ব পালন করেন না কেন, মুক্তিযুদ্ধবিরোধী শক্তি যাতে আমাদের কষ্টার্জিত স্বাধীনতা ও সার্বভৌমত্ব নস্যাত্ করে দিতে না পারে, সে ব্যাপারে আপনাদের সবাইকে সজাগ থাকতে হবে।’
প্রধানমন্ত্রী ন্যাশনাল ডিফেন্স কলেজের (এনডিসি) মানোন্নয়ন ও প্রশিক্ষণ কার্যক্রম নতুন পর্যায়ে উন্নীত করতে আন্তরিক প্রচেষ্টা চালাতে সেনা কর্মকর্তাদের প্রতি আহ্বান জানান। কলেজের প্রশিক্ষণ কার্যক্রমের ভূয়সী প্রশংসা করে তিনি বলেন, ১৯৯৮ সালে আওয়ামী লীগ সরকারের আমলে প্রতিষ্ঠিত ন্যাশনাল ডিফেন্স কলেজ এখন আন্তর্জাতিকভাবে স্বীকৃতি পাওয়া একটি প্রতিষ্ঠান। ‘এটা আমাদের জন্য একটি গর্বের বিষয়’ উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, বর্তমান সরকার সম্পদের সীমাবদ্ধতা সত্ত্বেও ন্যাশনাল ডিফেন্স কলেজের চাহিদা পূরণে সব ধরনের সহযোগিতা দিয়ে যাচ্ছে। তিনি আশা করেন, এই কলেজ থেকে কোর্স সম্পন্ন করা সামরিক ও বেসামরিক কর্মকর্তারা দেশের উন্নয়নকাজে তাঁদের অর্জিত জ্ঞান কাজে লাগাবেন।
প্রধানমন্ত্রীর প্রতিরক্ষাবিষয়ক উপদেষ্টা মেজর জেনারেল (অব.) তারিক আহমেদ সিদ্দিকী, সেনাবাহিনী-প্রধান জেনারেল ইকবাল করিম ভূঁইয়া, নৌবাহিনী-প্রধান ভাইস অ্যাডমিরাল জহির উদ্দিন আহমেদ, বিমানবাহিনী-প্রধান এয়ার মার্শাল মোহাম্মদ ইনামুল বারী ও সশস্ত্র বাহিনী বিভাগের প্রিন্সিপার স্টাফ অফিসার লে. জেনারেল আবদুল ওয়াদুদ অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন।
শেখ হাসিনা বলেন, পরিবর্তিত বিশ্বে কোনো দেশের জাতীয় নিরাপত্তা এখন আর তার ভৌগোলিক সীমারেখার মধ্যে সীমাবদ্ধ নয়; বরং মানুষের নিরাপত্তা, পরিবেশের নিরাপত্তা ও অন্যান্য বিষয় এর সঙ্গে সংশ্লিষ্ট। তিনি বলেন, খাদ্য, জ্বালানি ও সামাজিক নিরাপত্তা; আন্তর্জাতিক সম্পর্ক, সাইবার জগতের নিয়ন্ত্রণ, পরিবেশের নিরাপত্তা ইত্যাদি বিষয় একুশ শতকের নিরাপত্তা চ্যালেঞ্জ হিসেবে দেখা দিয়েছে। এগুলোর যেকোনোটি বিঘ্নিত হলে দেশের নিরাপত্তাও বিপদের মুখে পড়তে পারে।

Share this:
Share this page via Facebook Share this page via Twitter

LIKE US on FACEBOOK নিউজ সোর্স b24/মজ / ডেস্ট